আমাদের জীবনে মোট হৃদকম্পন সংখ্যা সসীম, না-কি অসীম? - ScienceBee প্রশ্নোত্তর

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির প্রশ্নোত্তর দুনিয়ায় আপনাকে স্বাগতম! প্রশ্ন-উত্তর দিয়ে জিতে নিন পুরস্কার, বিস্তারিত এখানে দেখুন।

0 টি ভোট
68 বার দেখা হয়েছে
"জীববিজ্ঞান" বিভাগে করেছেন (18,610 পয়েন্ট)

2 উত্তর

0 টি ভোট
করেছেন (18,610 পয়েন্ট)
আমাদের হৃদপিণ্ডটি খুবই কৌতূহলোদ্দীপক। প্রাচীনকাল থেকেই মানুষের এই বিশেষ অঙ্গটির ব্যাপারে কৌতূহল এবং আগ্রহের শেষ নেই। আবার সাহিত্যিকরাও এই হৃদপিণ্ড নিয়ে হরেকরকম সাহিত্য রচনা করেছেন। হৃদপিণ্ডটি মূলত 'হৃদপেশি' নামক বিশেষ ধরনের অনৈচ্ছিক পেশি দ্বারা গঠিত। আপনি চাইলেও হৃদপিণ্ডের কম্পনকে থামিয়ে রাখতে পারবেন না। সন্তান ভূমিষ্ঠ হওয়ার আগেই মাতৃগর্ভেই হৃদপিণ্ডের কম্পন শুরু হয়, যা চলে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত।

আমরা জানি, সাধারণত একজন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের ক্ষেত্রে প্রতি মিনিটে গড়ে ৬০-১০০ বার হৃদকম্পন হয়ে থাকে। তবে শিশুদের ক্ষেত্রে এই কম্পনসংখ্যা কিছুটা আলাদা। জন্মের পর তিন মাস অবধি শিশুদের প্রতি মিনিটে গড়ে ১০০-১৫০ বার কম্পন হয়, ১-৩ বছর বয়সী শিশুদের ক্ষেত্রে ৭০-১০০ বার এবং ১২ বছর পর্যন্ত শিশুদের ক্ষেত্রে ৫৫-৮৫ বার হৃদকম্পন হয়ে থাকে।

আপনি কি কখনো ভেবে দেখেছেন, সারাজীবনে আমাদের মোট হৃদকম্পন সংখ্যা কত হতে পারে? এই সংখ্যাটি কি সান্ত? না-কি অনন্ত? আসুন জেনে নিই এই ব্যাপারে। সাধারণ সময়ে আমাদের হৃদপিণ্ডে প্রতি মিনিটে গড়ে ৬০-১০০ বার হৃদকম্পন হয়ে থাকে। তবে, আপনি যখন কায়িক পরিশ্রম করেন, তখন আপনার হৃদকম্পনের সংখ্যা বেড়ে যায়। কেননা, তখন সারা দেহে বেশি পরিমাণে অক্সিজেন সরবরাহ করা প্রয়োজন। হিসাব করার সুবিধার্থে ধরে নিই প্রতি মিনিটে গড়ে আপনার ৮০ বার হৃদকম্পন হয়। তাহলে একঘণ্টায় আপনার মোট হৃদকম্পন সংখ্যা হবে (৮০*৬০)=৪৮০০। তাহলে একদিনে আপনার হৃদকম্পন সংখ্যা হবে (৪৮০০*২৪)= ১,১৫,২০০। তাহলে একবছরে মোট হৃদকম্পন সংখ্যা হবে (১,১৫,২০০*৩৬৫)= ৪২,০৪৮,০০০। আর যদি অধিবর্ষ হয়, তবে সে সংখ্যা হবে (১,১৫,২০০*৩৬৬)= ৪২,১৬৩,২০০।

২৭এ জুন,২০২১ এ প্রথম আলো পত্রিকার একটি খবরে দেখা যায় বর্তমানে বাংলাদেশের গড় আয়ু ৭২.৮ বছর। একজন বাংলাদেশী মানুষ যদি ৭২.৮ বছর বাঁচেন, তবে তার জীবনে প্রায় ১৮ টি লিপ ইয়ার আসবে(আনুমানিক)। তবে তার জীবনের মোট হৃদকম্পন সংখ্যা হবে (৪২,০৪৮,২০০*৫৪.৮)+(৪২,১৬৩,২০০*১৮)= ২৩০৪২৪১৩৬+৭৫৮৯৩৭৬০০

=৯৮৯৩৬১৭৬৩ টি।

তাহলে একজন বাংলাদেশীর জীবনের সর্বমোট হৃদকম্পন সংখ্যা হবে প্রায়  ৯৮৯৩৬১৭৬৩।

অন্যদিকে আমরা যদি বৈশ্বিক অবস্থা চিন্তা করি, তবে দেখি যে একজন মানুষের গড় আয়ু ৭৩.২ বছর। যদি একজন মানুষ ৭৩.২ বছর বাঁচেন তবে তার জীবনে অধিবর্ষ আসবে প্রায় ১৮ টি। তাহলে ৭৩.২ বছর বেঁচে থাকা একজন মানুষের জীবনের মোট হৃদকম্পন হবে-

(৪২,০৪৮,২০০*৫৫.২)+(৪২,১৬৩,২০০*১৮)

= ২৩২১০৬০৬৪ + ৭৫৮৯৩৭৬০০

= ৯৯১০৪৩৬৬৪

তাহলে সারাবিশ্বে গড়ে মানুষের জীবনের মোট হৃদকম্পন সংখ্যা হবে ৯৯১০৪৩৬৬৪।

তাহলে দেখা যাচ্ছে যে, আমাদের জীবনের মোট হৃদকম্পন সংখ্যা মোটেই অসীম নয়। এটি আমরা গুণতে পারি। যদিও এই সংখ্যাটি আক্ষরিক অর্থেই বিশাল!

- হায়াত মোহাম্মাদ ইমরান আরাফাত
0 টি ভোট
করেছেন (43,470 পয়েন্ট)
সসীম কারণ এটি গণনা করতে পারি।যদি এটি স্বাভাবিক মতে অনেক বড় সংখ্যা তবুও গণনা করতে পারি তাই সসীম।অসীম হচ্ছে স্বাভাবিক মতে গণনা ছাড়া হিসাব করা সম্ভব নয়।এমন কি কল্পনা করে ও সম্ভব নয়।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

0 টি ভোট
1 উত্তর 59 বার দেখা হয়েছে
0 টি ভোট
1 উত্তর 53 বার দেখা হয়েছে
+1 টি ভোট
2 টি উত্তর 74 বার দেখা হয়েছে
13 অক্টোবর 2021 "পদার্থবিজ্ঞান" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Anupom (15,040 পয়েন্ট)
0 টি ভোট
0 টি উত্তর 31 বার দেখা হয়েছে

9,621 টি প্রশ্ন

16,067 টি উত্তর

4,576 টি মন্তব্য

130,736 জন সদস্য

56 জন অনলাইনে রয়েছে
13 জন সদস্য এবং 43 জন গেস্ট অনলাইনে
  1. Msknirob

    6710 পয়েন্ট

  2. Md. Taseen Alam

    6050 পয়েন্ট

  3. Mohammed Rayhan

    2050 পয়েন্ট

  4. Jihadul Amin

    1150 পয়েন্ট

  5. shafah555

    860 পয়েন্ট

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় উন্মুক্ত বিজ্ঞান প্রশ্নোত্তর সাইট সায়েন্স বী QnA তে আপনাকে স্বাগতম। এখানে যে কেউ প্রশ্ন, উত্তর দিতে পারে। উত্তর গ্রহণের ক্ষেত্রে অবশ্যই একাধিক সোর্স যাচাই করে নিবেন। অনেকগুলো, প্রায় ২০০+ এর উপর অনুত্তরিত প্রশ্ন থাকায় নতুন প্রশ্ন না করার এবং অনুত্তরিত প্রশ্ন গুলোর উত্তর দেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। প্রতিটি উত্তরের জন্য ৪০ পয়েন্ট, যে সবচেয়ে বেশি উত্তর দিবে সে ২০০ পয়েন্ট বোনাস পাবে।


Science-bee-qna

সর্বাপেক্ষা জনপ্রিয় ট্যাগসমূহ

মানুষ পানি ঘুম এইচএসসি-উদ্ভিদবিজ্ঞান এইচএসসি-প্রাণীবিজ্ঞান পৃথিবী জীববিজ্ঞান রোগ চোখ - পদার্থ শরীর রক্ত আলো কী মোবাইল ক্ষতি চিকিৎসা চুল এইচএসসি-আইসিটি মহাকাশ পদার্থবিজ্ঞান বৈজ্ঞানিক মাথা সূর্য স্বাস্থ্য পার্থক্য প্রাণী প্রযুক্তি রাসায়নিক গণিত খাওয়া কেন ডিম বিজ্ঞান গরম কারণ #biology বৃষ্টি #ask রং চাঁদ #জানতে শীতকাল উপকারিতা কাজ বিদ্যুৎ আগুন সাদা লাল রাত সাপ উপায় শক্তি মনোবিজ্ঞান দুধ গাছ হাত ব্যাথা ভয় আবিষ্কার খাবার মশা শব্দ মাছ #science গ্রহ ঠাণ্ডা কি মস্তিষ্ক কালো পা বৈশিষ্ট্য স্বপ্ন সমস্যা উদ্ভিদ বাতাস রঙ হলুদ মন রসায়ন মেয়ে ভাইরাস আম বিস্তারিত পাতা আকাশ তাপমাত্রা ব্যথা ঔষধ পাখি মৃত্যু চার্জ দাঁত গ্যাস কান্না নাক হরমোন বিড়াল বাচ্চা
...