অতিরিক্ত হাত পা ঘামার বিষয়ে বিজ্ঞান কি বলে?? - ScienceBee প্রশ্নোত্তর

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির প্রশ্নোত্তর দুনিয়ায় আপনাকে স্বাগতম! প্রশ্ন-উত্তর দিয়ে জিতে নিন পুরস্কার, বিস্তারিত এখানে দেখুন।

+17 টি ভোট
21,188 বার দেখা হয়েছে
"জীববিজ্ঞান" বিভাগে করেছেন (10,910 পয়েন্ট)

6 উত্তর

+2 টি ভোট
করেছেন (141,820 পয়েন্ট)
নির্বাচিত করেছেন
 
সর্বোত্তম উত্তর

আমাদের অনেকেরই বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সময়ে হাত-পা ঘেমে যাওয়ার সমস্যা রয়েছে। হয়তো এমনও হয়েছে, আপনাকে ভাইভা বোর্ডে কিছু লিখতে বলা হয়েছে কিন্তু হাত এতোটাই ঘেমে আছে কলমই ধরতে পারছেন না! ব্যাপারটা অনেক বেশি বিরক্তিকর ও পীড়াদায়ক।

চলুন জেনে নিই বিস্তারিত-

Hyperhidrosis শুধু হাতের তালু ঘেমে যাওয়া নয়, শরীরের বিভিন্ন অংশও (যেমন-মুখ, পা, আন্ডারআর্মস,ঘাড় ইত্যাদি) এর ফলে অস্বাভাবিক ভাবে ঘামতে থাকে। অস্বাভাবিক এই কারণে কোনো পরিশ্রম বা তাপের সংস্পর্শে না আসার ফলেও এটা হয়। এমনকি প্রচন্ড শীতেও হয় এ সমস্যা। এর পেছনে প্রধান কারণ মানসিক অস্থিরতা বা দুশ্চিন্তা। এই সমস্যাকে Polyhidrosis, sudorrhea ও বলা হয়।

কেনো হয় এই সমস্যা?

বিজ্ঞানীরা মানসিক চাপ কেই প্রধান কারণ হিসেবে চিহ্নিত করেছেন। তবে, শরীরের বিভিন্ন ভারসাম্যহীনতা, গ্লুকোজের অভাব, ডায়াবেটিস, থাইরয়েডের সমস্যা, মেনোপজ এর পর, বিভিন্ন জেনেটিক কারণেও এই সমস্যা হতে পারে।
সাধারণত শরীরের বিভিন্ন অংশের ভিত্তিতে হাইপারহাইড্রোসিস দুই ভাগে বিভক্ত। সাইন্স বী

১. প্রাইমারি/ফোকাল ( মুখমন্ডলের বিভিন্ন জায়গা, আন্ডারআর্মস, স্কাল্প ইত্যাদি অংশে হয়)

২.সেকেন্ডারি/Generalized(হাত, পা ও অন্যান্য অংশে যখন হয়)

★প্রাইমারি হাইপারহাইড্রোসিস হওয়ার প্রধান কারণ এখনও অজানা। তবে মানসিক ভাবে শঙ্কিত থাকাই একটি কারণ। এসব রোগীদের ওপর সার্ভে করে দেখা গেছে যখন তারা নার্ভাস থাকে তখনই ঘেমে যায় আর যখন এই ঘাম হওয়ার ব্যাপারটি বুঝতে পারে তখন আরো বেশী নার্ভাস হয়ে যায়। ড্রিংক করা, নিকোটিন, ক্যাফেইন গ্রহণ করা অথবা এসবের গন্ধ নাকে আসলেও এই সমস্যা হতে পারে।

★সেকেন্ডারি হাইপারহাইড্রোসিসের পেছনে পূর্বের সংশ্লিষ্ট কারণগুলো ছাড়াও আরো বিশেষ কিছু কারণ রয়েছে। ক্যানসার, endocrine সিস্টেমে ব্যাঘাত, ইনফেকশন এর ফলে হতে পারে।

এ সমস্যা থেকে পরিত্রাণের উপায়:

যেহেতু এটা চিকিৎসাবিজ্ঞানের একটি অংশ, তাই খুব বেশি সমস্যা হলে অবশ্যই বিশেষজ্ঞদের মতামত নেওয়া উচিত।
তবে কিছু উপায় প্রাথমিকভাবে অবলম্বন করতে পারেন। সেগুলো হলো:

১. যেহেতু বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই মানসিক চাপের ফলে  সমস্যা টা হয়, তাই ঐ সময়টাতে জোরে জোরে নিঃশ্বাস নিতে পারেন। যেটা কিছুটা মানসিক চাপ কমাতে পারে।

২. শরীরের তাপমাত্রা বেড়ে যাওয়ায় যেহেতু ঘাম হয় তাই বেশি বেশি পানি পান করতে পারেন, যেটা শরীরের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণে আনতে সহায়ক।

৩. অ্যালুমিনিয়াম ক্লোরাইড যুক্ত লোশন ব্যবহার করতে পারেন, তবে অবশ্যই বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নিয়ে।

৪. এছাড়া হাত-পা ঘেমে গেলে তাৎক্ষণিক আপনার ত্বকের জন্য মানানসই পাউডার ব্যবহার করতে পারেন।

আর হ্যাঁ, পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকাটাও জরুরী।

তথ্যসূত্র: উইকিপিডিয়া ও বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম।

+5 টি ভোট
করেছেন (10,910 পয়েন্ট)
Nishat Tasnim হাত-পা ঘামার সমস্যাটি শতকরা পাঁচ ভাগ মানুষের মধ্যে দেখা যায়। একটি নির্দিষ্ট প্যাটার্নে হলেই ডাক্তারি ভাষায় এটিকে হাত-পা ঘামা বা পামোপ্লান্টার হাইপার-হাইড্রোসিস বলা হয়। এই রোগ শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ায় যেমন বিড়ম্বনা সৃষ্টি করে, কর্মক্ষেত্রে এবং পারিবারিক কাজেও সমস্যার সৃষ্টি করে। বাচ্চা এবং বড় দুই শ্রেণির মানুষেরই এই রোগ হতে পারে। ত্বকের নিচের ঘর্মগ্রন্থি নির্দিষ্টভাবে কাজ না করলেই পামোপ্লান্টার হাইপার-হাইড্রোসিসের লক্ষণ দেখা দেয়।

কারণঃ-

১. ঋতুকালীন (Seasonal) : সাধারণত গ্রীষ্মকালে, গরম তাপমাত্রায় হাত-পা ঘামা বেড়ে যায়। কারও কারও ক্ষেত্রে শুধু শীতকালেই এর প্রকোপ দেখা যায়।

২. উদ্বেগ, দুশ্চিন্তা, আশঙ্কা, ধকল, ভয়: স্বতন্ত্র স্নায়ু (Sympathetic Nervous System) সতর্ক হয়ে ঘর্মগ্রন্থিকে উদ্দীপিত (Stimulation) করে ঘাম নিঃসরণ বৃদ্ধি পায়।

৩. অন্যান্য রোগ থেকে : গ্লোমাস টিউমার, স্নায়ুতন্ত্রের টিউমার, জিনজনিত (Genetic) রোগ থেকে হাত-পা ঘামতে পারে।

৪. অতিরিক্ত গরম ও ঊষ্ণতায় হাত-পা ঘামতে শুরু হওয়া।

৫. ধীরে ধীরে ত্বকের কেরাটিন (Keratin) নষ্ট হয়ে হাত-পায়ের চামড়া উঠে অমসৃণ হয়ে যাওয়া।

৬. উত্তরাধিকার সূত্রে পাওয়া পামোপ্লান্টার হাইপারহাইড্রোসিসের ক্ষেত্রে ঘুমের সময় ঘাম নিঃসরণ বন্ধ থাকে।
+2 টি ভোট
করেছেন (123,340 পয়েন্ট)
Fahimuzzaman Fahim-

ঘাম হওয়ার মূল উদ্দেশ্য হলো শরীরের তাপমাত্রা কমিয়ে আনা। এ কারণে ভারী কাজ করলে, ব্যায়াম করলে বা মোটা কাপড় পড়লে ঘাম হয়। কিন্তু আমরা বেশি স্ট্রেসে থাকলেও ঘাম হতে পারে। যেমন, কর্মক্ষেত্রে বসের সাথে কথা বলার স্ট্রেস থেকে ঘাম হয়। কিন্তু হাতের তালুতে ঘাম হয় কেন?

এর পেছনে আদিমকালের কারণ থাকতে পারে। আদিম মানুষ অনেক সময়েই বেঁচে থাকার তাগিদে হিংস্র প্রাণীর সাথে লড়াই করত, গাছ বা পাহাড় বেয়ে উঠত। সে সময়ে হাত ঘামলে হাতের মুঠোয় অস্ত্র বা গাছের ডাল ধরা সহজ হতো। এ কারণে বর্তমানেও স্ট্রেসে থাকলে হাত ঘামে। শুধু হাত নয়, পায়ের পাতা, মুখ এবং বগলও ঘেমে যায়।

মূলত ভয় ও দুশ্চিন্তার অনুভূতি থেকে হাত ঘামে। এটাকে ‘স্ট্রেস সোয়েট’ বলা হয়ে থাকে। বক্তৃতা দেওয়ার সময়, মিটিংয়ে কথা বলার সময়, প্রথম ডেটে, বা হুট করে ভয় পেলে যেমন কোনো ডেডলাইন মিস করলে এভাবে ঘাম হয়। শুধু তাই নয়, কফি, ধূমপান ও ঝাল খাবার খেলেও এমনটা হতে পারে।

স্ট্রেসের কারণে হাত ঘেমে যাওয়াটা অস্বাভাবিক নয়। কিন্তু তা যদি প্রতিনিয়ত জীবনকে দুর্বিষহ করে তোলে তাহলে ডাক্তারের সাথে কথা বলা উচিত। কারণ পালমার হাইপারহাইড্রোসিস নামের একটি সমস্যা থাকতে পারে, যাতে মানুষের অকারণেই অতিরিক্ত ঘাম হয়। এ সমস্যাটির চিকিৎসা আছে। এ চিকিৎসায় ৫০ শতাংশ পর্যন্ত ঘাম কমিয়ে আনা যায়।
0 টি ভোট
করেছেন (43,970 পয়েন্ট)
মৃদু থেকে শুরু করে ফোঁটা-ফোঁটা পানির মত ঘাম পড়তে পারে এ সমস্যায়। বিভিন্ন কারণে অতিরিক্ত ঘাম হতে পারে যার কারণ পুরোপুরি জানা নেই বিজ্ঞানীদের। তাই সমস্যাটির বৈজ্ঞানিক নাম Idiopathic Hyperhidrosis (ইডিওপ্যাথিক হাইপারহাইড্রোসিস)।
0 টি ভোট
করেছেন (140 পয়েন্ট)
আমি নিজে এই সমস্যার ভুক্তভুগী। কোনো কারণ ছাড়াও অর্থাৎ কোনো মানসিক চাপ হাত ঘামে ভিজে যায়। তবে এটি অনিরাময়যোগ্য নয়।

যেহুতু এর কারণ অজানা এটার একটি প্রধান কারণ মানসিক বলা হয়ে থাকে। কারণ টেনশন করলে এই সমস্যা বেড়ে যায়। তাই সহজ চিকিৎসা টেনশন মুক্ত জীবন যাপন করতে শিখা। বাস্তবতা হলো নিয়মিত মেডিটেশন চর্চা, দম চর্চা ও yoga র মাধ্যমে এটা থেকে নিরাময় লাভ করা যায়। নিজের মনের শক্তির ওপর আস্থা রাখুন এবং একে জাগ্রত করুন। শিথিলায়ন চর্চা করুন।  আপনার হাত পা ঘামা সমস্যার নিরাময় হয়ে যাবে In Shaa Allah. এটা নিয়ে ঘাবড়ানোর কিছু নেই। আমি নিজে এটার মুখোমুখি হয়েছি তাই এতো নিশ্চিতভাবে বলতে পারছি ।
0 টি ভোট
করেছেন (33,350 পয়েন্ট)
হাত-পা ঘামার কারণ
যেমন পারকিনসন্স ডিজিজ, থাইরয়েডে সমস্যা, ডায়াবেটিস, জ্বর, শরীরে গ্লুকোজের স্বল্পতা, মেনোপোজের পর প্রভৃতি। অনেক সময় শরীরে ভিটামিনের অভাব থাকলে হাত-পা অতিরিক্ত ঘামতে পারে। আবার মানসিক চাপ, দুশ্চিন্তা ও জেনেটিক কারণে হাত-পা ঘামে।

~সাদমান

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

0 টি ভোট
1 উত্তর 374 বার দেখা হয়েছে
+9 টি ভোট
1 উত্তর 5,912 বার দেখা হয়েছে
03 ফেব্রুয়ারি 2021 "স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Samsun Nahar Priya (47,700 পয়েন্ট)
+10 টি ভোট
2 টি উত্তর 1,926 বার দেখা হয়েছে
0 টি ভোট
2 টি উত্তর 751 বার দেখা হয়েছে

10,719 টি প্রশ্ন

18,361 টি উত্তর

4,729 টি মন্তব্য

239,760 জন সদস্য

71 জন অনলাইনে রয়েছে
3 জন সদস্য এবং 68 জন গেস্ট অনলাইনে
  1. Ayon Ratan Agni

    390 পয়েন্ট

  2. Vuter Baccha

    150 পয়েন্ট

  3. almoyaj_k

    130 পয়েন্ট

  4. Mehedi_Bknowledge

    110 পয়েন্ট

  5. Monojit Das

    110 পয়েন্ট

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় উন্মুক্ত বিজ্ঞান প্রশ্নোত্তর সাইট সায়েন্স বী QnA তে আপনাকে স্বাগতম। এখানে যে কেউ প্রশ্ন, উত্তর দিতে পারে। উত্তর গ্রহণের ক্ষেত্রে অবশ্যই একাধিক সোর্স যাচাই করে নিবেন। অনেকগুলো, প্রায় ২০০+ এর উপর অনুত্তরিত প্রশ্ন থাকায় নতুন প্রশ্ন না করার এবং অনুত্তরিত প্রশ্ন গুলোর উত্তর দেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। প্রতিটি উত্তরের জন্য ৪০ পয়েন্ট, যে সবচেয়ে বেশি উত্তর দিবে সে ২০০ পয়েন্ট বোনাস পাবে।


Science-bee-qna

সর্বাপেক্ষা জনপ্রিয় ট্যাগসমূহ

মানুষ পানি ঘুম পদার্থ - জীববিজ্ঞান এইচএসসি-উদ্ভিদবিজ্ঞান এইচএসসি-প্রাণীবিজ্ঞান পৃথিবী চোখ রোগ রাসায়নিক শরীর রক্ত আলো মোবাইল ক্ষতি চুল কী #ask চিকিৎসা পদার্থবিজ্ঞান সূর্য প্রযুক্তি প্রাণী স্বাস্থ্য বৈজ্ঞানিক মাথা গণিত মহাকাশ পার্থক্য এইচএসসি-আইসিটি #science বিজ্ঞান #biology খাওয়া শীতকাল গরম কেন #জানতে ডিম চাঁদ বৃষ্টি কারণ কাজ বিদ্যুৎ রাত রং উপকারিতা শক্তি লাল আগুন সাপ মনোবিজ্ঞান গাছ খাবার সাদা আবিষ্কার দুধ উপায় হাত মশা মাছ মস্তিষ্ক শব্দ ঠাণ্ডা ব্যাথা ভয় বাতাস গ্রহ স্বপ্ন রসায়ন তাপমাত্রা উদ্ভিদ কালো কি বিস্তারিত রঙ পা পাখি গ্যাস মন সমস্যা মেয়ে বৈশিষ্ট্য হলুদ বাচ্চা সময় ব্যথা মৃত্যু চার্জ অক্সিজেন ভাইরাস আকাশ গতি দাঁত আম বিড়াল কান্না নাক
...