সূর্যের আলো থেকে কিভাবে ভিটামিন ডি পাওয়া যায়? - ScienceBee প্রশ্নোত্তর

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির প্রশ্নোত্তর দুনিয়ায় আপনাকে স্বাগতম! প্রশ্ন-উত্তর দিয়ে জিতে নিন পুরস্কার, বিস্তারিত এখানে দেখুন।

+8 টি ভোট
118 বার দেখা হয়েছে
"জীববিজ্ঞান" বিভাগে করেছেন (109,460 পয়েন্ট)

3 উত্তর

+6 টি ভোট
করেছেন (64,580 পয়েন্ট)
ত্বকের এপিডার্মাল বেসাল ও সুপ্রাবেসাল কেরাটিনোসাইট এবং ডার্মাল ফাইব্রোব্লাস্ট উভয়ের প্লাজমা ঝিল্লিতে এক ধরনের কোলেস্টেরল ডিহাইড্রোকলেস্টেরল সূর্যের আলোতে উপস্থিত অতিবেগুনী রশ্মির প্রভাবে প্রোভিটামিন ডি-৩ তে পরিণত হয়। এই প্রোভিটামিন ডি-৩ প্লাজমা ঝিল্লি থেকে মুক্তি পায় এবং ভিটামিন ডি বাইন্ডিং প্রোটিনের সাথে আবদ্ধ হয়ে রক্তসংবহন তন্ত্রে প্রবেশ করে।  গৃহীত খাদ্যের মাধ্যমে ডি-২ এবং ডি-৩ পৌষ্টিকতন্ত্রের মাধ্যমে রক্ত সংবহন তন্ত্রে যুক্ত হয়। এরাও এক ধরনের প্রোভিটামিন।  এই রাসায়নিকগুলো যকৃতে গিয়ে হেপাটিক হাইড্রোক্লেস নামক একটি উৎসেচক দ্বারা ২৫-হাইড্রোক্সিভিটামিন ডি এ রূপান্তরিত হয়। এই ২৫-ডি এর মাণ মানুষের দেহে ভিটামিন ডি পরিমাপের সূচক।
0 টি ভোট
করেছেন (133,580 পয়েন্ট)

ভিটামিন ডি ডিফিসিয়েন্সি এখন গ্লোবাল পাবলিক হেলথ প্রবলেম। আমরা যাঁরা শহরে বাস করি, তাঁদের শরীরে ভিটামিন ডি-র যতটুকু চাহিদা, ততটুকু পূরণ করা সম্ভব হচ্ছে না। কারণ, ভিটামিন ডি পাওয়ার জন্য যতটুকু সূর্যের আলো দরকার, ততটুকু আমরা শরীরে নিচ্ছি না এবং পর্যাপ্ত ভিটামিন ডি-যুক্ত খাবার গ্রহণ করছি না। সে কারণে ভিটামিন ডি-র ঘাটতি দেখা দিচ্ছে ছোট-বড় অনেকেরই।

এনটিভির নিয়মিত স্বাস্থ্যবিষয়ক এক আয়োজনে এ নিয়ে বিস্তারিত জানিয়েছেন পুষ্টিবিদ নুসরাত জাহান। তিনি আরও বলেন, ভিটামিন ডি-কে বেসিক্যালি সানলাইট ভিটামিনস হিসেবে রেফার করা হয়ে থাকে। কেননা, এই ভিটামিন ডি আমাদের শরীরে তৈরি হচ্ছে, যখন আমরা সূর্যের আলোর সংস্পর্শে আসছি। ভিটামিন ডি-র অভাবে অনেক রোগ হয়ে থাকে।

পুষ্টিবিদ নুসরাত জাহান বলেন, আমরা অনেকেই জানি না, ভিটামিন ডি পাওয়ার জন্য দিনের আলোর কোন সময়টুকু উপযুক্ত। কিছু গবেষণা থেকে আমরা জানতে পেরেছি, সকাল ১০টা থেকে দুপুর ৩টা পর্যন্ত উপযুক্ত সময় এবং সেটা অবশ্যই ১০ থেকে ১৫ মিনিট পর্যন্ত হতে হবে। সুতরাং, আপনারা বুঝতেই পারছেন ভিটামিন ডি-র মেইন সোর্স হচ্ছে এই সানলাইট।

পুষ্টিবিদ নুসরাত জাহানের পরামর্শ, কিছু বিশেষ খাবার আছে, যেগুলো ভিটামিন ডি-র জন্য উপযুক্ত। আমাদের খাদ্যতালিকায় কুসুমসহ ডিম থাকতে হবে; বিভিন্ন ডেইরি প্রোডাক্টস, বিভিন্ন মাছ হতে পারে। তবে খেয়াল রাখতে হবে সামুদ্রিক মাছ যেন থাকে। কেননা, সামুদ্রিক মাছ থেকে আমরা প্রচুর ভিটামিন ডি পেয়ে থাকি। এ ছাড়া মাশরুম হতে পারে, অরেঞ্জ জুস হতে পারে।

অনেকে মনে করে, ভিটামিন ডি ডিফিসিয়েন্সি প্রতিরোধ শুধু সানলাইট এবং ভিটামিন ডি-যুক্ত খাবার গ্রহণ করলেই হয়, আসলে ধারণাটা সঠিক নয়। কেননা, ভিটামিন ডি ডিফিসিয়েন্সি দূর করার জন্য ভিটামিন ডি-যুক্ত খাবার গ্রহণের পাশাপাশি ক্যালসিয়াম-জাতীয় খাবার গ্রহণ করতে হবে। ক্যালসিয়ামের যদি ডিফিসিয়েন্সি থাকে, এই ভিটামিন ডি-র কোনো ডাইজেশন ভালোমতো হয় না। তাই এর ডিফিসিয়েন্সি দূর করার জন্য ভিটামিন ডি-যুক্ত খাবার এবং সমান ভাবে ক্যালসিয়ামযুক্ত খাবার খেতে হবে। বিভিন্ন ধরনের খাবার থেকে আমরা ক্যালসিয়াম পেতে পারি। যেমন—স্পিনাচ, ওটস মিল্ক হতে পারে, ওকরা হতে পারে, ছোট কাঁটাযুক্ত মাছ; ডেইরি প্রোডাক্টস থেকেও আমরা ক্যালসিয়াম পেতে পারি। চেষ্টা করতে হবে সপ্তাহে যেন অন্তত একদিন মাশরুমের স্যুপ থাকে। তাহলে ভিটামিন ডি ডিফিসিয়েন্সি প্রতিরোধ করতে পারব।

ক্রেডিট: এনটিভি

0 টি ভোট
করেছেন (104,150 পয়েন্ট)
মানব ত্বকের এপিডার্মাল বেসাল ও সুপ্রাবেসাল কেরাটিনোসাইট এবং ডার্মাল ফাইব্রোব্লাস্ট উভয়ের প্লাজমা ঝিল্লিতে এক ধরনের কোলেস্টেরল ডিহাইড্রোকলেস্টেরল সূর্যের আলোতে উপস্থিত অতিবেগুনী রশ্মির প্রভাবে প্রোভিটামিন ডি-৩ তে পরিণত হয়। এই প্রোভিটামিন ডি-৩ প্লাজমা ঝিল্লি থেকে মুক্তি পায় এবং ভিটামিন ডি বাইন্ডিং প্রোটিনের সাথে আবদ্ধ হয়ে রক্তসংবহন তন্ত্রে প্রবেশ করে।

গৃহীত খাদ্যের মাধ্যমে ডি-২ এবং ডি-৩ পৌষ্টিকতন্ত্রের মাধ্যমে রক্ত সংবহন তন্ত্রে যুক্ত হয়। এরাও এক ধরনের প্রোভিটামিন। এই রাসায়নিকগুলো যকৃতে গিয়ে হেপাটিক হাইড্রোক্লেস নামক একটি উৎসেচক দ্বারা ২৫-হাইড্রোক্সিভিটামিন ডি এ রূপান্তরিত হয়। এই ২৫-ডি এর মাণ মানুষের দেহে ভিটামিন ডি পরিমাপের সূচক।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

+12 টি ভোট
1 উত্তর 41 বার দেখা হয়েছে
0 টি ভোট
0 টি উত্তর 7 বার দেখা হয়েছে
+8 টি ভোট
1 উত্তর 93 বার দেখা হয়েছে

7,632 টি প্রশ্ন

9,339 টি উত্তর

4,364 টি মন্তব্য

62,995 জন সদস্য

52 জন অনলাইনে রয়েছে
2 জন সদস্য এবং 50 জন গেস্ট অনলাইনে
  1. Hojayfa Ahmed

    17340 পয়েন্ট

  2. Md.Mahibuzzaman

    13550 পয়েন্ট

  3. Abdullah Shuvo

    5560 পয়েন্ট

  4. Anupom

    2450 পয়েন্ট

  5. মেহেদী হাসান

    1280 পয়েন্ট

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় উন্মুক্ত বিজ্ঞান প্রশ্নোত্তর সাইট সায়েন্স বী QnA তে আপনাকে স্বাগতম। এখানে যে কেউ প্রশ্ন, উত্তর দিতে পারে। উত্তর গ্রহণের ক্ষেত্রে অবশ্যই একাধিক সোর্স যাচাই করে নিবেন। অনেকগুলো, প্রায় ২০০+ এর উপর অনুত্তরিত প্রশ্ন থাকায় নতুন প্রশ্ন না করার এবং অনুত্তরিত প্রশ্ন গুলোর উত্তর দেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। প্রতিটি উত্তরের জন্য ৪০ পয়েন্ট, যে সবচেয়ে বেশি উত্তর দিবে সে ২০০ পয়েন্ট বোনাস পাবে।


Science-bee-qna

সর্বাপেক্ষা জনপ্রিয় ট্যাগসমূহ

মানুষ পানি এইচএসসি-উদ্ভিদবিজ্ঞান ঘুম এইচএসসি-প্রাণীবিজ্ঞান রোগ চোখ জীববিজ্ঞান - পৃথিবী শরীর এইচএসসি-আইসিটি মোবাইল কী ক্ষতি রক্ত চুল চিকিৎসা আলো মাথা কারণ উপকারিতা গরম প্রাণী বৈজ্ঞানিক বৃষ্টি পার্থক্য শীতকাল ডিম খাওয়া কাজ সাপ রং বিদ্যুৎ প্রযুক্তি #biology কেন লাল খাবার রাত সাদা আগুন ভয় সূর্য গাছ হাত মহাকাশ মশা শক্তি সমস্যা কি উপায় ব্যাথা মাছ পদার্থবিজ্ঞান বৈশিষ্ট্য পা #জানতে মনোবিজ্ঞান দুধ ঠাণ্ডা স্বাস্থ্য গণিত #ask গ্রহ কালো রসায়ন আম উদ্ভিদ দাঁত বাচ্চা শব্দ মেয়ে নাক বিজ্ঞান হলুদ স্বপ্ন রঙ চাঁদ ঔষধ বাতাস ভাইরাস বিড়াল পাতা বিস্তারিত চার্জ ফোবিয়া হরমোন তাপমাত্রা পাখি চা মানসিক নখ পাকা মৃত্যু আবিষ্কার কুকুর ত্বক বৃদ্ধি জন্ম
...