রাত হলে যেকোনো রোগের মাত্রা বাড়ে কেন? - ScienceBee প্রশ্নোত্তর

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির প্রশ্নোত্তর দুনিয়ায় আপনাকে স্বাগতম! প্রশ্ন-উত্তর দিয়ে জিতে নিন পুরস্কার, বিস্তারিত এখানে দেখুন।

+2 টি ভোট
135 বার দেখা হয়েছে
"স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে করেছেন (133,580 পয়েন্ট)

2 উত্তর

0 টি ভোট
করেছেন (15,610 পয়েন্ট)
পূর্বে নির্বাচিত করেছেন
 
সর্বোত্তম উত্তর
রাত গভীর হওয়ার সাথে সাথে ডিপ্রেশন, আবেগ, দুঃখ বাড়তে থাকে। দিনে বেলা আবার সব স্বাভাবিক। এমনটা হয়েছে আপনার সাথে?

ডিপ্রেশন বা বিষন্নতা শব্দটির সাথে বর্তমান যুগের মানুষ পরিচিত। ডিপ্রেশন ধরনের মানসিক ব্যাধি যা মানুষের ওপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলে। বিষন্নতা যেকোন বয়সের মানুষের মাঝে যেকোন সময় হতে পারে। অনেক মানুষের রাত বাড়ার সাথে সাথে ডিপ্রেশন, আবেগ এর মাত্রা বাড়তে থাকে। এর ফলে ঘুমে ব্যাঘাত ঘটে, বিচ্ছিন্নতা, হতাশা অনুভব হতে থাকে। অনেক মানুষ আবার সকালবেলা এমন অনুভব করেন। একে বলে Diurnal Mood Variation। রাতে ডিপ্রেশন অনুভব করার বেশ কিছু কারণ আছে। যেমন:-

▪️ডিপ্রেশনে ভুগা মানুষ প্রায়ই অতীতের স্মৃতি, ঘটনা আকড়ে ধরে থাকেন। নানাভাবে কল্পনা করে নিজের মতো সেসব স্মৃতি নিয়ে ভাবেন। একে রুমিনেশন বলে। রাতে ডিপ্রেশন অনুভব করার মুখ্য কারণগুলোর মধ্যে এটি একটি। মানুষ যখন একা থাকে তখন রুমিনেশন সবচেয়ে বেশি হতে পারে, আর মানুষ বেশিরভাগ ক্ষেত্রে রাতেই একা থাকে। সাইন্স বী

▪️রাতে বেলা আলোর প্রকটতা ও ডিপ্রেশন এর মাঝে সম্পর্ক নিয়ে ব্যাপাক গবেষণা হয়েছে। আমেরিকান জার্নালে প্রকাশিক এক প্রতিবেদনে রাতে ঘুমের সময় মৃদু আলো ও ডিপ্রেশন এর মাঝে সম্পর্ক নিয়ে বলা হয়েছে। ঘুমের সময় কম পরিমাণ আলোও স্লিপ সাইকেলে হস্তক্ষেপ করে, এর জন্য মানুষের মুডও ব্যাপকভাবে প্রভাবিত হয়।

▪️সার্কাডিয়ান রিদম বা দেহঘড়ির ভারসাম্য বিঘ্নিত হলে ডিপ্রেশন এর মাত্রা দিন দিন বাড়তেই থাকে এবং মুড ডিজঅর্ডার দেখা দেয়। মানবদেহের স্বাভাবিক ছন্দ হচ্ছে, দিনে জেগে থাকা ও রাতে ঘুমানো। রাতে ঘুম কম হলে বা রাত জেগে কাজ করলে দেহঘড়ির কার্যক্রমে ব্যাঘাত ঘটতে পারে। এর ফলে ডিপ্রেশনও বাড়তে থাকে। সাইন্স বী

দিনের বেলা মানুষ নানা ধরনের কাজে ব্যস্ত থাকে, তখন ডিপ্রেশন অনুভব না হওয়াই স্বাভাবিক। রাতে বেশিরভাগ সময়ই মানুষ একা থাকেন, তখন নানা ধরনের চিন্তায় ডিপ্রেশন অনুভব করাটাই স্বাভাবিক। তাছাড়া অনেকেই রাতে মোবাইল, ল্যাপটপ নিয়ে ব্যস্ত থাকেন। মোবাইল ফোনের নীল আলো মেলাটোনিন হরমোন উৎপাদন দমিয়ে রাখে। এই হরমোন মানুষের ঘুমের চক্রকে নিয়ন্ত্রণ করে। রাতে মোবাইল, ল্যাপটপ ব্যবহার করলে সার্কাডিয়ান রিদমে ব্যাঘাত ঘটে, এর ফলে মুড ডিজঅর্ডার হতে পারে। এবার রাতে ডিপ্রেশন, আবেগ কিভাবে মোকাবিলা করা যায় তা নিয়ে কিছুটা আলোচনা করা যাক:-

রাতে ডিপ্রেশন অনুভব করার সবচেয়ে বড় কারণ হচ্ছে নিদ্রাহীনতা বা ইনসোমনিয়া। স্বাভাবিক ঘুমের জন্য বিছানায় যাবার আগে আপনার দেহ ও মনকে চাপমুক্ত করুন। এর জন্য ঘুমানোর আগে বই পড়া, মেডিটেশন করা, ডায়েরি লিখা, হালকা সুরের গান শুনা যেতে পারে। ঘুমাতে যাওয়ার দুই ঘন্টা আগে থেকে সম্ভব হলে ফোন, ল্যাপটপ দূরে সরিয়ে রাখুন। অনেকেরই সন্ধ্যাবেলা বা রাতে চা, কফি জাতীয় উত্তেজক পানীয় পান করার অভ্যাস আছে। এর জন্য ঘুমের ব্যাঘাত ঘটে, ডিপ্রেশন অনুভব হয়। সন্ধ্যা বা রাতে কোন উত্তেজক পানীয় পান করা যাবেনা। মন ও দেহ সতেজ রাখতে দিনে ব্যায়াম করুন, খাদ্যাভ্যাস এর দিকে নজর দিন, জীবনকে উপভোগ করুন, পুরনো স্মৃতি মন থেকে ঝেড়ে ফেলে দিন, নিজের জীবনের ভালো দিকগুলো খুঁজে বের করুন, নতুন করে বাঁচতে শিখুন।

মনে রাখুন: "It’s not whether you win or lose, it’s all about how you play the game of life."

© নিশাত তাসনিম (সাইন্স বী)
0 টি ভোট
করেছেন (133,580 পয়েন্ট)

শরীরের কোথাও ব্যথা বা জ্বর বা যেকোনো অসুস্থতার ক্ষেত্রে দেখা যায় রাত বাড়ার সাথে সাথে শরীর ব্যথা ও অসুস্থতা বেশি অনুভূত হয়। এর কারণ সার্কাডিয়ান রিদম বা দেহঘড়ি৷ সময় পরিবর্তনের সাথে মানবদেহে যে শারীরিক, মানসিক পরিবর্তন হয় তার জন্য দায়ী দেহঘড়ি। দেহঘড়ি সুনির্দিষ্ট রুটিন বজায় চলে এবং মানুষের দেহের ব্যথা অনুভূতি, রোগ প্রতিরোধ সিস্টেমও নিয়ন্ত্রণ করে। রাত বাড়ার সাথে সাথে অ্যান্টি ইনফ্লেমেটরি হরমোন বা কর্টিসল এর মাত্রা প্রাকৃতিকভাবে কমে আসে। তার জন্য শারীরিক ব্যথা বাড়তে থাকে।

ক্রেডিট : নিশাত তাসনিম 

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

+8 টি ভোট
1 উত্তর 75 বার দেখা হয়েছে
14 নভেম্বর 2020 "স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন বিজ্ঞানের পোকা ৫ (122,370 পয়েন্ট)
+16 টি ভোট
1 উত্তর 705 বার দেখা হয়েছে
+2 টি ভোট
1 উত্তর 1,124 বার দেখা হয়েছে
+1 টি ভোট
1 উত্তর 844 বার দেখা হয়েছে
+5 টি ভোট
2 টি উত্তর 38 বার দেখা হয়েছে

7,637 টি প্রশ্ন

9,339 টি উত্তর

4,364 টি মন্তব্য

63,021 জন সদস্য

73 জন অনলাইনে রয়েছে
3 জন সদস্য এবং 70 জন গেস্ট অনলাইনে
  1. Hojayfa Ahmed

    17340 পয়েন্ট

  2. Md.Mahibuzzaman

    13550 পয়েন্ট

  3. Abdullah Shuvo

    5560 পয়েন্ট

  4. Anupom

    2450 পয়েন্ট

  5. মেহেদী হাসান

    1280 পয়েন্ট

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় উন্মুক্ত বিজ্ঞান প্রশ্নোত্তর সাইট সায়েন্স বী QnA তে আপনাকে স্বাগতম। এখানে যে কেউ প্রশ্ন, উত্তর দিতে পারে। উত্তর গ্রহণের ক্ষেত্রে অবশ্যই একাধিক সোর্স যাচাই করে নিবেন। অনেকগুলো, প্রায় ২০০+ এর উপর অনুত্তরিত প্রশ্ন থাকায় নতুন প্রশ্ন না করার এবং অনুত্তরিত প্রশ্ন গুলোর উত্তর দেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। প্রতিটি উত্তরের জন্য ৪০ পয়েন্ট, যে সবচেয়ে বেশি উত্তর দিবে সে ২০০ পয়েন্ট বোনাস পাবে।


Science-bee-qna

সর্বাপেক্ষা জনপ্রিয় ট্যাগসমূহ

মানুষ পানি এইচএসসি-উদ্ভিদবিজ্ঞান ঘুম এইচএসসি-প্রাণীবিজ্ঞান রোগ চোখ জীববিজ্ঞান - পৃথিবী শরীর এইচএসসি-আইসিটি মোবাইল কী ক্ষতি রক্ত চুল চিকিৎসা আলো মাথা কারণ উপকারিতা গরম প্রাণী বৈজ্ঞানিক বৃষ্টি পার্থক্য শীতকাল ডিম খাওয়া কাজ সাপ রং বিদ্যুৎ প্রযুক্তি #biology কেন লাল খাবার রাত সাদা আগুন ভয় সূর্য গাছ হাত মহাকাশ মশা সমস্যা শক্তি কি উপায় ব্যাথা মাছ পদার্থবিজ্ঞান #জানতে বৈশিষ্ট্য পা মনোবিজ্ঞান দুধ ঠাণ্ডা স্বাস্থ্য গণিত #ask গ্রহ কালো রসায়ন আম উদ্ভিদ দাঁত বাচ্চা শব্দ মেয়ে নাক বিজ্ঞান হলুদ স্বপ্ন রঙ চাঁদ ঔষধ বাতাস ভাইরাস বিড়াল পাতা বিস্তারিত চার্জ ফোবিয়া হরমোন তাপমাত্রা পাখি চা মানসিক নখ পাকা মৃত্যু আবিষ্কার কুকুর ত্বক বৃদ্ধি জন্ম
...