আমাদের প্রতিদিন কয় লিটার পানি পান করা উচিত? - ScienceBee প্রশ্নোত্তর

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির প্রশ্নোত্তর দুনিয়ায় আপনাকে স্বাগতম! প্রশ্ন-উত্তর দিয়ে জিতে নিন পুরস্কার, বিস্তারিত এখানে দেখুন।

+2 টি ভোট
614 বার দেখা হয়েছে
"জ্যোতির্বিজ্ঞান" বিভাগে করেছেন (28,740 পয়েন্ট)

7 উত্তর

0 টি ভোট
করেছেন (135,480 পয়েন্ট)

সুস্থ থাকার জন্য একজন মানুষের প্রতিদিন অন্তত দুই লিটার পানি খাওয়ার প্রয়োজন বলে মনে করেন বেশির ভাগ চিকিৎসক। পানি দিনের যে কোনও সময়েই নির্দ্বিধায় খাওয়া যায়। তাতে উপকারই হয়। বিভিন্ন শারীরবৃত্তীয় কাজের জন্য আমাদের শরীরকে সব সময়ই হাইড্রেটেড রাখা জরুরি।

0 টি ভোট
করেছেন (28,740 পয়েন্ট)
সাধারন কে কতটুকু পানি খাবে সেটা তার শরীরের ওজনের উপর নির্ভর করে। সাথে তার জীবনযাপন এবং পরিবেশও সম্পর্কযুক্ত। তবে অন্তত প্রতিদিন তিন লিটার পানি পান করা উচিত।
0 টি ভোট
করেছেন (3,150 পয়েন্ট)
আমাদের শরীরে প্রায় তিন ভাগের দুই ভাগই পানি। সুস্থভাবে বেঁচে থাকতে তাই পানি পানের বিকল্প নেই। কিন্তু কতটুকু পানি পান করব সারা দিনে? কখন বেশি আর কখন কম পানি পান করা উচিত? পর্যাপ্ত পানি পানের যেমন সুফল আছে, তেমনি অপর্যাপ্ত পানি পানের কারণে পড়তে হয় নানা সমস্যায়। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক এ বি এম আবদুল্লাহ জানিয়েছেন পানি পানের নানা টুকিটাকি।

দিনে কতটুকু পানি পান করবেন
প্রাপ্তবয়স্ক ও কর্মক্ষম নারী-পুরুষের প্রতিদিন দুই থেকে তিন লিটার পানি পান করা প্রয়োজন। তবে দিনে কতটুকু পানি পান করতে হবে, তা নির্ভর করে মূলত আবহাওয়া ও শারীরিক শ্রমের ওপর। শীতকালের চেয়ে গরমকালে শরীরে পানির চাহিদা বেড়ে যায় আবহাওয়ার কারণেই। আর যাঁরা কায়িক পরিশ্রম বেশি করেন, তাঁদের বেশি পানি পান করতে হবে। যারা স্বাভাবিকের তুলনায় বেশি ঘামেন, তাঁদের জন্য একটু বেশি পানি পান করা জরুরি। অনেকে মনে করেন সকালে খালি পেটে অনেক পানি পান করা ভালো। এর সুনির্দিষ্ট বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা নেই। তবে কিছু শারীরিক সমস্যায় এই অভ্যাসে উপকার পাওয়া যেতে পারে। কিন্তু সাধারণভাবে যখনই পানির তৃষ্ণা তৈরি হবে, তখনই পানি পান করে শরীরের ঘাটতি মেটানো উচিত।

পর্যাপ্ত পানি পানের সুফল
পর্যাপ্ত পানি পানে কিডনি, যকৃৎ, হৃৎপিণ্ড ও মস্তিষ্ক ভালো থাকে। শরীরে রক্ত চলাচল স্বাভাবিক থাকে। পানি শরীরের ভেতরের কোষগুলোকে সবল ও স্বাভাবিক রাখতে সহায়তা করে। পানি পানের ঘাটতি দেখা দিলে এই কোষগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হয়। তবে অবশ্যই বিশুদ্ধ পানি পানের বিষয়ে সচেতন থাকতে হবে। কেননা পান করার পানি বিশুদ্ধ না হলে ডায়রিয়া, কলেরা ও টাইফয়েডের মতো পানিবাহিত রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা থাকে। কমপক্ষে আধঘণ্টা ভালো করে ফুটিয়ে তারপর ঠান্ডা করার মধ্য দিয়ে পানি জীবাণুমুক্ত হতে পারে। অথবা সঠিক পদ্ধতিতে ফিল্টার করেও পানি পান করা যেতে পারে। এ ছাড়া বাজার থেকে বোতলজাত পানি কেনার ক্ষেত্রেও সেগুলো দেখে শুনে কেনা উচিত।

অপর্যাপ্ত পানি পানের সমস্যা
পর্যাপ্ত পানি পান না করলে মানবদেহে অনেক সমস্যার সৃষ্টি হয়। পানির ঘাটতি থেকে রক্তচাপ কমে যেতে পারে। এ থেকে শরীরে রক্ত চলাচল কমে আসা এবং কিডনি অকেজো হয়ে পড়ারও আশঙ্কা থাকে।

নারীদের মধ্যে অনেকে অনেক সময় প্রয়োজনের তুলনায় কম পানি পান করেন। বিশেষত যাদের নানা কাজে বাইরে বেরোতে হয় তাঁদের মধ্যে এই প্রবণতা বেশি। এর প্রধান কারণ আমাদের শহর-নগরে পর্যাপ্ত ও ভালো পাবলিক টয়লেটের ব্যবস্থা না থাকা। আর পানি কম পান করায় তাদের ইউরিন ইনফেকশন এবং কিডনির জটিলতা বৃদ্ধি পায়। তাই দিনের বেলায় এই পানির ঘাটতি মেটাতে ঘরে ফিরে বেশি করে পানি পান করা উচিত।
0 টি ভোট
করেছেন (6,040 পয়েন্ট)
কার দিনে কতটুকু পানি প্রয়োজন এইটা নির্ভর করে তার ওজনের  উপর। তবে একজন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষকে দিনে ২ থেকে ৩ লিটার পরিষ্কার পানি পান করা উচিত। আমাদের শরীরের প্রায় ৬৭% পানি, তাই আমাদের প্রচুর পানি পান করা উচিত।
0 টি ভোট
করেছেন (10,050 পয়েন্ট)
আগে বলো হত একজন সুস্থ মানুষের দৈনিক ৬-৭ গ্লাস পানি পান করতে হবে ।কিন্তু এটা ভুল ধারণা ।একজন মানুষের যতটুকু তৃষ্ণা পাবে ততটুকুই পানি পান করা উচিত ।নতুবা তার বিভিন্ন ধরনের সমস্যা হতে পারে ।
0 টি ভোট
করেছেন (3,150 পয়েন্ট)
প্রাপ্তবয়স্ক ও কর্মক্ষম নারী-পুরুষের প্রতিদিন দুই থেকে তিন লিটার পানি পান করা প্রয়োজন। তবে দিনে কতটুকু পানি পান করতে হবে, তা নির্ভর করে মূলত আবহাওয়া ও শারীরিক শ্রমের ওপর। শীতকালের চেয়ে গরমকালে শরীরে পানির চাহিদা বেড়ে যায় আবহাওয়ার কারণেই। আর যাঁরা কায়িক পরিশ্রম বেশি করেন, তাঁদের বেশি পানি পান করতে হবে। যারা স্বাভাবিকের তুলনায় বেশি ঘামেন, তাঁদের জন্য একটু বেশি পানি পান করা জরুরি। অনেকে মনে করেন সকালে খালি পেটে অনেক পানি পান করা ভালো। এর সুনির্দিষ্ট বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা নেই। তবে কিছু শারীরিক সমস্যায় এই অভ্যাসে উপকার পাওয়া যেতে পারে। কিন্তু সাধারণভাবে যখনই পানির তৃষ্ণা তৈরি হবে, তখনই পানি পান করে শরীরের ঘাটতি মেটানো উচিত।
0 টি ভোট
করেছেন (16,190 পয়েন্ট)

সকালে ঘুম থেকে উঠেই এক গ্লাস কুসুম গরম পানি খেলে নাকি অনেক সমস্যার সমাধান মেলে। সুন্দর ত্বকের রহস্যও নাকি এটাই!
ঘুম থেকে উঠে এক গ্লাস কুসুম গরম পানি খা্ওয়া নিয়ে বিভিন্ন মতবাদ রয়েছে। আসলে তা কতটা সত্যি।

 

কত লিটার পানি খাবেন?

আমাদের শরীরের ৭০ শতাংশ পানি। সুস্থ থাকলে একজন মানুষের পানি পানের বিকল্প নেই। তবে এখন প্রশ্ন হলো সুস্থ থাকতে প্রতিদিন কত লিটার পানি খাবেন?
সুস্থ থাকার জন্য একজন মানুষের প্রতিদিন অন্তত দুই লিটার পানি খাওয়ার প্রয়োজন বলে মনে করেন বেশির ভাগ চিকিৎসক। পানি দিনের যে কোনও সময়েই নির্দ্বিধায় খাওয়া যায়। তাতে উপকারই হয়। 

বিভিন্ন শারীরবৃত্তীয় কাজের জন্য আমাদের শরীরকে সব সময়ই হাইড্রেটেড রাখা জরুরি।
তাই সকালে ঘুম থেকে উঠেই যারা পানি পান করেন তাদের ওজন হ্রাস না পেলেও উপকার হয়। কারণ, সারা রাত ঘুমের সময় পানি আমাদের শরীরে অনেকক্ষণ প্রবেশ করে না। ফলে দেহে পানির ঘাটতি ঘটে। ঘুম থেকে উঠেই পানি খেলে সেই ঘাটতি দ্রুত পূরণ হয়।

পেট পরিষ্কার

সকালে ঘুম থেকে উঠে এক গ্লাস কুসুম গরম পানি খেলে পেট পরিষ্কার হয়। খাবার খাওয়ার সময় থেকে পরিপাকের পর সেই খাবারের অবশিষ্ট অংশ মলাশয়ে জমা হওয়া। এই পুরো প্রক্রিয়াটা পেরিস্টলসিস চলনের ফলে ঘটে। 

খাদ্যনালী, পাকস্থলী, ক্ষুদ্রান্ত্র এবং বৃহদন্ত্রেও এই চলন হয়। পেরিস্টলসিসের জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি খাওয়ার প্রয়োজন। এই ক্ষেত্রেও সকালে পানি খাওয়ার আলাদা করে তেমন কোনও ভূমিকা নেই।

দিনের কোনও একটা সময়ে একসঙ্গে অনেকটা পানি না খেয়ে বরং সারাদিন ধরেই সমান তালে পানি খেতে পারেন। শরীরে যেন পানির ঘাটতি কোনও ভাবেই না হয়, সেটা খেয়াল রাখুন।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

+1 টি ভোট
4 টি উত্তর 2,772 বার দেখা হয়েছে
+1 টি ভোট
1 উত্তর 159 বার দেখা হয়েছে
+15 টি ভোট
6 টি উত্তর 820 বার দেখা হয়েছে
+8 টি ভোট
2 টি উত্তর 243 বার দেখা হয়েছে
+1 টি ভোট
1 উত্তর 298 বার দেখা হয়েছে
08 অগাস্ট 2022 "স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Simum (980 পয়েন্ট)

10,709 টি প্রশ্ন

18,306 টি উত্তর

4,726 টি মন্তব্য

235,042 জন সদস্য

68 জন অনলাইনে রয়েছে
3 জন সদস্য এবং 65 জন গেস্ট অনলাইনে
  1. Jihadul Amin

    320 পয়েন্ট

  2. Md Shahadat Hossain

    220 পয়েন্ট

  3. Asniya Ayub Ava

    190 পয়েন্ট

  4. আমি কই

    180 পয়েন্ট

  5. Nahid Jahan Bhuiyan

    160 পয়েন্ট

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় উন্মুক্ত বিজ্ঞান প্রশ্নোত্তর সাইট সায়েন্স বী QnA তে আপনাকে স্বাগতম। এখানে যে কেউ প্রশ্ন, উত্তর দিতে পারে। উত্তর গ্রহণের ক্ষেত্রে অবশ্যই একাধিক সোর্স যাচাই করে নিবেন। অনেকগুলো, প্রায় ২০০+ এর উপর অনুত্তরিত প্রশ্ন থাকায় নতুন প্রশ্ন না করার এবং অনুত্তরিত প্রশ্ন গুলোর উত্তর দেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। প্রতিটি উত্তরের জন্য ৪০ পয়েন্ট, যে সবচেয়ে বেশি উত্তর দিবে সে ২০০ পয়েন্ট বোনাস পাবে।


Science-bee-qna

সর্বাপেক্ষা জনপ্রিয় ট্যাগসমূহ

মানুষ পানি ঘুম পদার্থ - জীববিজ্ঞান এইচএসসি-উদ্ভিদবিজ্ঞান এইচএসসি-প্রাণীবিজ্ঞান পৃথিবী চোখ রোগ রাসায়নিক শরীর রক্ত আলো মোবাইল ক্ষতি চুল কী #ask চিকিৎসা পদার্থবিজ্ঞান সূর্য প্রযুক্তি প্রাণী স্বাস্থ্য বৈজ্ঞানিক মাথা গণিত মহাকাশ পার্থক্য এইচএসসি-আইসিটি বিজ্ঞান #science #biology খাওয়া শীতকাল গরম কেন #জানতে ডিম চাঁদ বৃষ্টি কারণ কাজ বিদ্যুৎ রাত রং উপকারিতা শক্তি লাল আগুন সাপ মনোবিজ্ঞান গাছ খাবার সাদা আবিষ্কার দুধ উপায় হাত মশা মাছ মস্তিষ্ক শব্দ ঠাণ্ডা ব্যাথা ভয় বাতাস গ্রহ স্বপ্ন তাপমাত্রা রসায়ন উদ্ভিদ কালো কি বিস্তারিত রঙ পা পাখি গ্যাস মন সমস্যা মেয়ে বৈশিষ্ট্য হলুদ বাচ্চা সময় ব্যথা মৃত্যু চার্জ অক্সিজেন ভাইরাস আকাশ গতি দাঁত আম বিড়াল কান্না নাক
...