ঘরে বসে ভিডিও তৈরি করে ইউটিউব থেকে কীভাবে টাকা আয় করা সম্ভব? - ScienceBee প্রশ্নোত্তর

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির প্রশ্নোত্তর দুনিয়ায় আপনাকে স্বাগতম! প্রশ্ন-উত্তর দিয়ে জিতে নিন পুরস্কার, বিস্তারিত এখানে দেখুন।

+5 টি ভোট
277 বার দেখা হয়েছে
"প্রযুক্তি" বিভাগে করেছেন (140,600 পয়েন্ট)

2 উত্তর

+1 টি ভোট
করেছেন (140,600 পয়েন্ট)
নির্বাচিত করেছেন
 
সর্বোত্তম উত্তর

ইউটিউব হলো বিশ্বের সবচেয়ে বড় ভিডিও শেয়ার করার ওয়েবসাইট। ইউটিউবে নিয়মিত ভিডিও তৈরি করে যারা আপলোড করেন তাদেরকে বলে "ইউটিউবার" বা "ইউটিউব কন্টেন্ট ক্রিয়েটর"। ঘরে বসে টাকা আয় করার সহজ একটি উপায় হচ্ছে ইউটিউব। জনপ্রিয় ইউটিউবারদের বার্ষিক আয় প্রায় কয়েক কোটি টাকা। বর্তমানে ইউটিউব থেকে সবচেয়ে বেশি আয় করে নয় বছর বয়সী ইউটিউবার Ryan Kaji। ইউটিউব চ্যানেল থেকে তার আয় ২৯.৫ মিলিয়ন ডলার। তারপর এই তালিকায় আছেন Mr Beast ও Dude Perfect। তাদের ইউটিউব থেকে আয় যথাক্রমে ২৪ মিলিয়ন ডলার ও ২৩ মিলিয়ন ডলার।

ইউটিউব থেকে টাকা আয় করা মোটেও চাট্টিখানি কথা নয়। সফল ইউটিউবারদের সংখ্যাও কম। ইউটিউবাররা বিভিন্নভাবে টাকা আয় করতে পারেন। যেমন: বিজ্ঞাপন দেখিয়ে, ইনফ্লুয়েন্সার ও এফ্লিয়েট মার্কেটিং করে, পণ্যদ্রব্য বিক্রি করে, ডোনেশন থেকে ইত্যাদি। বিস্তারিত আলোচনা করা যাক।

  • বিজ্ঞাপন থেকে আয় : ইউটিউব ভিডিও শুরু হওয়ার আগে বা ইউটিউব ভিডিও এর মাঝে বেশ করেকবার নানা ধরনের বিজ্ঞাপন ভিডিও দেখানো হয়৷ এইসব বিজ্ঞাপন ভিডিও দেখানোর মাধ্যমে ইউটিউবাররা নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ আয় করেন। বিজ্ঞাপন ভিডিওতে প্রত্যেক ১০০০ ভিউ এর জন্য ইউটিউবাররা আয় করেন ৩ থেকে ৭ ডলার। মূলত গুগল অ্যাডসেন্সের মাধ্যমে ইউটিউবাররা তাদের বিভিন্ন ভিডিওতে বিজ্ঞাপন দেখিয়ে টাকা আয় করে। বিজ্ঞাপন হতে পারে ইন্সটাগ্রাম, টুইটার, স্ন্যাপচ্যাট, বায়জুস, ফুড পান্ডার প্রোমোশন ভিত্তিক।
  • ইনফ্লুয়েন্সার মার্কেটিং : ইনফ্লুয়েন্সার বলতে বুঝায় প্রভাবশালী ব্যক্তি যাদের ব্যাপক পরিচিতি আছে এবং তারা চাইলে পরিচিতির জোরে বিভিন্ন ব্যান্ডের প্রচার করতে পারেন। ইনফ্লুয়েন্সার মার্কেটিং এর মাধ্যমে কোন ব্যক্তি তার ইউটিউব প্রোফাইলে কোন ব্র‍্যান্ডের পণ্যকে প্রোমোট করেন এবং এর থেকে টাকা আয় করেন। ইনফ্লুয়েন্সার মার্কেটিং কয়েক ধরনের হতে পারে। যেমন:-
  • ব্র‍্যান্ডেড ইন্টিগ্রেশন : বর্তমানে শীর্ষ ইউটিউব কন্টেন্ট ক্রিয়েটরদের আয়ের অন্যতম মাধ্যম হচ্ছে ব্র‍্যান্ডেড ইন্টিগ্রেশন। অর্থাৎ, কোন একটি ব্র‍্যান্ডের পণ্য আনবক্সিং করা এবং পণ্যটি ভালো দিক ভিডিও এর মাধ্যমে দর্শকদের কাছে পৌঁছে দেওয়া। অথবা, নির্দিষ্ট একটি ব্র‍্যান্ডের পণ্য নিয়ে সেই পণ্যটি সম্পর্কে বিস্তারিত বর্ণনা করা। এক্ষেত্রে ইউটিউবাররা ভিডিওতে Brought To You By দিয়ে প্রোমোট করা ব্র‍্যান্ডের নাম উল্লেখ করে দেন।
  • এফ্লিয়েট মার্কেটিং : ইউটিউবারদের আয় করার আয়েকটি মাধ্যম হচ্ছে কোন ব্র‍্যান্ডের পণ্য বা কোন খাবার কম্পানি প্রোমোট করে লিংক ডেসক্রিপশন বক্সে দিয়ে দেওয়া। ভিডিওতেও সেই ব্র‍্যান্ড বা খাবারকে উপস্থাপন করতে পারেন তারা। লিংকে ক্লিক করে প্রমোশনাল কোড প্রদান করে যদি কেউ পণ্যটি ক্র‍য় করে তাহলে তার একটি নির্দিষ্ট অংশ আপনি কমিশন হিসেবে পাবেন। এতে কম্পানির লাভের সাথে সাথে আপনারও লাভ হবে।
  • ডোনেশন : ইউটিউবে সরাসরি অর্থ ডোনেট করার উপায় হচ্ছে লাইভ চ্যাট ডোনেশন। এক্ষেত্রে কোন ইউটিউবার যখন লাইভ শুরু করেন তখন আপনি ডোনেট বাটনে ক্লিক করে ইউটিউবারকে টাকা দিতে পারেন। তবে এই ডোনেশন থেকে খুব বেশি আয় করা সম্ভব নয়। আবার, সুপার চ্যাট এর মাধ্যমে কোন ভিউয়ার চাইলে ভিডিওতে নিজের কমেন্ট সবার উপরে পিন করতে পারেন, এর জন্য তাকে অর্থ ব্যয় করতে হয়। এভাবে অনেকে নিজের ইউটিউব চ্যানেলকে পরোক্ষভাবে প্রোমোট করে থাকেন। এছাড়াও প্যাট্রিয়ন এর মাধ্যমে ইউটিউবাররা ডোনেশন লাভ করেন
  • পণ্য বিক্রয় : ইউটিউবাররা নিজের তৈরিকৃত ব্র‍্যান্ডের পণ্য বা অন্যান্য ব্র‍্যান্ডের পণ্য বিক্রির মাধ্যমে আয় করতে পারেন। এক্ষেত্রে সফলতা নির্ভর করে ইউটিউবার এর ফ্যান ফলোয়ার এবং ইউটিউব চ্যানেলের জনপ্রিয়তার উপর। বিক্রি করা পণ্যটি হতে পারে পোশাক (হুডি, ক্যাপ, শার্ট), রান্নার সামগ্রী, নিজের লিখা বই, বিভিন্ন মোবাইল অ্যাপ, ইত্যাদি। 

ইউটিউব কন্টেন্ট ক্রিয়েটররা এছাড়াও নানা উপায়ে আয় করেন। যেমনঃ কোন ব্র‍্যান্ডের অ্যাম্বাসেডর হয়ে সেই ব্র‍্যান্ডের পণ্য মানুষের কাছে রিপ্রেজেন্ট করেন, স্পন্সর ভিডিও তৈরি করেন, ইত্যাদি। এভাবে তারা একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ উপার্জন করেন। এছাড়াও ইউটিউবে পাবলিক স্পিকিং এর মাধ্যমে আয় করা যায়। অর্থাৎ, দর্শকের কাছে বিভিন্ন বিষয়ে জ্ঞান শেয়ার করা। যদিও বিষয়টি জটিল, এর জন্য নিজস্ব ফ্যান ফলোয়ার থাকা আবশ্যক।

ইউটিউব সাবস্ক্রাইবার থেকে ইউটিউবাররা কোন অর্থ আয় করেন না। সাবস্ক্রাইবার হচ্ছেন তারা যারা ইউটিউবারদের ফলো করেন এবং সহজে তাদের ভিডিও অ্যাক্সেস করতে পারেন। চ্যানেলে সাবস্ক্রাইবার থাকা জরুরি কারণ একমাত্র তারাই আপনার ভিডিও লাইক কমেন্ট শেয়ার করে অন্যান্য মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে পারেন। ফোর্বসের প্রতিবেদন মতে, একজন ইউটিউবার প্রতি ১০০০ ভিউ এর জন্য ৫ ডলার করে পান। ১,০০০,০০০ ভিউ পাওয়া একটি ভিডিও থেকে ঊর্ধ্বে হলে প্রায় ৫০০০ হাজার ডলার আয় হয়। তবে বিজ্ঞাপন, রেট এর উপর ভিত্তি করে ইউটিউবাররা এরথেকে কম বা বেশি আয় করতে পারেন। ইউটিউব চ্যানেলে আপনার আয় ১০০ ডলার হওয়ার পরই ইউটিউব আপনাকে অর্থ প্রদান করবে। এরজন্য ইউটিউব তৈরি করেছে ইউটিউব পার্টনার প্রোগ্রাম, এর থেকে আপনি বিজ্ঞাপন এর মধ্যমে আয় করতে পারবেন। তবে এক্ষেত্রেও আপনাকে কিছু শর্ত পূরণ করতে হবে, যেমন : আপনার চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা হতে হবে ১০০০, এক বছরের ভিতর আপনার ভিডিওগুলোর পাবলিক ওয়াচ হতে হবে ৪০০০ ঘন্টা। এছাড়াও নানা শর্ত আছে। 

লিখেছেন: নিশাত তাসনিম (সায়েন্স বী)

0 টি ভোট
করেছেন (300 পয়েন্ট)

হ্যা পারবেন। আমি আপনার সাথে ৩টা পদ্ধতি শেয়ার করছি।

১) ইউটিউব থেকে উপার্জন করার সহজ উপায়

ইউটিউবে আপনি সকল শ্রেনীর ভিডিও পাবেন। ইউটিউব বিনোদন থেকে শুরু করে রান্না ঘর পর্যন্ত নিজের একটা স্থায়ী বসত গড়ে তুলেছে। অনেক ইউটিউবার বিভিন্ন শ্রেণীতে ভিডিও তৈরি করে ইউটিউবে আপলোড দিয়ে ইনকাম করছে। আপনি যদি সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকেন ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করবেন তাহলে আপনার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাচ্ছি। প্রথম দিকে আপনার চ্য্যানেল কি ধরনের হবে সেটা নিয়ে যদি দ্বিধায় থাকেন, তবে আমি আপনাকে এক কথায় বলবো আপনি প্রোডাক্ট বা সেবার রিভিউ নিয়ে ভিডিও তৈরি করুন। কারন?

 

image


 

 

মনে করুন আপনি একটা মোবাইল ফোন কিনবেন। তো, যে মডেলের মোবাইলে কিনবেন সেটা সম্পর্কে নিশ্চয়ই আপনি আগে থেকে খোজ খবর নিয়ে রেখেছে। না জেনেতো আর কিনবেন না। শুধু মোবাইল কেনো, সকল পণ্য বা সেবা নেয়ার আগে সেটা সম্পর্কে ইউটিউব থেকে সে পণ্য বা সেবার সমস্ত তথ্য সংগ্রহ করে। তাই আপনি ইউটিউবে সার্চ করলে দেখবেন যে সব ভিডিওতে প্রোডাক্ট রিভিউ করা হয় সেই ভিডিওর ভিউ বেশি হয়।

কিভাবে রিভিউ ভিডিও তৈরি করবেন জানিতে ক্লিক করুনঃ ইউটিউব থেকে উপার্জন করার সহজ উপায়

২) Youtube ভিডিও Re-upload করে টাকা ইনকাম

Youtube- থেকে ইনকাম করার জন্য নিজে ভিডিও তৈরি করার কোন প্রয়োজন হয় না। যদি পদ্ধতি জানা থাকে তাহলে ভিডিও নিজে ভিডিও না বানিয়েও টাকা ইনকাম করা যায়। আরো মজার ব্যপার হচ্ছে আপনার কোন কিছু শিখতেও হবে না। শুধু এই আর্টিক্যালটি অনুসরন করুন।

আরো পড়ুনঃ ছবি বিক্রি করে ইনকাম | প্রত্যেক ছবি ১৭৳

image

 

 

 

যদি Youtube এ সার্চ করেন relaxing Video, Maditation video তাহলে অনেক ভিডিও দেখতে পাবেন। ভিডিও গুলু Duration থাকে অনেক বেশি থাকে। এসব ভিডিওতে মিলিয়ন মিলিয়ন Views  হয়। বিশেষ করে আমেরিকা, ইউরোপের দেশগুলু থেকে এসব ভিডিও বেশি হয়। তার মানে বুঝতেই পারছেন, বাংলাদেশের তুলনায় ইনকাম বেশি হবে। তাই আপনি যদি সপ্তাহে ৩০-৬০ মিনিটের একটা করে ভিডিও আপলোড করেন আপনার চ্যানেলের জন্য যথেষ্ট।

 

আরও পড়ুনঃ Software এর রিভিউ লিখে আয়

 

তাহলে কিভাবে ভিডিও পাবেন এবং এই ধরনের অডিও কোথায় পাবেন। ভিডিওর পাওয়ার জন্য কয়েকটা Website এর নাম লিখে দিলাম। এই সাইটে সক, ভিডিও ফ্রি।

বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুনঃ Youtube ভিডিও Re-upload করে টাকা ইনকাম

৩) ইউটিউবে #Shorts ভিডিও বানিয়ে আয়

Youtube হচ্ছে ভিডিও শেয়ারিং প্লাটফর্ম। যেখানে একজন Content Creator ভিডিও তৈরি করে আপলোড করে টাকা উপার্জন করতে পারে। তবে ভিডিও হতে হবে মৌলিক।

আপনিও যদি ভিডিও আপলোড করে টাকা ইমকাম করতে চান তাহলে Youtube সবচেয়ে সহজ পদ্ধতি। তবে এর জন্য আপনাকে মান সম্মত ভিডিও বানাতে হবে।

image

 

 

তবে Youtube থেকে আর করার খুব সহজ উপায় হলো Shorts ভিডিও। Shorts ভিডিও বানাতে হলে আপনাকে Professional ভিডিও এডিট করতে হবে না। বর্তমানে ইউটিউবে সবচেয়ে বেশি view হয় Shorts ভিডিও। যার মিলিয়ন ছাড়িয়ে যায়। কারন ছোট ছোট ভিডিও দেখে viewer অল্প সময়ে অধিক বিনোদন নিতে পারে।

চলুন যেনে নেই কিভাবে Shorts ভিডিও আপলোড করে উপার্জন করবেন।

বিস্তারিত জানতে ক্লিক করোঃ ইউটিউবে #Shorts ভিডিও বানিয়ে আয়

ধন্যবাদ

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

+2 টি ভোট
1 উত্তর 342 বার দেখা হয়েছে
+2 টি ভোট
1 উত্তর 65 বার দেখা হয়েছে
21 এপ্রিল 2021 "প্রযুক্তি" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Ubaeid Hasan (26,230 পয়েন্ট)
+2 টি ভোট
3 টি উত্তর 359 বার দেখা হয়েছে
+5 টি ভোট
2 টি উত্তর 160 বার দেখা হয়েছে

9,379 টি প্রশ্ন

15,656 টি উত্তর

4,546 টি মন্তব্য

123,719 জন সদস্য

64 জন অনলাইনে রয়েছে
1 জন সদস্য এবং 63 জন গেস্ট অনলাইনে
  1. Md. Ariful Haque

    1690 পয়েন্ট

  2. Maksud

    650 পয়েন্ট

  3. azratuni

    630 পয়েন্ট

  4. Jihadul Amin

    620 পয়েন্ট

  5. স্বপ্নিল

    560 পয়েন্ট

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় উন্মুক্ত বিজ্ঞান প্রশ্নোত্তর সাইট সায়েন্স বী QnA তে আপনাকে স্বাগতম। এখানে যে কেউ প্রশ্ন, উত্তর দিতে পারে। উত্তর গ্রহণের ক্ষেত্রে অবশ্যই একাধিক সোর্স যাচাই করে নিবেন। অনেকগুলো, প্রায় ২০০+ এর উপর অনুত্তরিত প্রশ্ন থাকায় নতুন প্রশ্ন না করার এবং অনুত্তরিত প্রশ্ন গুলোর উত্তর দেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। প্রতিটি উত্তরের জন্য ৪০ পয়েন্ট, যে সবচেয়ে বেশি উত্তর দিবে সে ২০০ পয়েন্ট বোনাস পাবে।


Science-bee-qna

সর্বাপেক্ষা জনপ্রিয় ট্যাগসমূহ

মানুষ পানি ঘুম এইচএসসি-উদ্ভিদবিজ্ঞান এইচএসসি-প্রাণীবিজ্ঞান জীববিজ্ঞান রোগ চোখ পৃথিবী - শরীর পদার্থ রক্ত আলো মোবাইল কী ক্ষতি চিকিৎসা এইচএসসি-আইসিটি চুল পদার্থবিজ্ঞান মহাকাশ বৈজ্ঞানিক মাথা সূর্য প্রাণী পার্থক্য প্রযুক্তি স্বাস্থ্য কেন খাওয়া ডিম গরম রাসায়নিক কারণ #biology বৃষ্টি #জানতে শীতকাল রং বিজ্ঞান চাঁদ গণিত উপকারিতা কাজ বিদ্যুৎ আগুন লাল রাত সাদা সাপ #ask দুধ উপায় ব্যাথা শক্তি খাবার গাছ ভয় আবিষ্কার মশা মনোবিজ্ঞান মাছ হাত শব্দ ঠাণ্ডা কি গ্রহ কালো বৈশিষ্ট্য সমস্যা উদ্ভিদ মস্তিষ্ক রঙ পা হলুদ স্বপ্ন মন রসায়ন মেয়ে বাতাস ভাইরাস #science আম পাতা ব্যথা মৃত্যু দাঁত আকাশ কান্না পাখি চার্জ গ্যাস ঔষধ বিস্তারিত হরমোন বিড়াল তাপমাত্রা নাক ফোবিয়া
...