শরীরে জোঁক ধরলে কোন সমস্যা হয়? - ScienceBee প্রশ্নোত্তর

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির প্রশ্নোত্তর দুনিয়ায় আপনাকে স্বাগতম! প্রশ্ন-উত্তর দিয়ে জিতে নিন পুরস্কার, বিস্তারিত এখানে দেখুন।

+5 টি ভোট
3,194 বার দেখা হয়েছে
"স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে করেছেন (122,970 পয়েন্ট)

2 উত্তর

+2 টি ভোট
করেছেন (122,970 পয়েন্ট)
 
সর্বোত্তম উত্তর
Nishat Tasnim-

জোঁকের কামড়ের উল্লেখযোগ্য বিষয় হলো- আমাদের শরীরে বিশেষ করে দুই পায়ের কোনো একটি স্থানে সে যখন রক্ত খায়, শুরুতে অথবা রক্ত খাওয়ার সময় তা একটুও টের পাওয়া যায় না।

রক্ত চুষে যখন সে নিজে পড়ে যায় তখন সেই ক্ষত জায়গাটিতে চুলকানি ওঠে। রক্ত খেয়ে ফুলে উঠলে জোঁক আপনাআপনিই খসে পড়ে। চামড়ায় লেগে থাকা অবস্থায় চোখে পড়লে জোঁকের উপর লবণ কিংবা ভিনিগার দিলে দ্রুত খসে পড়বে। তবে জোর করে টেনে খুলে আনার চেষ্টা করা উচিত নয়। কারণ এতে ত্বকে মারাত্বক প্রদাহ দেখা দিতে পারে।

জোঁক খসে পড়ার পর কামড়ানো স্থানটি সাবান ও পানি দিয়ে ভালোভাবে পরিষ্কার করে জীবাণুনাশক ক্রিম মাখাতে হবে।
+1 টি ভোট
করেছেন (122,970 পয়েন্ট)
হাসান আহমাদ-

"জোঁক " রক্তচোষা ! দেখলেই গা ঘিন ঘিন করে আর যদি একবার শরীরে কামড় বসায় তবে তো বিনে পয়সায় নৃত্যের মহড়া শুরু হয়। যে কেউ এই প্রাণীটি থেকে দূরে থাকে নিজেকে বাঁচিয়ে চলে। রক্তচোষার অপবাদ হয়ত তার আছে কিন্তু এই রক্তচুষে সে মানবদেহের বিশাল উপকার করে।

আশ্চর্য গঠন এই রক্তচোষা জোঁকের দেহের। এর আছে 32 টি ব্রেইন অর্থাৎ একটি ব্রেইনই 32 টি গ্যাংলিয়া দ্বারা তৈরি যা একটি হয়েও 32 টি ব্রেইনের সমান কাজ করে। আছে তিনটি মুখ অর্থাৎ তিন জোড়া ছোয়াল। প্রতিজোড়া ছোয়ালে 100 টি দাঁত করে সরু 300 টি দাঁত। পাঁচ জোড়া অর্থাৎ 10 টি চোখ। এই আশ্চর্য গঠনের শরীর নিয়ে জোঁক ঘুরে বেড়ায় ডাঙ্গায় কিংবা পানিতে শুধু রক্তের খোঁজে।

থেরাপি চিকিৎসায় জোঁকের ব্যবহার সেই আদিকাল থেকেই বিশ্বনন্দিত। ইংল্যান্ডের মত দেশে রানী ভিক্টোরিয়ার যুগে প্রতি বছর প্রায় চার কোটি বিশ লাখ জোঁকের ব্যবহার হতো চিকিৎসা খাতে আর এই জোঁকের যোগান দিত ওয়েলস নামক প্রতিষ্ঠান। তাদের আয় হতো বছরে প্রায় দশ লাখ পাউন্ড শুধু জোঁক সরবরাহ করে। তখন কৃষির মত জোঁক চাষ হতো কিন্তু গত শতকে চিকিৎসা ক্ষেত্রে জোঁকের ব্যবহার নিয়ে প্রশ্ন উঠায় এর ব্যবহার অনেক কমে যায়। এই শতকে জোঁক নিয়ে গবেষণা করে এর বহুবিধ উপকার প্রমাণিত হওয়ায় আবার ও চিকিৎসা বিজ্ঞান জোঁকের প্রতি আগ্রহ দেখায়। তাই এর ব্যবহার অনেক বেড়ে গেছে। এখন ইংল্যান্ড জোঁক চাষ করে ইউরোপের অন্য দেশগুলোতে সরবরাহ করে। এখন ইংল্যান্ডেই প্রতি বছর ষাট হাজার জোঁক লাগে। আর জোঁক সরবরাহের এক নন্বর প্রতিষ্ঠান সোয়ানসি'জ বায়োফার্ম।

জোঁক নামের ঘৃণ্য প্রাণীটি থেরাপি চিকিৎসায় অনন্য ভূমিকা পালন করে। হৃদযন্ত্রে রক্তজমাট পেশীসংকোচন বাত শরীর ব্যথা কাটাস্হান জোড়া লাগানো বিভিন্ন জটিল রোগে থেরাপি চিকিৎসকগন জোঁকেরব্যবহার করেন। জোঁকের কামড় আক্রান্ত স্থানে বসালে তাদের মুখের লালার সাথে এক বিশেষ পদার্থ মানুষের রক্তের সাথে মিশে যায় আর জমাট বাঁধা রক্তের সাথে মিশে তার গাঢ়ত্ব কমিয়ে পাতলা করে স্বাভাবিক চলাচলের সহায়তা করে।

ঘৃণা ভরে আমরা তাকে দুরে সরালেও সে আমাদের কল্যাণেই নিবেদিত। সৃষ্টি কর্তার সমস্ত সৃষ্টিই মানব কল্যানে, শুধু মানুষের উপকারে তা অনেকই বুঝতে পারে না।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

+12 টি ভোট
2 টি উত্তর 682 বার দেখা হয়েছে
+14 টি ভোট
1 উত্তর 508 বার দেখা হয়েছে
15 সেপ্টেম্বর 2020 "প্রাণিবিদ্যা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন বিজ্ঞানের পোকা ৩ (25,690 পয়েন্ট)
+8 টি ভোট
1 উত্তর 2,966 বার দেখা হয়েছে
+8 টি ভোট
2 টি উত্তর 535 বার দেখা হয়েছে
+3 টি ভোট
3 টি উত্তর 88 বার দেখা হয়েছে

9,621 টি প্রশ্ন

16,067 টি উত্তর

4,576 টি মন্তব্য

130,728 জন সদস্য

63 জন অনলাইনে রয়েছে
11 জন সদস্য এবং 52 জন গেস্ট অনলাইনে
  1. Msknirob

    6710 পয়েন্ট

  2. Md. Taseen Alam

    6050 পয়েন্ট

  3. Mohammed Rayhan

    2050 পয়েন্ট

  4. Jihadul Amin

    1150 পয়েন্ট

  5. shafah555

    860 পয়েন্ট

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় উন্মুক্ত বিজ্ঞান প্রশ্নোত্তর সাইট সায়েন্স বী QnA তে আপনাকে স্বাগতম। এখানে যে কেউ প্রশ্ন, উত্তর দিতে পারে। উত্তর গ্রহণের ক্ষেত্রে অবশ্যই একাধিক সোর্স যাচাই করে নিবেন। অনেকগুলো, প্রায় ২০০+ এর উপর অনুত্তরিত প্রশ্ন থাকায় নতুন প্রশ্ন না করার এবং অনুত্তরিত প্রশ্ন গুলোর উত্তর দেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। প্রতিটি উত্তরের জন্য ৪০ পয়েন্ট, যে সবচেয়ে বেশি উত্তর দিবে সে ২০০ পয়েন্ট বোনাস পাবে।


Science-bee-qna

সর্বাপেক্ষা জনপ্রিয় ট্যাগসমূহ

মানুষ পানি ঘুম এইচএসসি-উদ্ভিদবিজ্ঞান এইচএসসি-প্রাণীবিজ্ঞান পৃথিবী জীববিজ্ঞান রোগ চোখ - পদার্থ শরীর রক্ত আলো কী মোবাইল ক্ষতি চিকিৎসা চুল এইচএসসি-আইসিটি মহাকাশ পদার্থবিজ্ঞান বৈজ্ঞানিক মাথা সূর্য স্বাস্থ্য পার্থক্য প্রাণী প্রযুক্তি রাসায়নিক গণিত খাওয়া কেন ডিম বিজ্ঞান গরম কারণ #biology বৃষ্টি #ask রং চাঁদ #জানতে শীতকাল উপকারিতা কাজ বিদ্যুৎ আগুন সাদা লাল রাত সাপ উপায় শক্তি মনোবিজ্ঞান দুধ গাছ হাত ব্যাথা ভয় আবিষ্কার খাবার মশা শব্দ মাছ #science গ্রহ ঠাণ্ডা কি মস্তিষ্ক কালো পা বৈশিষ্ট্য স্বপ্ন সমস্যা উদ্ভিদ বাতাস রঙ হলুদ মন রসায়ন মেয়ে ভাইরাস আম বিস্তারিত পাতা আকাশ তাপমাত্রা ব্যথা ঔষধ পাখি মৃত্যু চার্জ দাঁত গ্যাস কান্না নাক হরমোন বিড়াল বাচ্চা
...