ডিম খেলে ওজন বাড়ে নাকি কমে? - ScienceBee প্রশ্নোত্তর

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির প্রশ্নোত্তর দুনিয়ায় আপনাকে স্বাগতম! প্রশ্ন-উত্তর দিয়ে জিতে নিন পুরস্কার, বিস্তারিত এখানে দেখুন।

+5 টি ভোট
1,038 বার দেখা হয়েছে
"স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে করেছেন (140,920 পয়েন্ট)

4 উত্তর

0 টি ভোট
করেছেন (140,920 পয়েন্ট)
নির্বাচিত করেছেন
 
সর্বোত্তম উত্তর

ডিম খেতে পছন্দ করেন না, এমন মানুষ খুব কমই আছে। ডিম দিয়ে রান্না করা খাবারের মধ্যে আমরা সাধারণত ডিম সিদ্ধ, ডিম পোচ, ডিম ভাজি, ডিমের তরকারী ইত্যাদি খেয়ে থাকি। ডিমে প্রচুর পরিমাণ প্রোটিন রয়েছে। তবে মজার ব্যাপার হল ডিম শরীরের ওজন কমাতে অতি মাত্রায় সাহায্য করে।

ডিমের মধ্যে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ কোলেস্টরেল। যা মানব দেহের জন্য খুবই উপকারি। এছাড়া ডিমে প্রোটিনের পরিমাণ ৭ থেকে ১০ গ্রাম। এছাড়া ডিমের বিভিন্ন প্রকার ভিটামিন রয়েছে। নিয়মিত ডিম খেলে মানুষের ওজন কমে। তবে সেটি গ্রহণের একটি সঠিক নিয়ম ও সময় রয়েছে, যার ফলে খুব সহজেই ওজন কমানো সম্ভব। আসুন দেখে নেওয়া যাক কি কি উপায়ে ও কোন সম্য ডিম খেলে আমাদের শরীরের ওজন কমে আসবে।

আপনি যদি ডিম খেয়ে ওজন কমাতে চান, তবে অবশ্যই তা কাজ করবে। কারণ ডিমে আছে উচ্চ মাত্রায় প্রোটিন। যা খেলে খেলে মেটাবোলিজম বাড়ে এবং ক্যালোরি বার্ণ হয়। এতে করে ওজনও আস্তে আস্তে কমে।

ওজন কমানোর জন্য ডিম খাওয়ার নিয়ম:

আপনি যদি ওজন কমাতে চান তবে ডিম সিদ্ধ করে,পোচ করে,বেক করে, অমলেট বা স্ক্র্যাম্বলড করে খেতে পারেন। আর ডিম সিদ্ধ বা পোচ খাওয়ার উপযুক্ত সময় হল সকালে নাস্তার সময়। সকালে ডিম খেলে সারাদিন অনেকক্ষণ পেট ভরা থাকে। আবার সকালে তড়িঘড়ি থাকলে একটা সিদ্ধ বা পোচ ডিম খেয়ে বের হয়ে যেতে পারেন।

এছাড়া ব্যায়ামের পর ডিম খাওয়া হতে পারে আদর্শ খাবার। ডিম যেমন শরীরে শক্তি যোগায় তেমনি মাসলগুলো শক্তিশালী রাখে।

গবেষণা অনুযায়ী রাতের খাবারের পর ডিম খাওয়া শরীরের জন্য উপকারী। তবে অনেকে বলে রাতে ডিম খেলে নিদ্রাহীনতা দেখা দেয়। এজন্য আপনার শরীরের সাথে কখন খাপ খায় সে অনুযায়ী ডিম খান।

দিনে কয়টি ডিম খাওয়া উচিত:

প্রতিদিন একাধিক ডিম না খেয়ে একটি করে খাওয়া শরীরের জন্য ভালো হবে এবং এর কোন প্বার্শ প্রতিক্রিয়া নেই।

সূত্র: দ্যা টাইমস অব ইন্ডিয়া

0 টি ভোট
করেছেন (8,970 পয়েন্ট)
ডিম পুষ্টিকর একটি খাবার। ডিম খাওয়ার সব ধরনের উপায়ের মধ্যে সেদ্ধ করে ডিম খাওয়াকে সবচেয়ে পুষ্টিকর উপায় মনে করা হয়। সেদ্ধ ডিমের ক্যালোরি মোটামুটি কম। এতে প্রচুর পুষ্টি, প্রোটিন, ভিটামিন এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে পারে। আপনি যদি দ্রুত ওজন কমানোর চেষ্টা করে থাকেন তবে সেদ্ধ ডিম আপনাকে সাহায্য করতে পারে। সেদ্ধ ডিমের একটি ডায়েট রয়েছে যা কোনো ঝামেলা ছাড়াই দ্রুত ওজন কমায়। এমনটাই প্রকাশ করেছে টাইমস অব ইন্ডিয়া-সেদ্ধ ডিমের ডায়েট কী?একটি ‘ফ্যাড’ ডায়েট হিসাবে বিবেচনা করা হয়। দিনের মধ্যে একাধিক বার সেদ্ধ ডিম খাওয়ার ভিন্ন উপায় এই ডায়েট। ২০১৮ সালে ডায়েটটি প্রথম জনপ্রিয়তা অর্জন করেছিল। এই ডায়েট পালনকারীরা দাবি করেছিলেন যে, এটি দুই সপ্তাহের মধ্যে ১১ কেজি পর্যন্ত ওজন কমাতে পারে। ওজন হ্রাস ছাড়াও এই ডায়েট হাড়ের স্বাস্থ্য ভালো রাখে, দৃষ্টিশক্তি বাড়ায়, চুল এবং ত্বকের স্বাস্থ্যের উন্নতি করে ও ব্লাড সুগারকে কার্যকর উপায়ে নিয়ন্ত্রণ করতে পারে।

 

কিভাবে করবেন এই ডায়েটএকদিনে সেদ্ধ ডিমের একাধিক পরিবেশন করা ছাড়াও এই ডায়েটে অন্য স্বল্প-ক্যালরিযুক্ত পুষ্টির উৎস যেমন পাতলা প্রোটিন এবং স্টার্চিবিহীন শাকসবজি খেতে পারেন। এই খাবার পরিকল্পনায় কিছু স্বল্প-ক্যালোরি ফলও অনুমোদিত। এই ডায়েটে ব্ল্যাক/গ্রিন বা চিনি ছাড়া কফি থাকতে পারে। চর্বি, তেল, ভেষজ খেতে পারেন, তবে তা স্বল্প পরিমাণে।

 

উচ্চ শর্করা জাতীয় খাবার যেমন শস্য, কিছু শাকসবজি এবং ফল খাওয়া যাবে না। প্রক্রিয়াজাত খাবারগুলো একেবারেই এড়িয়ে চলবেন। ডায়েটটি এমনভাবে পরিকল্পনা করা হয়েছে যাতে আপনি কয়েক সপ্তাহের জন্য নির্দিষ্ট খাবারেই সীমাবদ্ধ থাকেন এবং তারপরে আস্তে আস্তে স্বাস্থ্যকর খাওয়ার ধরনে ফিরে আসবেন।এটি কীভাবে কাজ করে?সেদ্ধ ডিমের ডায়েট দুইভাবে কাজ করে - ক্যালোরি নিয়ন্ত্রণ এবং স্বল্প-কার্বোহাইড্রেট খরচ। ডিম, স্টার্চবিহীন সবজি এবং ডায়েট প্ল্যানের অন্যান্য উপাদানগুলোর ক্যালোরির তুলনামূলক কম। তাই এটি শরীরে ক্যালোরির ঘাটতি তৈরি করতে পারে। যা আদর্শ ওজন হ্রাসের ভিত্তি পরিকল্পনা।

 

দ্বিতীয়ত, কম কার্বযুক্ত খাবার খেলে তা ওজন কমানোকে ত্বরান্বিত করতে সহায়তা করে। ডিম আপনার সামগ্রিক খাদ্য গ্রহণ সীমিত করে, দীর্ঘ সময়ের জন্য পেট ভরিয়ে রাখে।

 

এই ডায়েটের একটি সুবিধা হলো, এটি আপনাকে প্রক্রিয়াজাত বা অস্বাস্থ্যকর অ্যাডিটিভ যেমন চিনি বা অত্যধিক ক্যাফেইন খাওয়া থেকে বিরত রাখে।

 

এই ডায়েটে সবচেয়ে বড় উদ্বেগ হলো, এর সীমাবদ্ধ প্রকৃতি। ডায়েটে কম-ক্যালোরি, কম-কার্ব জাতীয় খাবার থাকে এবং অন্যান্য খাবারকে দূরে রাখতে বলে। এই জাতীয় ডায়েটের কাজটি স্বল্প সময়ে ওজন কমানোর গতি বাড়িয়ে তুলতে পারে, তবে প্রতিরোধমূলক ডায়েটগুলো দীর্ঘকাল ধরে টেকসই হয় না। কেউ কেউ নিয়ন্ত্রিত ডায়েট অনুসরণ করার পরও ওজন বাড়িয়ে তোলেন।
0 টি ভোট
করেছেন (12,490 পয়েন্ট)
ডিম একটি প্রোটিনসমৃদ্ধ খাবার।ডিম খেলে দীর্ঘক্ষণ পেট ভরা থাকে,তাই ক্ষুধা কম লাগে।ফলে অতিরিক্ত খাওয়ার চাহিদা কমে যায় এবং ফলস্বরূপ ওজনও কমে যায়।
0 টি ভোট
করেছেন (28,780 পয়েন্ট)
ডিম হচ্ছে প্রোটিনসমৃদ্ধ খাবার। ডিম খেলে দীর্ঘক্ষণ পেট ভরা থাকে, তাই ক্ষুধা কম লাগে। ফলে অতিরিক্ত খাওয়ার চাহিদা কমে, তাই ওজনও কমে

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

+2 টি ভোট
1 উত্তর 192 বার দেখা হয়েছে
+2 টি ভোট
2 টি উত্তর 72 বার দেখা হয়েছে
+12 টি ভোট
1 উত্তর 242 বার দেখা হয়েছে
+2 টি ভোট
3 টি উত্তর 951 বার দেখা হয়েছে
+11 টি ভোট
3 টি উত্তর 185 বার দেখা হয়েছে

9,821 টি প্রশ্ন

16,315 টি উত্তর

4,601 টি মন্তব্য

146,599 জন সদস্য

134 জন অনলাইনে রয়েছে
11 জন সদস্য এবং 123 জন গেস্ট অনলাইনে
  1. SaifSaiful

    510 পয়েন্ট

  2. Nadia

    360 পয়েন্ট

  3. ইমরান হোসেন

    260 পয়েন্ট

  4. SaifulSaif

    180 পয়েন্ট

  5. shankar

    140 পয়েন্ট

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় উন্মুক্ত বিজ্ঞান প্রশ্নোত্তর সাইট সায়েন্স বী QnA তে আপনাকে স্বাগতম। এখানে যে কেউ প্রশ্ন, উত্তর দিতে পারে। উত্তর গ্রহণের ক্ষেত্রে অবশ্যই একাধিক সোর্স যাচাই করে নিবেন। অনেকগুলো, প্রায় ২০০+ এর উপর অনুত্তরিত প্রশ্ন থাকায় নতুন প্রশ্ন না করার এবং অনুত্তরিত প্রশ্ন গুলোর উত্তর দেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। প্রতিটি উত্তরের জন্য ৪০ পয়েন্ট, যে সবচেয়ে বেশি উত্তর দিবে সে ২০০ পয়েন্ট বোনাস পাবে।


Science-bee-qna

সর্বাপেক্ষা জনপ্রিয় ট্যাগসমূহ

মানুষ পানি ঘুম এইচএসসি-উদ্ভিদবিজ্ঞান এইচএসসি-প্রাণীবিজ্ঞান - পৃথিবী জীববিজ্ঞান চোখ রোগ পদার্থ শরীর রক্ত আলো কী মোবাইল ক্ষতি চুল চিকিৎসা এইচএসসি-আইসিটি মহাকাশ মাথা বৈজ্ঞানিক পদার্থবিজ্ঞান সূর্য স্বাস্থ্য পার্থক্য রাসায়নিক প্রযুক্তি প্রাণী খাওয়া গণিত বিজ্ঞান কেন #ask #biology ডিম শীতকাল গরম কারণ #জানতে বৃষ্টি রং চাঁদ বিদ্যুৎ উপকারিতা আগুন কাজ লাল রাত সাদা সাপ গাছ #science শক্তি দুধ উপায় হাত মনোবিজ্ঞান ব্যাথা খাবার ভয় আবিষ্কার মশা মস্তিষ্ক শব্দ মাছ ঠাণ্ডা গ্রহ কি উদ্ভিদ কালো স্বপ্ন পা বৈশিষ্ট্য সমস্যা বিস্তারিত বাতাস রঙ পাখি হলুদ মন রসায়ন মেয়ে গ্যাস ভাইরাস বিড়াল ব্যথা আম চার্জ পাতা আকাশ তাপমাত্রা ঔষধ নাক মৃত্যু দাঁত কান্না হরমোন বাচ্চা
...