কিছু  মানুষের চোখ বাদামী রঙের হওয়ার কারণ কী? - ScienceBee প্রশ্নোত্তর

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির প্রশ্নোত্তর দুনিয়ায় আপনাকে স্বাগতম! প্রশ্ন-উত্তর দিয়ে জিতে নিন পুরস্কার, বিস্তারিত এখানে দেখুন।

+6 টি ভোট
272 বার দেখা হয়েছে
"বিবিধ" বিভাগে করেছেন (133,430 পয়েন্ট)

2 উত্তর

+1 টি ভোট
করেছেন (12,920 পয়েন্ট)
ড. সাইনুডিন পাত্তাঝির মতে আইরিশে মেলানিনের পরিমাণ, প্রোটিনের ঘনত্ব এবং আইরিশে স্ট্রোমার অস্বচ্ছ অংশে আলো কতটা বিচ্ছুরিত হচ্ছে ইত্যাদির ওপর ভিত্তি করে চোখের রং নির্ধারিত হয়। মেলানিন নামের উপাদানের রঞ্জকের পরিমাণ আবার নির্ধারিত হয় ইওমেলানিন এবং ফিওমেলানিনের অনুপাতের ওপর। চোখের রং মূলত ৯টি ক্যাটাগরিতে ভাগ করা হয়। বংশগতভাবে চোখের রং নির্ধারণে ১৬টি জিন কাজ করে। বংশগতভাবে চক্ষুর রং নির্ধারণে সবচেয়ে প্রভাবশালী জিন হলো ওসিএ২ এবং এইচইআরসি২। এদের অবস্থান ক্রোমোজোম ১৫-এ। সাধারণত নীল চোখের জন্যে এইচইআরসি২ জিনকে দায়ী করা যায়। আর ওসিএ২ সাধারণত চোখের নীল এবং সবুজ রং সৃষ্টিতে কাজ করে। তবে বিশ্বজুড়ে বাদামি চোখের আনাগোনা সবচেয়ে বেশি। মানুব সভ্যতার প্রথম থেকেই এই রং দাপটের সঙ্গে টিকে আছে। অন্যদিকে, নীল চোখ মূলত বংশানুক্রমিকভাবে টিকে রয়েছে এবং দিন দিন বিরল হয়ে পড়ছে। বিশেষজ্ঞরা ধারণা করেন, নীল চোখের সৃষ্টিতে জিনগত মিউটেশন ঘটেছিল ৬ হাজার থেকে ১০ হাজার বছর আগে। নীল চোখের চেয়ে আরো বেশি গাঢ় দেখায় ধূসর চোখ। কারণ এ রংয়ের চোখে মেলানিন পিগমেন্ট অনেক বেশি থাকে। আইরিশে মেলানিন এবং প্রোটিনের পরিমাণের ওপর ভিত্তি করে চোখের ধূসর রংয়ের সৃষ্টি হয়। পৃথিবীর মাত্র ২ শতাংশ মানুষের সবুজ চোখ রয়েছে। এ চোখে মেলানিন খুব কম থাকে। হালকা বাদামি রং তৈরি হয় আসলে সবচেয়ে হালকা নীল এবং গাঢ় বাদামির মিশেলে। হালকা বাদামি রংয়ের চোখে আইরিশের অভ্যন্তরীণ সীমান্ত বরাবর প্রচুর পরিমাণে মেলানিন জমা থাকে। বিজ্ঞানীদের মতে, জীবন শুরুর প্রথম কয়েক বছরের মধ্যে চোখের রংয়ে নাটকীয় পরিবর্তন আসতে পারে। অনেক শিশুই নীল চোখ নিয়ে জন্মায়। কিন্তু পরে তা সবুজ বা বাদামি হয়ে যায়।
0 টি ভোট
করেছেন (15,340 পয়েন্ট)
চোখের রঙ একটাই। বাকিটা আমাদের দৃষ্টিভ্রম! হ্যাঁ, অবিশ্বাস্য হলেও এটাই সত্যি। সম্প্রতি এই দাবিই করেছেন গ্যারি হেইটিং নামে এক বিজ্ঞানী। তাঁর দাবি, সবুজ, নীল বা কালো নয়, চোখের একটাই রং। আর সেটা হল বাদামি।

এটা তো আমরা সবাই জানি, গায়ের রঙ কেন কালো বা ফর্সা হয়। আমাদের ত্বকে মেলানিনের উপস্থিতির কারণেই এই রঙ বদলের খেলা চলে। অর্থাত্ মেলানিন বেশি থাকলে ত্বকের রঙ কালো, যত কম থাকবে গায়ের রং তত ফ্যাকাশে হবে।

হেইটিঙের দাবি, “ত্বকের মতো চোখের রংও নির্ধারণ করে এই মেলানিন। চোখের মণিতে উপস্থিত মেলানিনের মাত্রাই বলে দেয় রঙ কী হবে।”

চোখের মণিতে থাকে মেলানোসাইটস, যা মেলানিনের সংক্ষিপ্ত সংস্করণ। এই মেলানোসাইটস-এর একটাই রং হয়। সেটা হল বাদামি।

চিকিত্সক হেইটিং জানান, প্রত্যেক মানুষের চোখের রং বাদামি এবং মেলানোসাইসটস-এর একটাই শেড, তা হল বাদামি। তবে এই মেলানোসাইটস কোনও ব্যক্তির বেশি থাকে, কোনও ব্যক্তির কম।যে সব মানুষের চোখের রং হালকা, তাদের মেলানোসাইটস কম। ফলে বাইরের আলো সহজেই চোখ শুষে নেয়, তার পর সেটা প্রতিফলিত হয়। আর সে কারণেই চোখের রং হালকা মনে হয়।

যাদের চোখ বাদামি, তাদের চোখে মাত্রাতিরিক্ত মেলানিন থাকে। ফলে বাইরের আলো কম প্রবেশ করে। আবার যাদের চোখ দেখে মনে হয় নীল, তাদের ক্ষেত্রে মোলানোসাইটস-এর মাত্রা একদম কম থাকে। ফলে বাইরের আলো শুষে নিতে পারে না, কিন্তু প্রতিফলন হয় অনেক বেশি।

গোটা প্রক্রিয়াটাই হচ্ছে বিচ্ছুরণের কারণে। বিচ্ছুরণের ফলে ছোট তরঙ্গদৈর্ঘের আলো প্রতিফলিত হয়। আর যেহেতু নীল এবং সবুজ আলোর তরঙ্গদৈর্ঘ্য খুবই কম, তাই আমাদের চোখে উল্টো দিকের ব্যক্তির চোখের রং নীল বা সবুজ মনে হয়।

©

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

+4 টি ভোট
1 উত্তর 167 বার দেখা হয়েছে
31 জানুয়ারি 2021 "বিবিধ" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন হুজায়ফা আহমদ (133,430 পয়েন্ট)
+6 টি ভোট
1 উত্তর 73 বার দেখা হয়েছে
+9 টি ভোট
2 টি উত্তর 128 বার দেখা হয়েছে
+6 টি ভোট
1 উত্তর 66 বার দেখা হয়েছে
+7 টি ভোট
1 উত্তর 809 বার দেখা হয়েছে

8,161 টি প্রশ্ন

11,538 টি উত্তর

4,400 টি মন্তব্য

69,240 জন সদস্য

112 জন অনলাইনে রয়েছে
18 জন সদস্য এবং 94 জন গেস্ট অনলাইনে
  1. Md. Arafat Hasan

    7520 পয়েন্ট

  2. Tamanna Kawsar

    6560 পয়েন্ট

  3. Md Abdus Sami

    5740 পয়েন্ট

  4. Subrata Saha

    4790 পয়েন্ট

  5. অচেনা মানুষ

    3130 পয়েন্ট

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় উন্মুক্ত বিজ্ঞান প্রশ্নোত্তর সাইট সায়েন্স বী QnA তে আপনাকে স্বাগতম। এখানে যে কেউ প্রশ্ন, উত্তর দিতে পারে। উত্তর গ্রহণের ক্ষেত্রে অবশ্যই একাধিক সোর্স যাচাই করে নিবেন। অনেকগুলো, প্রায় ২০০+ এর উপর অনুত্তরিত প্রশ্ন থাকায় নতুন প্রশ্ন না করার এবং অনুত্তরিত প্রশ্ন গুলোর উত্তর দেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। প্রতিটি উত্তরের জন্য ৪০ পয়েন্ট, যে সবচেয়ে বেশি উত্তর দিবে সে ২০০ পয়েন্ট বোনাস পাবে।


Science-bee-qna

সর্বাপেক্ষা জনপ্রিয় ট্যাগসমূহ

মানুষ পানি ঘুম এইচএসসি-উদ্ভিদবিজ্ঞান এইচএসসি-প্রাণীবিজ্ঞান রোগ চোখ জীববিজ্ঞান পৃথিবী - শরীর কী মোবাইল এইচএসসি-আইসিটি রক্ত ক্ষতি চিকিৎসা আলো চুল মাথা প্রাণী মহাকাশ কারণ বৈজ্ঞানিক গরম পার্থক্য উপকারিতা পদার্থ প্রযুক্তি ডিম কেন স্বাস্থ্য খাওয়া বৃষ্টি শীতকাল কাজ রং সাপ #biology বিদ্যুৎ রাত সূর্য আগুন পদার্থবিজ্ঞান লাল সাদা খাবার ভয় দুধ মাছ হাত ব্যাথা শক্তি গাছ উপায় মশা গণিত ঠাণ্ডা বিজ্ঞান কি বৈশিষ্ট্য #জানতে মনোবিজ্ঞান আবিষ্কার ভাইরাস পা আম সমস্যা উদ্ভিদ গ্রহ কালো চাঁদ শব্দ রসায়ন #ask মেয়ে পাখি বাতাস স্বপ্ন কান্না বিস্তারিত নাক দাঁত হলুদ রঙ বাচ্চা মন ঔষধ মানসিক হরমোন বিড়াল চা চার্জ ফোবিয়া পাতা ব্যথা মস্তিষ্ক নখ তাপমাত্রা পাকা
...