সাইডিপিড কি? - ScienceBee প্রশ্নোত্তর

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির প্রশ্নোত্তর দুনিয়ায় আপনাকে স্বাগতম! প্রশ্ন-উত্তর দিয়ে জিতে নিন পুরস্কার, বিস্তারিত এখানে দেখুন।

0 টি ভোট
193 বার দেখা হয়েছে
"প্রাণিবিদ্যা" বিভাগে করেছেন (160 পয়েন্ট)

2 উত্তর

0 টি ভোট
করেছেন (4,640 পয়েন্ট)
সম্পাদিত করেছেন

সাইডিপিড হলো "সম্ভাব্য গুরুতর এবং গভীর প্রতিবন্ধিতা" বা "Severe and Profound Intellectual and Developmental Disabilities"-এর সংক্ষিপ্ত রূপ। এটি এমন একটি অবস্থাকে বোঝায় যেখানে একজন ব্যক্তির তীব্র এবং গভীর বুদ্ধি প্রতিবন্ধকতা এবং বিকাশগত প্রতিবন্ধকতা রয়েছে। অর্থাৎ এটি এমন ব্যক্তিদের বোঝায় যাদের বুদ্ধি এবং বিকাশের প্রতিবন্ধিতা এতটাই গুরুতর যে তারা স্বাধীনভাবে বেঁচে থাকার জন্য ব্যাপক সহায়তার প্রয়োজন। এই ধরনের প্রতিবন্ধকতাগুলির ফলে একজন ব্যক্তির দৈনন্দিন জীবনের কার্যক্রমগুলিতে স্বাধীনভাবে অংশগ্রহণ করা কঠিন বা অসম্ভব হয়ে পড়তে পারে।

⬇️সাইডিপিডের কিছু সাধারণ কারণ হলো:

 

  1. জেনেটিক অবস্থা, যেমন ডাউন সিনড্রোম, ফ্রান্সুয়াজ-হাট্টিন সিনড্রোম, এবং অ্যাটক্সিক নিউরোডেজেনারেশন
  2. জন্মগত ত্রুটি, যেমন মেনিনজোসেলে, স্পাইন বিফিডা, এবং প্রিম্যাচিওরিটি
  3. মস্তিষ্কের ক্ষতি, যেমন ইনফান্টাইল সেরেব্রাল পালসি, হেমোরেজিক ইনফান্টাইল সেরেব্রাল পালসি, এবং মেনিনজাইটিস

 

⬇️সাইডিপিড-এর লক্ষণগুলির মধ্যে রয়েছে:

 

  • বুদ্ধি প্রতিবন্ধকতা বা কম বুদ্ধিমত্তা
  • বিকাশগত প্রতিবন্ধকতা
  • ভাক্ষাগত ও যোগাযোগের সমস্যা
  • আচরণগত সমস্যা
  • শারীরিক প্রতিবন্ধকতা
  • যত্ন নেওয়ার জন্য ব্যাপক সহায়তার প্রয়োজন।

 

সাইডিপিডের ব্যক্তিরা সম্পূর্ণ এবং স্বাধীন জীবনযাপন করতে সক্ষম। 

সাইডিপিড-এর চিকিৎসা নেই। তবে, চিকিৎসা, চিত্তবিনোদন,  শিক্ষা এবং থেরাপির মাধ্যমে এই ধরনের প্রতিবন্ধকতাগুলির প্রভাবগুলি কমানো যেতে পারে।

 

সাইডিপিড-এর সাথে থাকা ব্যক্তিদের জন্য শিক্ষা, স্বাস্থ্যসেবা এবং সামাজিক সুরক্ষার প্রয়োজন হয়। এই ধরনের ব্যক্তিদের জন্য বিশেষ শিক্ষা এবং সহায়তা প্রদানের জন্য বিভিন্ন সংস্থা এবং কর্মসূচি রয়েছে।

 

বাংলাদেশে সাইডিপিড-এর সাথে থাকা ব্যক্তিদের জন্য বিভিন্ন সরকারি এবং বেসরকারি সংস্থা কাজ করছে। এই সংস্থাগুলি শিক্ষা, স্বাস্থ্যসেবা এবং সামাজিক সুরক্ষার মাধ্যমে এই ধরনের ব্যক্তিদের জীবনযাত্রার মান উন্নত করার জন্য কাজ করছে। তবে এখনও বাংলাদেশে সাইডিপিডের সুবিধা কম।

✨সাইডিপিড-এর সাথে থাকা ব্যক্তিদের জন্য কিছু সাধারণ কার্যকলাপের মধ্যে রয়েছে:

  • যোগাযোগ
  •  খেলাধুলা
  •  শিল্প
  • সংগীত
  • চিত্রাংকন
  • সামাজিকতা

এই ধরনের ব্যক্তিদের জন্য উক্ত কার্যকলাপগুলি তাদের দক্ষতা এবং ক্ষমতা বিকাশ করতে এবং তাদের জীবনকে আরও অর্থবহ করে তুলতে সাহায্য করতে পারে। এতে তাদের সম্ভাবনাকে সর্বাধিক করা যেতে পারে। 

আমার মতে আপনার সমস্যা হতে পারে অটিজম ও সাইডিপিডের মধ্যে মূল পার্থক্য নিয়ে।

অটিজম ও সাইডিপিড দুটি ভিন্ন ধরনের অটিজম স্পেকট্রাম ডিসঅর্ডার (ASD)। অটিজম শুধুমাত্র যোগাযোগ, সামাজিক মিথস্ক্রিয়া এবং আচরণে পরিবর্তন ঘটায়, অন্যদিকে সাইডিপিড জ্ঞানীয় প্রতিবন্ধকতা এবং শারীরিক প্রতিবন্ধকতা উভয়কেই অন্তর্ভুক্ত করে।

 

**অটিজম ও সাইডিপিডের মধ্যে মূল পার্থক্যগুলি হল:**

 

* **অটিজম শুধুমাত্র যোগাযোগ, সামাজিক মিথস্ক্রিয়া এবং আচরণে পরিবর্তন ঘটায়, অন্যদিকে সাইডিপিড জ্ঞানীয় প্রতিবন্ধকতা এবং শারীরিক প্রতিবন্ধকতা উভয়কেই অন্তর্ভুক্ত করে।**

* **অটিজমযুক্ত ব্যক্তিদের সাধারণত বুদ্ধিমত্তা স্বাভাবিক বা উচ্চ থাকে, অন্যদিকে সাইডিপিডযুক্ত ব্যক্তিদের প্রায়ই বুদ্ধিমত্তার ঘাটতি থাকে।**

* **অটিজমযুক্ত ব্যক্তিরা সাধারণত শারীরিকভাবে স্বাভাবিক থাকেন, অন্যদিকে সাইডিপিডযুক্ত ব্যক্তিদের প্রায়ই শারীরিক অস্বাভাবিকতা থাকে, যেমন চলাচলের সমস্যা বা শারীরিক আকারগত অস্বাভাবিকতা।**

 

**একটি সহজ উপায়ে বলতে গেলে, অটিজম হল যোগাযোগ, সামাজিক মিথস্ক্রিয়া এবং আচরণের সমস্যাগুলির একটি গ্রুপ, যখন সাইডিপিড হল একটি অটিজম স্পেকট্রাম ডিসঅর্ডার যা জ্ঞানীয় প্রতিবন্ধকতা এবং শারীরিক প্রতিবন্ধকতা উভয়কেই অন্তর্ভুক্ত করে।**

এখন সমস্যা অটিজম স্পেকট্রাম ডিসঅর্ডার কি?

অটিজম স্পেকট্রাম ডিসঅর্ডার (ASD) হল একটি বিকাশগত ব্যাধি যা যোগাযোগ, সামাজিক মিথস্ক্রিয়া এবং আচরণে পরিবর্তন ঘটায়। এটি একটি বিস্তৃত পরিসর লক্ষণ এবং উপসর্গগুলিকে অন্তর্ভুক্ত করে যা হালকা থেকে গুরুতর হতে পারে।

 

অটিজমের লক্ষণগুলির মধ্যে রয়েছে:

 

* অন্যদের সাথে যোগাযোগ করতে এবং তাদের সাথে সম্পর্ক গড়ে তুলতে অসুবিধা

* সামাজিক আচার-আচরণ বোঝার এবং মেনে চলার অসুবিধা

* পুনরাবৃত্তিমূলক আচরণ বা আগ্রহ

* সংবেদনশীল উদ্দীপনাগুলির প্রতি অত্যধিক সংবেদনশীলতা বা সংবেদনশীলতা

 

অটিজমের কারণগুলি এখনও পুরোপুরি বোঝা যায় না, তবে গবেষণায় দেখা গেছে যে এটি জিনগত এবং পরিবেশগত কারণগুলির মিশ্রণের কারণে হতে পারে।

 

অটিজমের কোন নির্দিষ্ট চিকিৎসা নেই, তবে লক্ষণভিত্তিক চিকিৎসা উপলব্ধ। এই চিকিৎসাগুলির মধ্যে রয়েছে:

 

* ভাষা এবং যোগাযোগের কৌশলগুলি শেখার জন্য থেরাপি

* সামাজিক দক্ষতা উন্নত করার জন্য থেরাপি

* আচরণগত সমস্যাগুলি পরিচালনা করার জন্য থেরাপি

 

অটিজমযুক্ত ব্যক্তিরা তাদের সম্পূর্ণ সম্ভাবনায় পৌঁছাতে পারে। প্রাথমিক হস্তক্ষেপ এবং সমর্থন গুরুত্বপূর্ণ।

 

**অটিজম স্পেকট্রাম ডিসঅর্ডারের ধরনগুলি হল:**

 

* **অটিজম**

* **আসপারজার সিনড্রোম**

* **পেরভাসিভ ডেভেলপমেন্টাল ডিসঅর্ডার, ননচেফিক**

* **রিট সিনড্রোম**

* **চ্যাডস সিনড্রোম**

 

**অটিজম স্পেকট্রাম ডিসঅর্ডারের লক্ষণগুলি সাধারণত শৈশবের প্রথম বছরগুলিতে দেখা দেয়।**

0 টি ভোট
করেছেন (4,270 পয়েন্ট)

সাইডিপিড হলো একটি শিক্ষামূলক পদ্ধতি যা গুরুতর এবং গভীর প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের জন্য ডিজাইন করা হয়েছে। এই পদ্ধতিতে শিক্ষার্থীদেরকে প্রাকৃতিক পরিবেশ এবং রুটিন এবং কার্যকরী পাঠ্যক্রমের মাধ্যমে শেখানো হয়। সাইডিপিডের মূল লক্ষ্য হল শিক্ষার্থীদেরকে তাদের পরিবার এবং সম্প্রদায়ের মধ্যে সক্রিয় এবং সম্পৃক্ত সদস্য হিসাবে বেড়ে উঠতে সাহায্য করা।

সাইডিপিডের কিছু মূল নীতি হল:

  • শিক্ষার্থীদের প্রাকৃতিক পরিবেশ এবং রুটিনে শেখানো হয়। এটি শিক্ষার্থীদেরকে তাদের চারপাশের বিশ্বের সাথে সংযোগ করতে এবং তাদের দক্ষতাগুলিকে বাস্তব-বিশ্বের পরিস্থিতিতে প্রয়োগ করতে সাহায্য করে।
  • শিক্ষার্থীদেরকে কার্যকরী পাঠ্যক্রমের মাধ্যমে শেখানো হয়। এই পাঠ্যক্রমটি শিক্ষার্থীদেরকে তাদের জীবনে প্রয়োজনীয় দক্ষতা এবং জ্ঞান অর্জন করতে সহায়তা করে।
  • শিক্ষার্থীদেরকে তাদের নিজস্ব গতিতে শেখানো হয়। প্রতিটি শিক্ষার্থীর নিজস্ব শেখার গতি এবং শেখার উপায় রয়েছে।
  • শিক্ষার্থীদেরকে তাদের সম্ভাবনা অনুযায়ী সমর্থন করা হয়। প্রতিটি শিক্ষার্থীর সম্ভাবনা রয়েছে এবং সাইডিপিড তাদের সম্ভাবনাকে সর্বোচ্চ করার জন্য তাদেরকে সমর্থন করে।

সাইডিপিডের কিছু নির্দিষ্ট কৌশল হল:

  • প্রম্পটিং: প্রম্পট হল এমন নির্দেশনা বা সহায়তা যা শিক্ষার্থীদেরকে একটি কাজ সম্পূর্ণ করতে সাহায্য করে। সাইডিপিডে, প্রম্পটগুলিকে একটি ক্রমবর্ধমান স্তরের সহায়তা হিসাবে ব্যবহার করা হয়।
  • অ্যাডাপশন: সাইডিপিডে, শিক্ষামূলক উপকরণ এবং কার্যক্রমগুলি শিক্ষার্থীদের প্রয়োজনের জন্য উপযুক্তভাবে সামঞ্জস্য করা হয়।
  • সামাজিক দক্ষতা প্রশিক্ষণ: সাইডিপিডে, শিক্ষার্থীদেরকে তাদের পরিবার এবং সম্প্রদায়ের সাথে সক্রিয় এবং সম্পৃক্ত সদস্য হিসাবে বেড়ে উঠতে সাহায্য করার জন্য সামাজিক দক্ষতা প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়।

সাইডিপিড একটি কার্যকর শিক্ষামূলক পদ্ধতি যা গুরুতর এবং গভীর প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ সুযোগ প্রদান করে। এই পদ্ধতিটি শিক্ষার্থীদেরকে তাদের সম্ভাবনা অনুযায়ী শিখতে এবং বেড়ে উঠতে সাহায্য করে।

বাংলাদেশে সাইডিপিড এখনও একটি নতুন পদ্ধতি। তবে, এটি ধীরে ধীরে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। বাংলাদেশে বেশ কয়েকটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সাইডিপিড পদ্ধতি ব্যবহার করে গুরুতর এবং গভীর প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের জন্য শিক্ষা প্রদান করছে।

আশা করি উত্তরটি পেয়েছেন। আপনার যদি কোনো ফিরতি প্রশ্ন থাকে তাহলে জিজ্ঞাসা করতে পারেন। যদি আমার জানা থাকে, অবশ্যই উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করবো। ধন্যবাদ!

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

+1 টি ভোট
2 টি উত্তর 38 বার দেখা হয়েছে
0 টি ভোট
2 টি উত্তর 324 বার দেখা হয়েছে
30 অগাস্ট 2023 "প্রাণিবিদ্যা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন তাসবান (160 পয়েন্ট)
0 টি ভোট
1 উত্তর 187 বার দেখা হয়েছে
0 টি ভোট
1 উত্তর 381 বার দেখা হয়েছে
08 জানুয়ারি 2023 "প্রাণিবিদ্যা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Jihadul Amin (6,150 পয়েন্ট)

10,754 টি প্রশ্ন

18,417 টি উত্তর

4,734 টি মন্তব্য

245,788 জন সদস্য

16 জন অনলাইনে রয়েছে
0 জন সদস্য এবং 16 জন গেস্ট অনলাইনে
  1. shuvosheikh

    350 পয়েন্ট

  2. talal

    150 পয়েন্ট

  3. nahidemon

    110 পয়েন্ট

  4. Soyfa chakma

    110 পয়েন্ট

  5. VerenaNeuman

    100 পয়েন্ট

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় উন্মুক্ত বিজ্ঞান প্রশ্নোত্তর সাইট সায়েন্স বী QnA তে আপনাকে স্বাগতম। এখানে যে কেউ প্রশ্ন, উত্তর দিতে পারে। উত্তর গ্রহণের ক্ষেত্রে অবশ্যই একাধিক সোর্স যাচাই করে নিবেন। অনেকগুলো, প্রায় ২০০+ এর উপর অনুত্তরিত প্রশ্ন থাকায় নতুন প্রশ্ন না করার এবং অনুত্তরিত প্রশ্ন গুলোর উত্তর দেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। প্রতিটি উত্তরের জন্য ৪০ পয়েন্ট, যে সবচেয়ে বেশি উত্তর দিবে সে ২০০ পয়েন্ট বোনাস পাবে।


Science-bee-qna

সর্বাপেক্ষা জনপ্রিয় ট্যাগসমূহ

মানুষ পানি ঘুম পদার্থ - জীববিজ্ঞান এইচএসসি-উদ্ভিদবিজ্ঞান এইচএসসি-প্রাণীবিজ্ঞান পৃথিবী চোখ রোগ রাসায়নিক শরীর রক্ত আলো #ask মোবাইল ক্ষতি চুল কী চিকিৎসা পদার্থবিজ্ঞান সূর্য #science প্রযুক্তি স্বাস্থ্য প্রাণী গণিত বৈজ্ঞানিক মাথা মহাকাশ পার্থক্য এইচএসসি-আইসিটি #biology বিজ্ঞান খাওয়া গরম শীতকাল #জানতে কেন ডিম চাঁদ বৃষ্টি কারণ কাজ বিদ্যুৎ রাত রং উপকারিতা শক্তি লাল আগুন সাপ মনোবিজ্ঞান গাছ খাবার সাদা আবিষ্কার দুধ উপায় হাত মশা মাছ ঠাণ্ডা মস্তিষ্ক শব্দ ব্যাথা ভয় বাতাস স্বপ্ন তাপমাত্রা গ্রহ রসায়ন উদ্ভিদ কালো পা কি বিস্তারিত রঙ মন পাখি গ্যাস সমস্যা মেয়ে বৈশিষ্ট্য হলুদ বাচ্চা সময় ব্যথা মৃত্যু চার্জ অক্সিজেন ভাইরাস আকাশ গতি দাঁত আম হরমোন বাংলাদেশ বিড়াল
...