বমি কেন হয়? বমি আসার উপক্রম হলে তৎক্ষণাৎ প্রতিরোধের উপায় কি ? - ScienceBee প্রশ্নোত্তর

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির প্রশ্নোত্তর দুনিয়ায় আপনাকে স্বাগতম! প্রশ্ন-উত্তর দিয়ে জিতে নিন পুরস্কার, বিস্তারিত এখানে দেখুন।

+9 টি ভোট
635 বার দেখা হয়েছে
"স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে করেছেন (64,660 পয়েন্ট)

3 উত্তর

+1 টি ভোট
করেছেন (230 পয়েন্ট)
সম্পাদিত করেছেন

বমি আসার কারণগুলো -

 

১)গতি অসুস্থতা বা সামুদ্রিক অসুস্থতা
২)গর্ভাবস্থার প্রথম পর্যায়ে (সমস্ত গর্ভাবস্থার প্রায় ৫০%-৯০% ক্ষেত্রে বমি বমি ভাব দেখা দেয়; ২৫% -৫৫% এ বমি বমিভাব হয়)
৩)ওষুধ-প্ররোচিত বমি বমিভাব
৪)তীব্র ব্যথা
৫)মানসিক চাপ (যেমন ভয়)
৬)গলব্লাডার রোগ
৭)খাদ্যে বিষক্রিয়া
৮)সংক্রমণ (যেমন "পাকস্থলীর ফ্লু")
৯)অতিরিক্ত খাওয়া
১০)নির্দিষ্ট গন্ধ বা গন্ধের একটি প্রতিক্রিয়া
১১)হার্ট অ্যাটাক
১২) মস্তিষ্কের আঘাত
১৩)ব্রেইন টিউমার
১৪)আলসার
১৫)ক্যান্সারের কিছু গঠন
১৬)বুলিমিয়া বা অন্যান্য মানসিক অসুস্থতা
১৭)গ্যাস্ট্রোপারেসিস বা ধীরে ধীরে পাকস্থলীর  খালি হওয়া (এমন একটি অবস্থা যা ডায়াবেটিসে আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে দেখা যায়)
১৮)বিষক্রিয়া বা অতিরিক্ত পরিমাণে অ্যালকোহল খাওয়া
১৯)অন্ত্র বিঘ্ন
২০)অ্যাপেনডিসাইটিস। (সায়েন্স বি)

 

বমি আসার উপক্রম হলে যা করণীয় -

যখনই বমি ভাব দেখবেন তখনি মুখে এক টুকরা লবঙ্গ রেখে দিন। ধীরে ধীরে চিবুতে থাকুন দেখবেন আপনার মুখ থেকে বমিভাব চলে গিয়েছে।বমি ভাব দূর করতে সবচেয়ে কার্যকরী ভেষজ ওষুধ আদা। আদা কুচি করে কেটে মুখে নিয়ে চিবুতে পারেন। এতে করে আপনার বমি ভাবটি দূর হয়ে যাবে। যারা আদার ঝাঁজ সহ্য করতে পারেন না, তারা একটু গরমপানিতে আদা সিদ্ধ রসটি মুখে নিয়ে কুলি করলে মুখ থেকে বমির বিচ্ছিরি গন্ধও দূর হয়ে যাবে।পুদিনাপাতা বমিভাব দূর করতে দারুন কার্যকর। পুদিনার রস গ্যাস্ট্রিকজনিত বমিভাব দূর করতে বেশি কার্যকরী। তাই গ্যাস্ট্রিকজনিত বমিভাবে পুদিনা পাতা মুখে দিয়ে চিবুতে থাকুন।টক জাতীয় খাবারের ফলে শরীরের বমিভাব দূর হয়। লেবুর রসে রয়েছে সাইট্রিক এসিড যা বমিভাব দূর করতে বেশ কার্যকরী। কিন্তু গ্যাস্ট্রিকজনিত বমির ভাব হলে লেবু না খাওয়াই ভালো। তাছাড়া বমি ভাব হলে লেবুপাতার গন্ধ উপকারে আসতে পারে। কারণ লেবুর পাতা শুকলে বমি বমি ভাব দূর হয়।অনেকেই দারুচিনি চিবুতে পছন্দ করেন। দারুচিনি ভারী খাবারের পর খেলে হজমে খুব সাহায্য করে। তাই হজমের সমস্যাজনিত কারণে বমিভাব হলে খেতে পারেন এক টুকরা দারুচিনি।

0 টি ভোট
করেছেন (140,740 পয়েন্ট)
সাধারণত অনেকগুলো কারণে বমি হয়ে থাকে। যেমন ধরো, কেউ ভীষণ অসুস্থ, সেই অসুখের জন্য বমি হতে পারে। আবার বিষাক্ত কিছু খেলেও বমি হতে পারে। বাজে গন্ধ বা বাজে স্বাদের খাবারের কারণেও বমি হতে পারে। হতে পারে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যার কারণেও। আবার কোনো কারণে তোমার খাদ্যনালী যদি বন্ধ হয়ে যায়, তখন তো খাবার তোমার গলা দিয়ে নামতেই পারবে না। কাজেই সেটা বমি হয়ে বের হয়ে আসবে। আবার তুমি অনেক বেশি পরিশ্রম করলে, সেই অতিরিক্ত পরিশ্রমের সাইড এফেক্ট হিসেবেও বমি হতে পারে। আবার মোশন সিকনেসের কারণেও বমি হতে পারে।

এখন কথা হলো, বমি হওয়াটা ভাল না খারাপ? সাধারণত, আমরা ধরেই নেই, বমি হওয়াটা ভাল না। বমি হওয়া অসুস্থতার লক্ষণ। কথাটা কিন্তু পুরোপুরি ঠিকও না। বমি হওয়াটা অনেক সময় ভালোও বটে। সাধারণত বমি হয় তখনই, যখন তুমি বিষাক্ত বা শরীরের জন্য ক্ষতিকর কোনো কিছু খাও বা পান কর। এটা তোমার শরীরেরই নিরাপত্তামূলক একটি প্রক্রিয়া/ প্রতিরোধের হাতিয়ার। আর তাই তোমাকে বিষাক্ত কিছু খাইয়ে দিলে, তোমার শরীর যখনই তা টের পাবে, বমি করে দিবে।

তবে অসুস্থ হয়ে বমি করাটা কিন্তু মোটেও ভাল কথা না। তবে এটা ঠিক, বমি করার পর বেশ একটু ভালো লাগে। তবে বেশি বমি করলে কিন্তু ভীষণ সমস্যা। তখন কিন্তু তোমার শরীরে পানিশূণ্যতাও দেখা দিতে পারে। ফলে তোমার শরীর আরো দুর্বল হয়ে পড়বে। এছাড়াও বমি করার কারণে আরো কিছু সমস্যাও দেখা দিতে পারে।
0 টি ভোট
করেছেন (28,780 পয়েন্ট)
বমি ভাব দেখা দিলে এক টুকরো আদা নিয়ে চিবুতে থাকুন। ২. লেবুর রসে থাকা অ্যাসিড বমি ভাব কমায়। এক গ্লাস হালকা গরম পানিতে লেবুর রস, এক চিমটি লবণ মিশিয়ে খেলে বমি ভাব দূর হবে।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

+1 টি ভোট
1 উত্তর 47 বার দেখা হয়েছে
+1 টি ভোট
3 টি উত্তর 215 বার দেখা হয়েছে
+8 টি ভোট
3 টি উত্তর 148 বার দেখা হয়েছে
+11 টি ভোট
2 টি উত্তর 1,216 বার দেখা হয়েছে
+1 টি ভোট
1 উত্তর 64 বার দেখা হয়েছে

9,617 টি প্রশ্ন

16,064 টি উত্তর

4,576 টি মন্তব্য

130,205 জন সদস্য

75 জন অনলাইনে রয়েছে
10 জন সদস্য এবং 65 জন গেস্ট অনলাইনে
  1. Msknirob

    6610 পয়েন্ট

  2. Md. Taseen Alam

    6050 পয়েন্ট

  3. Mohammed Rayhan

    2050 পয়েন্ট

  4. Jihadul Amin

    1120 পয়েন্ট

  5. shafah555

    860 পয়েন্ট

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় উন্মুক্ত বিজ্ঞান প্রশ্নোত্তর সাইট সায়েন্স বী QnA তে আপনাকে স্বাগতম। এখানে যে কেউ প্রশ্ন, উত্তর দিতে পারে। উত্তর গ্রহণের ক্ষেত্রে অবশ্যই একাধিক সোর্স যাচাই করে নিবেন। অনেকগুলো, প্রায় ২০০+ এর উপর অনুত্তরিত প্রশ্ন থাকায় নতুন প্রশ্ন না করার এবং অনুত্তরিত প্রশ্ন গুলোর উত্তর দেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। প্রতিটি উত্তরের জন্য ৪০ পয়েন্ট, যে সবচেয়ে বেশি উত্তর দিবে সে ২০০ পয়েন্ট বোনাস পাবে।


Science-bee-qna

সর্বাপেক্ষা জনপ্রিয় ট্যাগসমূহ

মানুষ পানি ঘুম এইচএসসি-উদ্ভিদবিজ্ঞান এইচএসসি-প্রাণীবিজ্ঞান পৃথিবী জীববিজ্ঞান রোগ চোখ - পদার্থ শরীর রক্ত আলো কী ক্ষতি মোবাইল চিকিৎসা চুল এইচএসসি-আইসিটি মহাকাশ পদার্থবিজ্ঞান বৈজ্ঞানিক মাথা সূর্য স্বাস্থ্য পার্থক্য প্রাণী প্রযুক্তি রাসায়নিক গণিত খাওয়া কেন ডিম বিজ্ঞান গরম কারণ #biology বৃষ্টি #ask চাঁদ #জানতে রং শীতকাল উপকারিতা কাজ বিদ্যুৎ আগুন সাদা লাল রাত সাপ উপায় শক্তি মনোবিজ্ঞান দুধ গাছ হাত ব্যাথা ভয় আবিষ্কার খাবার মশা মাছ শব্দ #science গ্রহ ঠাণ্ডা কি মস্তিষ্ক কালো পা বৈশিষ্ট্য স্বপ্ন সমস্যা উদ্ভিদ বাতাস রঙ হলুদ মন রসায়ন মেয়ে ভাইরাস আম বিস্তারিত পাতা আকাশ তাপমাত্রা ব্যথা ঔষধ পাখি মৃত্যু চার্জ দাঁত গ্যাস কান্না নাক হরমোন বিড়াল বাচ্চা
...