বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় বই পড়ার কোনো পদ্ধতি আছে কী - ScienceBee প্রশ্নোত্তর

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির প্রশ্নোত্তর দুনিয়ায় আপনাকে স্বাগতম! প্রশ্ন-উত্তর দিয়ে জিতে নিন পুরস্কার, বিস্তারিত এখানে দেখুন।

+1 টি ভোট
170 বার দেখা হয়েছে
"বাংলাদেশ ও বিশ্ব" বিভাগে করেছেন (1,810 পয়েন্ট)

4 উত্তর

0 টি ভোট
করেছেন (5,060 পয়েন্ট)
জোর করে মুখস্ত করতে গেলে সব তথ্য মনে নাও থাকতে পারে । আমি গল্পের বইয়ের মত করে পড়েছি । এছাড়া বিভিন্ন ঐতিহাসিক প্রামান্য চিত্র দেখার চেষ্টা করেছি । এভাবে ভালই ফল পেয়েছি । ধন্যবাদ ।
0 টি ভোট
করেছেন (180 পয়েন্ট)
সম্পাদিত করেছেন

পড়াশোনার ক্ষেত্রে একেকজন মানুষ তার ব্রেইনকে একেকভাবে ট্রেইন করে থাকে। কেউ কেউ কল্পনায় প্রতিটা জিনিসকে ভাবতে ভালোবাসে। এবং মনে রাখার চেষ্টা করে। কেউ কেউ আবার প্রতিটা বিষয়কে খুটিয়ে খুটিয়ে বারবার পড়ে মনে রাখার চেষ্টা করে। 

বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় পড়তে গেলে আপনাকে সর্বপ্রথম এটা ভাবতে হবে যে আপনি আসলে কী পড়তে যাচ্ছেন। কোন টপিক্সটা আপনি আয়ত্ত করতে যাচ্ছেন। 

১. এ নিয়ে আপনার আগে একবার ভাবা উচিৎ এই টপিকের কী কী আপনি জানেন। 

এরপর আপনার পড়ার অংশটুকু একবার মনোযোগ সহকারে রিডিং পড়ুন। পড়ার সময় সালগুলোকে আর ঘটনাগুলোকে খেয়াল রাখুন। 

২. এবার আপনি খাতা কলম নিন। সালগুলোকে খুঁজে খুঁজে সিরিয়ালি খাতায় লিখুন।

৩. সালগুলোর পাশে ঘটনার মূল পয়েন্টটা লিখে রাখেন। 

৪. এবার চেষ্টা করতে থাকেন একটার সাথে একটার রিলেশন কেমন। কোন ঘটনার পর কোন ঘটনা হয়েছে  এটা আপনার চোখের সামনেই আছে। এবার খাতাটা সামনে রেখে বই পড়ুন। হিজিবিজি লাগবেনা।

যেসব জিনিস বইতে একটা বিষয়েরই হেডলাইন দিয়ে দিয়ে ব্যাখ্যা লিখা সেগুলার ক্ষেত্রে ক্লাসিফিকেশন যেভাবে করতে হয় সেভাবে আপনি ক্লাসিফিকেশন করে পড়তে পারেন। এটা মনে রাখার নিঞ্জা ট্যাকনিক। বইয়ে পড়া ক্লাসিফিকেশনের চেয়ে নিজে ক্লাসিফাই করে পড়লে মনে থাকবে।

৫. পড়ার বিকল্প নেই। আপনাকে হার্ডওয়ার্ক করতেই হবে মনে রাখতে গেলে। তবে হ্যাঁ আপনি স্মার্টলি হার্ডওয়ার্ক করলেই আসল গেইনার হবেন। বোরিং লাগবেনা। সবাই-তো পড়ে। কয়জন স্মার্টলি পড়ে?

Happy Reading! 

0 টি ভোট
করেছেন (4,270 পয়েন্ট)

হ্যাঁ, "বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয়" বই পড়ার কিছু পদ্ধতি আছে যাতে সহজে মনে রাখা সম্ভব হয়। নিচে সেগুলোর কিছু উল্লেখ করা হল:

  • প্রথমে বইয়ের বিষয়বস্তু সম্পর্কে একটি মোটামুটি ধারণা নিন। বইয়ের ভূমিকা এবং প্রথম কয়েকটি অধ্যায় পড়ে দেখুন। এতে আপনি বইয়ের মূল বিষয়বস্তু সম্পর্কে জানতে পারবেন এবং পড়ার সময় মনোযোগী থাকতে পারবেন।
  • বইটি ধীরে ধীরে পড়ুন এবং বুঝুন। সবকিছু একবারে মনে রাখার চেষ্টা করবেন না। প্রতিটি অধ্যায় পড়ার পর, গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো মনে রাখতে চেষ্টা করুন।
  • বইটি পড়ার সময় নোট নিন। এতে আপনি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো মনে রাখার জন্য সহায়তা পাবেন।
  • বইটি পড়ার পর, বিভিন্ন ধরনের প্রশ্নের উত্তর দিয়ে অনুশীলন করুন। এতে আপনি আপনার বোঝার পরিধি পরীক্ষা করতে পারবেন এবং শূন্যস্থানগুলো পূরণ করতে পারবেন।
  • আপনার আগ্রহের বিষয়গুলোর উপর বিশেষ মনোযোগ দিন। আপনি যদি একটি বিষয়ে আগ্রহী হন, তাহলে সেই বিষয়টি সম্পর্কে আরও গবেষণা করুন। এতে আপনার মনে রাখার ক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে।

এছাড়াও, নিম্নলিখিত কৌশলগুলো অনুসরণ করে আপনি বইটি সহজে মনে রাখতে পারবেন:

  • বইটি পড়ার সময়, বিভিন্ন ধরনের জ্ঞানীয় প্রক্রিয়া ব্যবহার করুন। শুধুমাত্র তথ্যগুলো মনে রাখার চেষ্টা করবেন না। সেগুলো সম্পর্কে চিন্তা করুন, প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করুন এবং সম্পর্কগুলো বুঝতে চেষ্টা করুন।
  • বইটি পড়ার সময়, আপনি যা শিখেছেন তা অন্যদের সাথে শেয়ার করুন। এতে আপনি আপনার বোঝার গভীরতা পরীক্ষা করতে পারবেন এবং অন্যদেরও শিখতে সাহায্য করতে পারবেন।
  • নিয়মিত অনুশীলন করুন। যত বেশি আপনি পড়বেন এবং অনুশীলন করবেন, ততই আপনি সহজে মনে রাখতে পারবেন।

এই পদ্ধতিগুলো অনুসরণ করে আপনি "বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয়" বইটি সহজে মনে রাখতে পারবেন বলে আশা করছি!

আশা করি আপনি উত্তরটি পেয়েছেন। ধন্যবাদ!

0 টি ভোট
করেছেন (7,800 পয়েন্ট)

হ্যাঁ, বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় বই পড়ার জন্য কিছু পদ্ধতি রয়েছে। এই পদ্ধতিগুলি অনুসরণ করলে আপনি বইটি থেকে সর্বোচ্চ জ্ঞান অর্জন করতে পারবেন।

বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় বই পড়ার পদ্ধতি:

  • প্রথমে বইয়ের ভূমিকা অংশটি ভালোভাবে পড়ুন। এই অংশে বইয়ের উদ্দেশ্য, পরিসর, এবং গঠন সম্পর্কে আলোচনা করা হয়।
  • তারপর বইয়ের অধ্যায়গুলির শিরোনামগুলি পড়ুন। এতে করে আপনি বইয়ের মূল বিষয়গুলি সম্পর্কে একটি ধারণা পাবেন।
  • প্রতিটি অধ্যায়ের শুরুতে সংক্ষিপ্তসারটি পড়ুন। এতে করে আপনি অধ্যায়ের মূল বিষয়গুলি সম্পর্কে একটি ধারণা পাবেন।
  • তারপর অধ্যায়ের মূল অংশটি পড়ুন। এই অংশে অধ্যায়ের মূল বিষয়গুলি বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হয়।
  • অধ্যায়ের শেষে প্রশ্নাবলীগুলির উত্তর দিন। এতে করে আপনি অধ্যায়ের মূল বিষয়গুলি বুঝতে পারছেন কিনা তা যাচাই করতে পারবেন।
  • প্রতিটি অধ্যায় পড়ার পর একটি নোট তৈরি করুন। এতে করে আপনি অধ্যায়ের মূল বিষয়গুলি মনে রাখতে পারবেন।

বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় বই পড়ার কিছু টিপস:

  • বইটি একবারে শেষ করার চেষ্টা করবেন না। প্রতিদিন কিছুক্ষণ সময় করে বইটি পড়ুন।
  • বইটি পড়ার সময় শান্ত পরিবেশে থাকুন।
  • বইটি পড়ার সময় প্রশ্ন করুন। যদি কোন বিষয় বুঝতে না পারেন, তাহলে শিক্ষক বা অভিভাবকের সাহায্য নিন।
  • বইটি পড়ার সময় বন্ধুদের সাথে আলোচনা করুন। এতে করে আপনি বিষয়টি সম্পর্কে আরও ভালোভাবে বুঝতে পারবেন।

বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় বই পড়ার কিছু সুবিধা:

  • এই বইগুলি পড়ে আপনি বাংলাদেশ এবং বিশ্ব সম্পর্কে অনেক কিছু জানতে পারবেন।
  • এই বইগুলি পড়ে আপনার জ্ঞান বৃদ্ধি পাবে।
  • এই বইগুলি পড়ে আপনার চিন্তাশক্তির বিকাশ ঘটবে।

বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় বই পড়ার মাধ্যমে আপনি একজন জ্ঞানী এবং চিন্তাশীল মানুষ হিসেবে গড়ে উঠতে পারবেন।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

+1 টি ভোট
1 উত্তর 770 বার দেখা হয়েছে
07 জানুয়ারি 2023 "চিন্তা ও দক্ষতা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Tauhidul2004 (260 পয়েন্ট)
0 টি ভোট
2 টি উত্তর 235 বার দেখা হয়েছে
09 ফেব্রুয়ারি "চিন্তা ও দক্ষতা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Simum (980 পয়েন্ট)
+1 টি ভোট
1 উত্তর 265 বার দেখা হয়েছে
26 ফেব্রুয়ারি 2023 "লাইফ" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Simum (980 পয়েন্ট)
+6 টি ভোট
1 উত্তর 459 বার দেখা হয়েছে
+4 টি ভোট
2 টি উত্তর 544 বার দেখা হয়েছে
01 মার্চ 2021 "রসায়ন" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Hasan Rizvy Pranto (39,270 পয়েন্ট)

10,755 টি প্রশ্ন

18,420 টি উত্তর

4,735 টি মন্তব্য

246,865 জন সদস্য

53 জন অনলাইনে রয়েছে
0 জন সদস্য এবং 53 জন গেস্ট অনলাইনে
  1. shuvosheikh

    360 পয়েন্ট

  2. talal

    150 পয়েন্ট

  3. Ahamd_Muttaki

    110 পয়েন্ট

  4. Preetom Porbo

    110 পয়েন্ট

  5. nahidemon

    110 পয়েন্ট

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় উন্মুক্ত বিজ্ঞান প্রশ্নোত্তর সাইট সায়েন্স বী QnA তে আপনাকে স্বাগতম। এখানে যে কেউ প্রশ্ন, উত্তর দিতে পারে। উত্তর গ্রহণের ক্ষেত্রে অবশ্যই একাধিক সোর্স যাচাই করে নিবেন। অনেকগুলো, প্রায় ২০০+ এর উপর অনুত্তরিত প্রশ্ন থাকায় নতুন প্রশ্ন না করার এবং অনুত্তরিত প্রশ্ন গুলোর উত্তর দেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। প্রতিটি উত্তরের জন্য ৪০ পয়েন্ট, যে সবচেয়ে বেশি উত্তর দিবে সে ২০০ পয়েন্ট বোনাস পাবে।


Science-bee-qna

সর্বাপেক্ষা জনপ্রিয় ট্যাগসমূহ

মানুষ পানি ঘুম পদার্থ - জীববিজ্ঞান এইচএসসি-উদ্ভিদবিজ্ঞান এইচএসসি-প্রাণীবিজ্ঞান পৃথিবী চোখ রোগ রাসায়নিক শরীর রক্ত আলো #ask মোবাইল ক্ষতি চুল কী চিকিৎসা পদার্থবিজ্ঞান সূর্য #science প্রযুক্তি স্বাস্থ্য মাথা প্রাণী গণিত বৈজ্ঞানিক মহাকাশ পার্থক্য এইচএসসি-আইসিটি #biology বিজ্ঞান খাওয়া গরম শীতকাল #জানতে কেন ডিম চাঁদ বৃষ্টি কারণ কাজ বিদ্যুৎ রাত রং উপকারিতা শক্তি লাল আগুন সাপ মনোবিজ্ঞান গাছ খাবার সাদা আবিষ্কার দুধ উপায় হাত মশা মাছ ঠাণ্ডা মস্তিষ্ক শব্দ ব্যাথা ভয় বাতাস স্বপ্ন তাপমাত্রা গ্রহ রসায়ন উদ্ভিদ কালো পা কি বিস্তারিত রঙ মন পাখি গ্যাস সমস্যা মেয়ে বৈশিষ্ট্য হলুদ বাচ্চা সময় ব্যথা মৃত্যু চার্জ অক্সিজেন ভাইরাস আকাশ গতি দাঁত আম হরমোন বাংলাদেশ বিড়াল
...