মৌমাছিরা কেন মধু বানায় বা সংগ্রহ করে? - ScienceBee প্রশ্নোত্তর

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির প্রশ্নোত্তর দুনিয়ায় আপনাকে স্বাগতম! প্রশ্ন-উত্তর দিয়ে জিতে নিন পুরস্কার, বিস্তারিত এখানে দেখুন।

+4 টি ভোট
1,026 বার দেখা হয়েছে
"প্রাণিবিদ্যা" বিভাগে করেছেন (110,330 পয়েন্ট)

6 উত্তর

+2 টি ভোট
করেছেন (110,330 পয়েন্ট)
নির্বাচিত করেছেন
 
সর্বোত্তম উত্তর
Ayesha Akhter-

মৌমাছি মধু তৈরি করে, এটা সকলেই জানে। কিন্তু কারো কি জানতে ইচ্ছে হয়েছে কেন তারা এই মধু বানায়? সে উত্তর আমরা জানবো। তার আগে মৌমাছি সম্বন্ধে সামান্য আলোচনা করা দরকার।

প্রতিটি মৌমাছি তাদের সারা জীবনে মাত্র ১/১২ টেবিল চামচ মধু তৈরি করতে পারে। মধু পুষ্টিগুণ সস্মৃদ্ধ ও শক্তিবর্ধক তরল উপাদান। প্রিয় খাবার ও ঔষধিগুণ সম্পন্ন মধুকে ভালবাসে অনেকে। তারা নিয়মিত খেয়ে থাকে মধু। বর্তমানে পৃথিবীতে আফ্রিকানাইজড, বাকফ্যাস্ট, ক্যারনিওল্যান, কাউক্যাসিওন, কর্ডোভান, ইটানিলয়ান এবং রাশিয়ান নামে সাতটি প্রধান প্রজাতি সহ মোট ৪০টি উপপ্রজাতির মৌমাছি আছে।

 

অন্যদিকে, বাম্বল-বি ভ্রমর মধু বানায় না। তারা শুধু ফুলের মধু (নেকটার) সংগ্রহ করে থাকে। তাদের কলোনিগুলো খুব অল্প সময়ের জন্য তৈরি করে, ফলে তারা বেশিদিন মধু সংগ্রহ করতে পারে না। মেক্সিকো, মধ্য আমেরিকা এবং উত্তর আমেরিকায় মেলপিনা নামে হুল ছাড়া এক প্রজাতির মৌমাছি দেখা যায়। এরা বিভিন্ন প্রকৃতির মধু বানায়। যদিও এই মধুর পরিমাণটা সচারচর পাওয়া মৌমাছির মধুর তুলনায় অনেক কম।

 

মৌমাছি কেন মধু বানায়?

মৌমাছির খাবার হলো মধু এবং পোলেন। নিজেদের খাওয়ার জন্য তারা অতিরিক্ত মধু সংরক্ষণ করে রাখে। মধুতে কার্বোহাইড্রেট বেশি থাকে এবং পোলেনে বেশি থাকে প্রোটিন বা আমিষ। শীতকালে ফুলে মধু কম থাকে। গ্রীষ্মে মধু বানায় শীতের সময় দেহের চাহিদা পূরণের জন্য। কারণ শীতে মধু তেমন পাওয়া যায় না। খুব ঠাণ্ডার সময় তাদের সঞ্চিত মধু খেয়ে জীবন ধারণ করে। শীতে ফুল বেশি থাকলেও, অতিরিক্ত ঠান্ডার কারণে তারা উড়ে গিয়ে গিয়ে মধু সংগ্রহ করতে পারে না। তাই তাদের পুরো কলোনির জীবন ধারণের জন্য অনেক মধুর প্রয়োজন পড়ে।

 

- Daily Bangladesh
+2 টি ভোট
করেছেন (54,270 পয়েন্ট)
মৌমাছিদের খাবার হলো মধু এবং পোলেন। নিজেদের খাওয়ার জন্য তারা অতিরিক্ত মধু সংরক্ষণ করে রাখে। মধুতে কার্বোহাইড্রেট বেশি থাকে এবং পোলেনে (যা পাওয়া যায় ফুলের রেণুতে) বেশি থাকে প্রোটিন বা আমিষ। শীতকালে ফুলে মধু কম থাকে। তাই গ্রীষ্মে মধু বানায় শীতের সময় দেহের চাহিদা পূরণের জন্য। খুব ঠান্ডার সময় তাদের সঞ্চিত মধু খেয়ে জীবন ধারণ করে।

রানি মৌমাছি অন্যদের তুলনায় অনেক বেশি মধু খেয়ে থাকে। প্রতিটি মৌচাকে অন্তত ১০ হাজার মৌমাছি থাকে, যার ফলে তাদের বেঁচে থাকার জন্য প্রচুর মধুর প্রয়োজন হয়। তাই তারা মধু সংগ্রহ করে এবং জমা রাখে।

মধুতে প্রচুর গ্লুকোজ থাকে, যা মৌমাছির শক্তি জোগায় ও সুস্থ্য রাখে। বিরূপ প্রকৃতিতে মৌমাছিদের উড়তে বেশি শক্তি খরচ হয়। শীতে পরিবেশের তাপমাত্রার সঙ্গে এদের দেহের তাপমাত্রার সামঞ্জস্য বজায় রাখতে বেশি শক্তি গ্রহণ করে তাপ উৎপন্ন করতে হয়। মৌচাকের মধ্যে তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণে অন্যতম ভূমিকা রাখে মধু।

Source: dailyjagaran
0 টি ভোট
করেছেন (9,000 পয়েন্ট)
বিশ্বজুড়ে জনপ্রিয় খাদ্য মধু। মৌয়ালরা মৌমাছির চাক ভেঙে সংগ্রহ করেন বিশুদ্ধ মধু্। এই মধুর রয়েছে নানা উপকারিতা। কিন্তু মৌমাছি কেন মধু সংগ্রহ করে? ফুলে ফুলে ঘুরে কেন তার এত মধু আহরণের চেষ্টা? চলুন জেনে নেওয়া যাক তাদের মধু আহরণের কারণ।

 

মৌমাছিদের খাবার হলো মধু এবং পোলেন। নিজেদের খাওয়ার জন্য তারা অতিরিক্ত মধু সংরক্ষণ করে রাখে। মধুতে কার্বোহাইড্রেট বেশি থাকে এবং পোলেনে (যা পাওয়া যায় ফুলের রেণুতে) বেশি থাকে প্রোটিন বা আমিষ। শীতকালে ফুলে মধু কম থাকে। তাই গ্রীষ্মে মধু বানায় শীতের সময় দেহের চাহিদা পূরণের জন্য। খুব ঠান্ডার সময় তাদের সঞ্চিত মধু খেয়ে জীবন ধারণ করে।

 

রানি মৌমাছি অন্যদের তুলনায় অনেক বেশি মধু খেয়ে থাকে। প্রতিটি মৌচাকে অন্তত ১০ হাজার মৌমাছি থাকে, যার ফলে তাদের বেঁচে থাকার জন্য প্রচুর মধুর প্রয়োজন হয়। তাই তারা মধু সংগ্রহ করে এবং জমা রাখে। মধুতে প্রচুর গ্লুকোজ থাকে, যা মৌমাছির শক্তি জোগায় ও সুস্থ্য রাখে। বিরূপ প্রকৃতিতে মৌমাছিদের উড়তে বেশি শক্তি খরচ হয়। শীতে পরিবেশের তাপমাত্রার সঙ্গে এদের দেহের তাপমাত্রার সামঞ্জস্য বজায় রাখতে বেশি শক্তি গ্রহণ করে তাপ উৎপন্ন করতে হয়। মৌচাকের মধ্যে তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণে অন্যতম ভূমিকা রাখে মধু।
0 টি ভোট
করেছেন (135,480 পয়েন্ট)
মৌমাছির খাবার হলো মধু এবং পোলেন। নিজেদের খাওয়ার জন্য তারা অতিরিক্ত মধু সংরক্ষণ করে রাখে। মধুতে কার্বোহাইড্রেট বেশি থাকে এবং পোলেনে বেশি থাকে প্রোটিন বা আমিষ। শীতকালে ফুলে মধু কম থাকে। গ্রীষ্মে মধু বানায় শীতের সময় দেহের চাহিদা পূরণের জন্য। কারণ শীতে মধু তেমন পাওয়া যায় না। খুব ঠাণ্ডার সময় তাদের সঞ্চিত মধু খেয়ে জীবন ধারণ করে। শীতে ফুল বেশি থাকলেও, অতিরিক্ত ঠান্ডার কারণে তারা উড়ে গিয়ে গিয়ে মধু সংগ্রহ করতে পারে না। তাই তাদের পুরো কলোনির জীবন ধারণের জন্য অনেক মধুর প্রয়োজন পড়ে।
0 টি ভোট
করেছেন (9,610 পয়েন্ট)
মৌমাছির খাবার হলো মধু। তারা খাদ্য সংরক্ষণের জন্য মধু বানায় বা সংগ্রহ করে।
0 টি ভোট
করেছেন (33,350 পয়েন্ট)
মৌমাছির খাবার হলো মধু এবং পোলেন। নিজেদের খাওয়ার জন্য তারা অতিরিক্ত মধু সংরক্ষণ করে রাখে। মধুতে কার্বোহাইড্রেট বেশি থাকে এবং পোলেনে বেশি থাকে প্রোটিন বা আমিষ। শীতকালে ফুলে মধু কম থাকে। গ্রীষ্মে মধু বানায় শীতের সময় দেহের চাহিদা পূরণের জন্য। কারণ শীতে মধু তেমন পাওয়া যায় না। খুব ঠাণ্ডার সময় তাদের সঞ্চিত মধু খেয়ে জীবন ধারণ করে। শীতে ফুল বেশি থাকলেও, অতিরিক্ত ঠান্ডার কারণে তারা উড়ে গিয়ে গিয়ে মধু সংগ্রহ করতে পারে না। তাই তাদের পুরো কলোনির জীবন ধারণের জন্য অনেক মধুর প্রয়োজন পড়ে।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

+2 টি ভোট
4 টি উত্তর 367 বার দেখা হয়েছে
23 জুন 2021 "জীববিজ্ঞান" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Sabbir Ahmed Sajid (8,670 পয়েন্ট)
+8 টি ভোট
2 টি উত্তর 415 বার দেখা হয়েছে
+11 টি ভোট
4 টি উত্তর 274 বার দেখা হয়েছে
20 জানুয়ারি 2021 "জীববিজ্ঞান" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Abu Reza (10,660 পয়েন্ট)
+2 টি ভোট
1 উত্তর 179 বার দেখা হয়েছে
28 ফেব্রুয়ারি 2022 "তত্ত্ব ও গবেষণা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Rayhan Shikder (9,310 পয়েন্ট)
0 টি ভোট
1 উত্তর 281 বার দেখা হয়েছে
19 ফেব্রুয়ারি 2022 "বিবিধ" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Rayhan Shikder (9,310 পয়েন্ট)

10,750 টি প্রশ্ন

18,410 টি উত্তর

4,733 টি মন্তব্য

244,594 জন সদস্য

33 জন অনলাইনে রয়েছে
0 জন সদস্য এবং 33 জন গেস্ট অনলাইনে
  1. MIS

    1390 পয়েন্ট

  2. shuvosheikh

    470 পয়েন্ট

  3. তানভীর রহমান ইমন

    160 পয়েন্ট

  4. unfortunately

    140 পয়েন্ট

  5. Muhammad_Alif

    130 পয়েন্ট

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় উন্মুক্ত বিজ্ঞান প্রশ্নোত্তর সাইট সায়েন্স বী QnA তে আপনাকে স্বাগতম। এখানে যে কেউ প্রশ্ন, উত্তর দিতে পারে। উত্তর গ্রহণের ক্ষেত্রে অবশ্যই একাধিক সোর্স যাচাই করে নিবেন। অনেকগুলো, প্রায় ২০০+ এর উপর অনুত্তরিত প্রশ্ন থাকায় নতুন প্রশ্ন না করার এবং অনুত্তরিত প্রশ্ন গুলোর উত্তর দেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। প্রতিটি উত্তরের জন্য ৪০ পয়েন্ট, যে সবচেয়ে বেশি উত্তর দিবে সে ২০০ পয়েন্ট বোনাস পাবে।


Science-bee-qna

সর্বাপেক্ষা জনপ্রিয় ট্যাগসমূহ

মানুষ পানি ঘুম পদার্থ - জীববিজ্ঞান এইচএসসি-উদ্ভিদবিজ্ঞান এইচএসসি-প্রাণীবিজ্ঞান পৃথিবী চোখ রোগ রাসায়নিক শরীর রক্ত আলো #ask মোবাইল ক্ষতি চুল কী চিকিৎসা পদার্থবিজ্ঞান সূর্য #science প্রযুক্তি স্বাস্থ্য প্রাণী বৈজ্ঞানিক মাথা গণিত মহাকাশ পার্থক্য এইচএসসি-আইসিটি #biology বিজ্ঞান খাওয়া গরম শীতকাল #জানতে কেন ডিম চাঁদ বৃষ্টি কারণ কাজ বিদ্যুৎ রাত রং উপকারিতা শক্তি লাল আগুন সাপ মনোবিজ্ঞান গাছ খাবার সাদা আবিষ্কার দুধ উপায় হাত মশা মাছ ঠাণ্ডা মস্তিষ্ক শব্দ ব্যাথা ভয় বাতাস স্বপ্ন তাপমাত্রা গ্রহ রসায়ন উদ্ভিদ কালো পা কি বিস্তারিত রঙ মন পাখি গ্যাস সমস্যা মেয়ে বৈশিষ্ট্য হলুদ বাচ্চা সময় ব্যথা মৃত্যু চার্জ অক্সিজেন ভাইরাস আকাশ গতি দাঁত আম হরমোন বাংলাদেশ বিড়াল
...