ইনসুলিন (insulin) কি? - ScienceBee প্রশ্নোত্তর

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির প্রশ্নোত্তর দুনিয়ায় আপনাকে স্বাগতম! প্রশ্ন-উত্তর দিয়ে জিতে নিন পুরস্কার, বিস্তারিত এখানে দেখুন।

+60 টি ভোট
125,531 বার দেখা হয়েছে
করেছেন (32,140 পয়েন্ট)

28 উত্তর

0 টি ভোট
করেছেন (380 পয়েন্ট)
অগ্ন্যাশয়ের প্রধান হরমোন,এক ধরনের পলিপ্যাপটাইড, যা গ্লুকোজকে রক্ত থেকে কোষের মধ্যে প্রবেশ করা নিয়ন্ত্রণ করে।
0 টি ভোট
করেছেন (2,030 পয়েন্ট)
ইনসুলিন(ইংরেজি: Insulin), হলো অগ্ন্যাশয়ের প্রধান হরমোন,এক ধরনের পলিপ্যাপটাইড, যা গ্লুকোজকে রক্ত থেকে কোষের মধ্যে প্রবেশ করা নিয়ন্ত্রণ করে। ইনসুলিন অগ্ন্যাশয়ের ইনসুলিন[২] নিঃসরণকারী কোষগুলো (আইল্যেটস অব ল্যাঙ্গারহেন্স-এর বিটা কোষ) থেকে নিঃসৃত হয়। মূলত ডায়েবেটিস মেলাইটাস এ ইনসুলিন ব্যবহৃত হয়ে থাকে।[৩] ইনসুলিন খুব পুরানো প্রোটিন যা কয়েক বিলিয়ন বছর আগে উদ্ভাবিত হয়েছে।

ইনসুলিন ৫১টি অ্যামিনাে অ্যাসিড নিয়ে গঠিত ক্ষুদ্রাকার সরল প্রােটিন । দুটি পলিপেপটাই চেইন ( ২১টি অ্যামাইনাে অ্যাসিড নিয়ে গঠিত চেইন – A এবং ৩০টি অ্যামিনাে অ্যাসিড নিয়ে গঠিত চেইন – B ) দুটি ডাইসালফাইড বন্ডের মাধ্যমে সংযুক্ত হয়ে একটি ইনসুলিন অণু গঠন করে । এর রাসায়নিক সংকেত হলাে : C 254 H 377 O 75 S 6 {\displaystyle {\ce {C254H377O75S6}}}। এর আণবিক ভর ৫৭৩৪ ।বর্তমানে মানুষের ইনসুলিন উৎপাদনকারী জিন E . coli তে স্থানান্তর করে ব্যাপক হারে ইনসুলিন উৎপাদন করা হচ্ছে । একটি ব্যাক্টেরিয়াম কোষে প্রায় দশ লক্ষ অণু ইনসুলিন তৈরি হয়ে থাকে । ইনসুলিন  কৃত্রিমভাবে উৎপাদনের কারণে বর্তমান পৃথিবীর অধিকাংশ জৈবিক সমস্যা সমাধান সম্ভব হয়েছে।  বর্তমানে বিজ্ঞানীরা এই বিষয়ে আরো ব্যাপক গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছে ।
0 টি ভোট
করেছেন (2,030 পয়েন্ট)
ইনসুলিন(ইংরেজি: Insulin), হলো অগ্ন্যাশয়ের প্রধান হরমোন,এক ধরনের পলিপ্যাপটাইড, যা গ্লুকোজকে রক্ত থেকে কোষের মধ্যে প্রবেশ করা নিয়ন্ত্রণ করে। ইনসুলিন অগ্ন্যাশয়ের ইনসুলিন নিঃসরণকারী কোষগুলো (আইল্যেটস অব ল্যাঙ্গারহেন্স-এর বিটা কোষ) থেকে নিঃসৃত হয়। মূলত ডায়েবেটিস মেলাইটাস এ ইনসুলিন ব্যবহৃত হয়ে থাকে। ইনসুলিন খুব পুরানো প্রোটিন যা কয়েক বিলিয়ন বছর আগে উদ্ভাবিত হয়েছে।

ইনসুলিন ৫১টি অ্যামিনাে অ্যাসিড নিয়ে গঠিত ক্ষুদ্রাকার সরল প্রােটিন । দুটি পলিপেপটাই চেইন ( ২১টি অ্যামাইনাে অ্যাসিড নিয়ে গঠিত চেইন – A এবং ৩০টি অ্যামিনাে অ্যাসিড নিয়ে গঠিত চেইন – B ) দুটি ডাইসালফাইড বন্ডের মাধ্যমে সংযুক্ত হয়ে একটি ইনসুলিন অণু গঠন করে । এর রাসায়নিক সংকেত হলাে : C 254 H 377 O 75 S 6 । এর আণবিক ভর ৫৭৩৪ ।বর্তমানে মানুষের ইনসুলিন উৎপাদনকারী জিন E . coli তে স্থানান্তর করে ব্যাপক হারে ইনসুলিন উৎপাদন করা হচ্ছে । একটি ব্যাক্টেরিয়াম কোষে প্রায় দশ লক্ষ অণু ইনসুলিন তৈরি হয়ে থাকে । ইনসুলিন  কৃত্রিমভাবে উৎপাদনের কারণে বর্তমান পৃথিবীর অধিকাংশ জৈবিক সমস্যা সমাধান সম্ভব হয়েছে।  বর্তমানে বিজ্ঞানীরা এই বিষয়ে আরো ব্যাপক গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছে ।
0 টি ভোট
করেছেন (4,150 পয়েন্ট)

ইনসুলিন(ইংরেজি: Insulin), হলো অগ্ন্যাশয়ের প্রধান হরমোন,এক ধরনের পলিপ্যাপটাইড, যা গ্লুকোজকে রক্ত থেকে কোষের মধ্যে প্রবেশ করা নিয়ন্ত্রণ করে। ইনসুলিন অগ্ন্যাশয়ের ইনসুলিন নিঃসরণকারী কোষগুলো (আইল্যেটস অব ল্যাঙ্গারহেন্স-এর বিটা কোষ) থেকে নিঃসৃত হয়। মূলত ডায়েবেটিস মেলাইটাস এ ইনসুলিন ব্যবহৃত হয়ে থাকে।

 

0 টি ভোট
করেছেন (4,150 পয়েন্ট)

ইনসুলিন(ইংরেজি: Insulin), হলো অগ্ন্যাশয়ের প্রধান হরমোন,এক ধরনের পলিপ্যাপটাইড, যা গ্লুকোজকে রক্ত থেকে কোষের মধ্যে প্রবেশ করা নিয়ন্ত্রণ করে। ইনসুলিন অগ্ন্যাশয়ের ইনসুলিন নিঃসরণকারী কোষগুলো (আইল্যেটস অব ল্যাঙ্গারহেন্স-এর বিটা কোষ) থেকে নিঃসৃত হয়। মূলত ডায়েবেটিস মেলাইটাস এ ইনসুলিন ব্যবহৃত হয়ে থাকে।

0 টি ভোট
করেছেন (1,580 পয়েন্ট)

ইনসুলিন হল একটি হরমোন যা প্যানক্রিযাস নামের একটি গ্ল্যান্ড থেকে উৎপাদিত হয়। এটি রক্তের গ্লুকোজ স্তর নিয়ন্ত্রণ করে। এটি প্রধানত খাদ্যে রয়েছে এবং এর কাজ হল রক্তের গ্লুকোজ স্তর নিয়ন্ত্রণ করা। গ্লুকোজ হল প্রাথমিক শক্তির উৎস এবং শরীরে প্রতিটি কণা গ্লুকোজ থেকে শক্তি তৈরি করে।

ইনসুলিন গ্লুকোজকে শরীরের কোষগুলিতে প্রবেশ করতে সাহায্য করে এবং এর সাথে গ্লুকোজকে পরিবর্তন করে একটি প্রক্রিয়ায় যা ক্ষেত্রে গ্লুকোজ এনাবলিক হয় যাতে এর শরীরে ব্যবহৃত হতে পারে। এছাড়াও ইনসুলিন বিশেষত খাদ্যের মাধ্যমে শরীরে প্রবেশ করে এবং শরীরের শক্তি স্তর নিয়ন্ত্রণ করে।

0 টি ভোট
করেছেন (4,150 পয়েন্ট)

ইনসুলিন(ইংরেজি: Insulin), হলো অগ্ন্যাশয়ের প্রধান হরমোন,এক ধরনের পলিপ্যাপটাইড, যা গ্লুকোজকে রক্ত থেকে কোষের মধ্যে প্রবেশ করা নিয়ন্ত্রণ করে। ইনসুলিন অগ্ন্যাশয়ের ইনসুলিন নিঃসরণকারী কোষগুলো (আইল্যেটস অব ল্যাঙ্গারহেন্স-এর বিটা কোষ) থেকে নিঃসৃত হয়। মূলত ডায়েবেটিস মেলাইটাস এ ইনসুলিন ব্যবহৃত হয়ে থাকে।

0 টি ভোট
করেছেন (670 পয়েন্ট)

ইনসুলিন হলো আমাদের দেহের অগ্ন্যাশয় থেকে নিঃসৃত একটি গুরুত্বপূর্ণ হরমোন। এটি রক্তে শর্করার (গ্লুকোজ) মাত্রা নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। ইনসুলিন ছাড়া কোষগুলো গ্লুকোজ গ্রহণ করতে পারে না, ফলে রক্তে শর্করার মাত্রা বেড়ে যায়।

ইনসুলিনের কাজ:

  • রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে।
  • কোষগুলোকে গ্লুকোজ গ্রহণে সাহায্য করে।
  • গ্লুকোজকে শক্তিতে রূপান্তর করতে সাহায্য করে।
  • গ্লুকোজকে গ্লাইকোজেন হিসেবে যকৃতে ও পেশীতে সংরক্ষণ করে।
  • প্রোটিন ও চর্বির সংশ্লেষণে সাহায্য করে।

ইনসুলিনের অভাব:

  • ডায়াবেটিস মেলাইটাস
  • রক্তে শর্করার মাত্রা বৃদ্ধি
  • কোষে শক্তির অভাব
  • ক্ষুধা বৃদ্ধি
  • প্রস্রাব বৃদ্ধি
  • ওজন হ্রাস
  • ক্লান্তি
  • দৃষ্টিশক্তি হ্রাস

ইনসুলিনের ব্যবহার:

  • ডায়াবেটিস রোগীদের রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য ইনসুলিন ব্যবহার করা হয়।
  • ইনসুলিন বিভিন্ন রকমের আছে, যেমনঃ দ্রুত ক্রিয়াশীল, মধ্যবর্তী ক্রিয়াশীল ও দীর্ঘ ক্রিয়াশীল।
  • ডাক্তার রোগীর প্রয়োজন অনুযায়ী ইনসুলিনের ডোজ ও প্রকার নির্ধারণ করে থাকেন।
  • ইনসুলিন ইনজেকশনের মাধ্যমে দেওয়া হয়।

ইনসুলিনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া:

  • হাইপোগ্লাইসেমিয়া (রক্তে শর্করার মাত্রা কমে যাওয়া)
  • ইনজেকশনের স্থানে ব্যথা
  • ওজন বৃদ্ধি
  • অ্যালার্জি

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

+9 টি ভোট
3 টি উত্তর 446 বার দেখা হয়েছে
+3 টি ভোট
1 উত্তর 120 বার দেখা হয়েছে
31 ডিসেম্বর 2021 "স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Ismot Rahman (28,740 পয়েন্ট)
+1 টি ভোট
4 টি উত্তর 384 বার দেখা হয়েছে
05 মার্চ 2021 "স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন শাহরিয়ার (610 পয়েন্ট)
+3 টি ভোট
7 টি উত্তর 474 বার দেখা হয়েছে
04 জানুয়ারি 2022 "জীববিজ্ঞান" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Md. Arafat Hasan (16,190 পয়েন্ট)
+1 টি ভোট
1 উত্তর 142 বার দেখা হয়েছে

10,720 টি প্রশ্ন

18,363 টি উত্তর

4,729 টি মন্তব্য

240,156 জন সদস্য

47 জন অনলাইনে রয়েছে
0 জন সদস্য এবং 47 জন গেস্ট অনলাইনে
  1. Ayon Ratan Agni

    390 পয়েন্ট

  2. Al Moyaj Khondokar

    210 পয়েন্ট

  3. Vuter Baccha

    150 পয়েন্ট

  4. Mehedi_Bknowledge

    110 পয়েন্ট

  5. Monojit Das

    110 পয়েন্ট

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় উন্মুক্ত বিজ্ঞান প্রশ্নোত্তর সাইট সায়েন্স বী QnA তে আপনাকে স্বাগতম। এখানে যে কেউ প্রশ্ন, উত্তর দিতে পারে। উত্তর গ্রহণের ক্ষেত্রে অবশ্যই একাধিক সোর্স যাচাই করে নিবেন। অনেকগুলো, প্রায় ২০০+ এর উপর অনুত্তরিত প্রশ্ন থাকায় নতুন প্রশ্ন না করার এবং অনুত্তরিত প্রশ্ন গুলোর উত্তর দেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। প্রতিটি উত্তরের জন্য ৪০ পয়েন্ট, যে সবচেয়ে বেশি উত্তর দিবে সে ২০০ পয়েন্ট বোনাস পাবে।


Science-bee-qna

সর্বাপেক্ষা জনপ্রিয় ট্যাগসমূহ

মানুষ পানি ঘুম পদার্থ - জীববিজ্ঞান এইচএসসি-উদ্ভিদবিজ্ঞান এইচএসসি-প্রাণীবিজ্ঞান পৃথিবী চোখ রোগ রাসায়নিক শরীর রক্ত আলো মোবাইল ক্ষতি চুল কী #ask চিকিৎসা পদার্থবিজ্ঞান সূর্য প্রযুক্তি প্রাণী স্বাস্থ্য বৈজ্ঞানিক মাথা গণিত মহাকাশ পার্থক্য এইচএসসি-আইসিটি #science বিজ্ঞান #biology খাওয়া শীতকাল গরম কেন #জানতে ডিম চাঁদ বৃষ্টি কারণ কাজ বিদ্যুৎ রাত রং উপকারিতা শক্তি লাল আগুন সাপ মনোবিজ্ঞান গাছ খাবার সাদা আবিষ্কার দুধ উপায় হাত মশা মাছ মস্তিষ্ক শব্দ ঠাণ্ডা ব্যাথা ভয় বাতাস গ্রহ স্বপ্ন রসায়ন তাপমাত্রা উদ্ভিদ কালো কি বিস্তারিত রঙ পা পাখি গ্যাস মন সমস্যা মেয়ে বৈশিষ্ট্য হলুদ বাচ্চা সময় ব্যথা মৃত্যু চার্জ অক্সিজেন ভাইরাস আকাশ গতি দাঁত আম বিড়াল কান্না নাক
...