কী হবে যদি পর্যায় সারণির ১১৮ টি মৌল একসাথে নিয়ে ঝাঁকানো হয়? - ScienceBee প্রশ্নোত্তর

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির প্রশ্নোত্তর দুনিয়ায় আপনাকে স্বাগতম! প্রশ্ন-উত্তর দিয়ে জিতে নিন পুরস্কার, বিস্তারিত এখানে দেখুন।

+3 টি ভোট
13,220 বার দেখা হয়েছে
"রসায়ন" বিভাগে করেছেন (141,790 পয়েন্ট)

2 উত্তর

+3 টি ভোট
করেছেন (141,790 পয়েন্ট)
নির্বাচিত করেছেন
 
সর্বোত্তম উত্তর

​​​​​​মৃত্যু, এককথায় মৃত্যু !

সেটা বিভিন্নভাবে হতে পারে, একটু ব্যাখ্যা করা যাক৷ 

যদি কেউ গ্রপ অথবা পর্যায় অনুযায়ী মৌলগুলো একসাথে করে যেমন সে প্রথম পর্যায়ে হাইড্রোজেন এবং হিলিয়াম একসাথে মিশ্রিত করলো অথবা ২য় পর্যায়ের লিথিয়াম, বেরিলিয়াম, বোরন, কার্বন, নাইট্রোজেন, অক্সিজেন, ফ্লোরিন, নিয়ন একসাথে মিশ্রিত করলো তাহলে কিছু কিছু পর্যায়ের বিক্রিয়ায় সে মারা যাবে না, যেমন ১ম পর্যায়। 

কিন্তু প্রশ্নে যেহেতু বলেছে ১১৮ টিই একসাথে বিক্রিয়া করাবে তাহলে পর্যায় বা গ্রুপ অনুযায়ী ব্যাখ্যা করে লাভ নাই। প্রথমত ১১৮ টি মৌল একপাত্রে আবদ্ধ করা ইম্পসিবল। কারণ এখানে আছে সলিড, লিকুইড, গ্যাস, তেজস্ক্রিয় ইত্যাদি মৌল যা একত্রিত করা ইম্পসিবল, দেখা যাবে পাত্রে আনার আগেই সেই মৌলটা বাতাসের সাথে বিক্রিয়া করে ফেলতে পারে, তেজস্ক্রিয়ত ছড়াতে পারে৷ 

আচ্ছা, ধরে নিলাম সে শেষ পর্যন্ত ১১৮ টি মৌল একসাথে একপাত্রে আবদ্ধ করলো, এখন আসবে প্রশ্ন, আপনি কিভাবে মরতে চান? 

উচ্চ বিক্রিয়া ক্ষমতা সম্পন্ন মৌল যেমন অক্সিজেন, ফ্লোরিন, সোডিয়াম, লিখিয়াম ইত্যাদি বড়সড় বিস্ফোরণ ঘটাবে৷ আপনি সাথে সাথে বাইরে চলে যাবেন?  বলা তো যাচ্ছে না কতবড় বিস্ফোরণ ঘটবে।

এরপরেই আছে টক্সিক মৌল যেমন আর্সেনিক। যদিও এগুলো থেকে বাঁচা কোনভাবে সম্ভব কিন্তু বলা তো যাচ্ছে না এগুলো কার সাথে বিক্রিয়া করে কতদূর পর্যন্ত টক্সিসিটি ছড়ায়। 
আসল মজা এখন। নাগাসাকি, হিরোশিমার তেজস্ক্রিয় বিস্ফোরণ কথা মনে আছে না? আরেকটা বিষক্রিয়া ছড়ানোর জন্য আপনার নামও ইতিহাসের পাতায় লেখা হতে পারে। 

d ব্লকের কিছু মৌল, ল্যান্থনাইড ও এক্টিনাইড গ্রুপের যেসব তেজস্ক্রিয় মৌল আছে সেগুলো মোটামুটি আপনার এলাকা, এমনকি দেশ ও শেষ করে দিতে পারে (কতটুকু নিয়েছেন তার উপর ডিপেন্ড করছে) আগামী ২০ প্রজন্ম বিকলাঙ্গ হয়ে জন্মানোও অস্বাভাবিক কিছু না। এ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে তেজস্ক্রিয় বিস্ফোরণের কাহিনিগুলো পড়ে দেখলেই হবে। 

শেষ কথায় আসি, ১১৮ টি মৌল তো দুরের কথা আপনার কাছে থাকা দুইটি মৌলও ভুলবশত বিক্রিয়া করানো উচিত না। সাদাসিধা সোডিয়ামও কিন্তু সাধারণ পানিতে ডুবালে বিস্ফোরিত হয়। রসায়ন যেমন সুন্দর, তেমনি ভয়ঙ্করও। 

"রসায়ন ভয়ঙ্কর সুন্দর"

​​​​​​লিখেছেন: মবিন সিকদার | প্রতিষ্ঠাতা, সায়েন্স বী

0 টি ভোট
করেছেন (470 পয়েন্ট)
এই প্রশ্নটা জীবনে একবার না একবার হলেও আমাদের সবার মাথায় এসেছে। আমরা হয়তোবা হাসাহাসি করে উড়িয়ে দিয়েছি ব্যাপারটা। কিন্তু আসলেই কি হবে?
 দেখা যাক কি হয়...আমরা তাহলে শুরু করতে পারি।
প্রথমত,কয়েকটা ব্যাপার আমাদের খেয়াল রাখতে হবে। যেমন প্রত্যেকটা মৌল কতটুকু পরিমাণ আমরা একসাথে মেশাচ্ছি। যদি প্রতিটা মৌলের একটা করে পরমাণু মেশাই, সব মিলিয়ে যা হবে তা চোখেই দেখা যাবেনা, সেখানে বিক্রিয়া হোক বা না হোক। তাহলে তো আসলে লাভ নাই।

আচ্ছা তাহলে আমরা পরিমাণটা একটু বেশী নেবো। ধরি এক চা চামচ। এবার কয়েকটা বিষয় খেয়াল করতে হবে। আমরা কোনটা আগে কোনটা পরে ঢালবো? এখন আবার অনেকে বলবেন যে আচ্ছা এমন একটা মেশিন দিয়ে ঢালবো, যাতে সবগুলো সমান সময়ে পড়ে। হ্যাঁ, ভাই মানলাম কথা। কিন্তু এখানে আবার আরেকটা সমস্যা আছে। সবগুলো সমান সময়ে ঢালার পরও দেখতে হবে যে কোনটার সংস্পর্শে কোনটা আসছে।যেমন 'ক' একটা মৌল, তাহলে তার সংস্পর্শে আসার জন্য আরোও ১১৭ টা মৌলের সম্ভাবনা আছে। এভাবে সব মৌলের বিন্যাস ঘটাতে গেলে অনেক কেইস পাওয়া সম্ভব। আচ্ছা থাক তাহলে এভাবে সবগুলোকে একসাথে ঢালাটাও বুদ্ধিমানের কাজ হবেনা। আমরা যেহেতু কম সংখ্যক ফলাফলই চাচ্ছি।
আবার আমাদের দেখতে হবে যে কোন তাপমাত্রা বা চাপে আমরা এগুলোকে মেশাবো। ভেজাল না করে ধরি আমাদের রুম টেম্পারেচারে আমরা সব এক্সপেরিমেন্ট করবো।
এবার তাহলে আমরা একটা নির্দিষ্ট সিকুয়েন্সে মেশাতে থাকবো। যেমন একটা একটা গ্রুপ বা পর্যায় করে মেশাবো, তারপর সবগুলোকে একসাথে মেশাবো।
এখন কথা হলো যে একটা একটা গ্রুপ অনুযায়ী মেশাবো, নাকি একটা একটা পর্যায় অনুযায়ী মেশাবো? একটা গ্রুপের সব মৌলই তো প্রায় সেইম বৈশিষ্ট্য বা ধর্ম প্রকাশ করে, তাহলে এদের মিশিয়ে তো লাভ নাই। আমরা বাংগালী , আমরা চাই কিছু বিস্ফোরণ টাইপের ব্যাপার ঘটুক। তাহলে আমরা একটা একটা পর্যায় করে মেশাবো প্রথমে, তারপর সবগুলোকে একসাথে করবো।
তো শুরু করি।
প্রথম পর্যায়ে আছে Hydrogen আর Helium. এর মধ্যে helium নিষ্ক্রিয় গ্যাস, আর হাইড্রোজেন থাকে অণু আকারে। তো এগুলো উড়ে যাওয়া ছাড়া তেমন কিছুই হবেনা।
দ্বিতীয় পর্যায়ে আছে, Lithium,Beryllium,Boron,Carbon,Nitrogen,Oxygen,Fluorine আর Neon.
এখানে একটু সতর্ক হতে হবে আমাদের।  কারণ ফ্লোরিন গ্যাস নিঃশ্বাসের সাথে গেলে মারাত্মক ক্ষতি হবে, আর বেরিলিয়াম কিছুটা টক্সিক। এখানে কিছু পরিমাণ CO, CO2, LiF, BaF2 তৈরি হবে। আর কিছু N2 ও O2 গ্যাস উড়ে যাবে। যদি এদের মিক্সচার আমরা আগের পর্যায়ের সাথে মিশিয়ে দেই, তাহলে কিছুটা পানিও পেয়ে যেতে পারি। অবশ্য এখনও আমরা সেইফ।  কোনো বিস্ফোরণ টাইপের কিছু ঘটে নি এখনো।
এবার আসি তৃতীয় পর্যায়ে।
তৃতীয় পর্যায়ে আছে sodium, magnesium, aluminium, silicon, phosphorous ,Sulphur, Chlorine এবং Argon.
এই পর্যায়ে সাবধান না থাকলে আপনি পুড়ে যেতে পারেন।
এখানে সবচেয়ে বড় সমস্যা তৈরি করবে ফসফরাস।  ফসফরাস অনেক টাইপের থাকে, যেমন রেড ফসফরাস, হোয়াইট ফসফরাস। হোয়াইট ফসফরাস আগুনের সাথে বিক্রিয়া করে জ্বলে উঠে। আর সালফার অনেকটা দুর্গন্ধযুক্ত। সালফারের সাথে Cl বা F বিক্রিয়া করলে হিউজ তাপ উৎপন্ন হবে যা আমরা যেখানে বিক্রিয়া করাচ্ছি সে জায়গাটা পুড়িয়ে দিতে পারে। আর সোডিয়াম যদি পূর্বে তৈরিকৃত পানির সংস্পর্শে আসতে পারে, তাহলে মোটামুটি বিস্ফোরণ হবে। নিষ্ক্রিয় গ্যাস আর্গন বাতাসের চেয়ে কিছুটা ভারি। তাই এটা আগের মতো উড়ে না গিয়ে ছড়িয়ে পড়বে চারদিকে।
Move on to period 4
এই পর্যায় আপনাকে বিষাক্ত পদার্থ তৈরি করে মেরে ফেলতে সক্ষম।
এখানে পটাশিয়াম থেকে ক্রিপ্টন পর্যন্ত মৌলগুলো আছে। যেহেতু অনেক মৌল,  তাই অনেক ঘটনা ঘটতে পারে। কয়েকটা বলি।
 এখানের আর্সেনিক আগের অক্সিজেনের বা ফসফরাসের সাথে বিক্রিয়া করে টক্সিক যৌগ তৈরি করবে, বার্নিং সেলেনিয়াম সালফারের সাথে মিশে এর দুর্গন্ধকে দূর করে দিতে পারে। যদি অ্যালুমিনিয়াম আগুনের সংস্পর্শে আসে, তাহলে এর নিচে থাকা গলিত গ্যালিয়াম একে শোষণ করে
ভেজা কাগজের মতো সফট করে দেবে। যেহেতু অনেক তাপের উৎপন্ন হবে, তাই আগের পর্যায়ের গ্যাসগুলো উড়ে যাবে, আর কিছু সংকর তৈরি হবে। মোটকথা অনেক বিষাক্ত পদার্থ তৈরি হবে।
Next period 5
এই পর্যায়ে আপনি একটু একটু রেডিয়েশনের স্বাদ পেতে থাকবেন।
এখানে 37-54 (রুবিডিয়াম-জেনন) পর্যন্ত মৌলগুলো আছে।
এবার আসবে মজা। এই পর্যায়ের হিরো হলো টেকনেশিয়াম-99, সিরিয়ালি প্রথম তেজস্ক্রিয় মৌল যার কোনো স্ট্যাবল আইসোটোপ নাই। তবে এটা খুব বেশী যে ইমপ্যাক্ট ফেলবে তেমনটা নয়, যদি এর তৈরি একটা টুপি সারাদিন পড়েন, বা এর গন্ধ নিতে থাকেন, তাহলে এটা হয়তোবা আপনাকে মেরে ফেলতে পারে। এছাড়া এই গ্রুপে তেমন স্পেশাল কিছুই নাই। অনেকটা চতুর্থ পর্যায়ের মতোই। কিছু সংকর তৈরি হবে বিক্রিয়া করে।
Will you move on to sixth row?
এই পর্যায় ব্যাপক বিস্ফোরণ ঘটাবে তেজস্ক্রিয়তার সাথে।
এখানে ৫৫-৮৬ (সিজিয়াম-রেডন) পর্যন্ত মৌল আছে, ল্যান্থানাইড সারণি সহ। এখানের বিভিন্ন তেজস্ক্রিয় মৌলগুলো হলো promethium, polonium, astatine, radon সহ আরোও কিছু।
এখানের Astatine মৌলে কিছু বিশেষত্ব আছে। Astatine দেখতে আসলে কেমন সেটা আমরা এখনো জানিনা, কারণ এটা এতটাই তেজস্ক্রিয় যে কিছু পরিমাণ রাখলে এটা নিজেই খুব দ্রুত নিজের তাপে নিজে পুড়ে যাবে। কেমিস্টরা মনে করেন যে এটার কালো সার্ফেস থাকতে পারে, তবে এখনো এটা কেউ জানে না। কিছু কিছু মৌল হয়তো তেজস্ক্রিয়তার কারণে অন্য মৌলে রুপান্তরিত হতে পারে, তবে যদি ভাবেন স্বর্ণ পেয়ে যেতে পারেন,  সেই আশা ভুল। মোটামুটি সাম আপ করলে বলা যায় তেজস্ক্রিয়তার কারণে ল্যাবের ও আপনার মারাত্নক অবস্থা হতে পারে, বা বড়সড় বিস্ফোরণ হতে পারে।
The last period.....sounds terrific, will you continue, Or not going through it?
এই পর্যায়ে ফলাফলের চিন্তা মাথা থেকে বাদ দিয়ে আগে গরীব হওয়ার প্ল্যান করুন, কারণ এগুলো কেনার মতো সামর্থ্য অনেক ধনীদেরও নাই, আর এগুলো পাওয়াও যায় না।
এই পর্যায়ে আছে francium থেকে Oganesson পর্যন্ত মৌলগুলো, অর্থাৎ 97-118 পর্যন্ত মৌলগুলো।
এখানের প্রায় সব মৌলগুলোই তেজস্ক্রিয়। আর বেশিরভাগের হাফ লাইফ খুব কম থাকে। আর খুব রেয়ার টাইপের মৌলগুলো থাকে, যেমন ধারণা করা হয় পৃথিবীতে Francium মাত্র ৩০০-৫০০ গ্রামের মতো আছে। আবার Livermorium (element 116) এর ১০০,০০০ টা পরমাণু যদি আপনি কালেক্ট করেন, তাহলে ১ সেকেন্ড পর আপনার মাত্র ১ টা পরমাণু বাকি থাকবে। যদি খুব কম পরিমাণে নেওয়া হয় সবগুলো, তাহলে তেমন কিছু হবেনা। তবে বেশী পরিমাণ নিলে চেইন রিয়েকশনের মতো (এক্সাক্টলি চেইন রিয়েকশন না) কিছু বড়সড় নিউক্লিয়ার বোমার মতো বিস্ফোরিত হতে পারে।
পরিশেষে বলা যায় এই ধরণের বিক্রিয়া করাটা অনেক ব্যয়বহুল হবে, আর অবশ্যই অনেক অপচয়ের হবে। এই অর্থ দিয়ে সায়েন্টিফ আলাদা প্রজেক্টের কাজ করলে বরং তা কাজে আসবে।
Written by %Ihef_Racekr
Source: https://www.quora.com/What-will-happen-if-I-mix-all-the-elements-of-the-Periodic-Table-a-spoon-of-every-element-in-its-liquid-state
(বি.দ্র. কোরা যদিও তেমন ভেরিফাইড সাইট না, তাও সেখান থেকে বেস্ট আনসারগুলোকে ইন্ট্রিগেট করার চেষ্টা করেছি)
Book:-What if by RANDALL MUNROE.

https://education.jlab.org/qa/combineelements_01.html#:~:text=Non%2Dreactive%20elements%20like%20helium,be%20sitting%20around%20as%20elements.
কোন পর্যায়টা আপনার ভালো লেগেছে তা জানাতে কিন্তু ভুলবেন না।
(ভুল ত্রুটি মার্জনীয়)

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

+1 টি ভোট
1 উত্তর 13,710 বার দেখা হয়েছে
17 সেপ্টেম্বর 2021 "রসায়ন" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Melody (6,000 পয়েন্ট)
+18 টি ভোট
1 উত্তর 236 বার দেখা হয়েছে
+3 টি ভোট
1 উত্তর 216 বার দেখা হয়েছে

10,703 টি প্রশ্ন

18,297 টি উত্তর

4,725 টি মন্তব্য

234,542 জন সদস্য

36 জন অনলাইনে রয়েছে
1 জন সদস্য এবং 35 জন গেস্ট অনলাইনে
  1. Md Shahadat Hossain

    220 পয়েন্ট

  2. আমি কই

    180 পয়েন্ট

  3. Asniya Ayub Ava

    170 পয়েন্ট

  4. মো. সিয়াম উদ্দিন

    150 পয়েন্ট

  5. Md Miraj Ali

    140 পয়েন্ট

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় উন্মুক্ত বিজ্ঞান প্রশ্নোত্তর সাইট সায়েন্স বী QnA তে আপনাকে স্বাগতম। এখানে যে কেউ প্রশ্ন, উত্তর দিতে পারে। উত্তর গ্রহণের ক্ষেত্রে অবশ্যই একাধিক সোর্স যাচাই করে নিবেন। অনেকগুলো, প্রায় ২০০+ এর উপর অনুত্তরিত প্রশ্ন থাকায় নতুন প্রশ্ন না করার এবং অনুত্তরিত প্রশ্ন গুলোর উত্তর দেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। প্রতিটি উত্তরের জন্য ৪০ পয়েন্ট, যে সবচেয়ে বেশি উত্তর দিবে সে ২০০ পয়েন্ট বোনাস পাবে।


Science-bee-qna

সর্বাপেক্ষা জনপ্রিয় ট্যাগসমূহ

মানুষ পানি ঘুম পদার্থ - জীববিজ্ঞান এইচএসসি-উদ্ভিদবিজ্ঞান এইচএসসি-প্রাণীবিজ্ঞান পৃথিবী চোখ রোগ রাসায়নিক শরীর রক্ত আলো মোবাইল ক্ষতি চুল কী #ask চিকিৎসা পদার্থবিজ্ঞান সূর্য প্রযুক্তি প্রাণী স্বাস্থ্য বৈজ্ঞানিক মাথা গণিত মহাকাশ পার্থক্য এইচএসসি-আইসিটি বিজ্ঞান #biology #science খাওয়া শীতকাল গরম কেন #জানতে ডিম চাঁদ বৃষ্টি কারণ কাজ বিদ্যুৎ রাত রং উপকারিতা শক্তি লাল আগুন সাপ মনোবিজ্ঞান গাছ খাবার সাদা আবিষ্কার দুধ উপায় হাত মশা মাছ মস্তিষ্ক শব্দ ঠাণ্ডা ব্যাথা ভয় বাতাস গ্রহ স্বপ্ন তাপমাত্রা রসায়ন উদ্ভিদ কালো কি বিস্তারিত রঙ পা পাখি গ্যাস মন সমস্যা মেয়ে বৈশিষ্ট্য হলুদ বাচ্চা সময় ব্যথা মৃত্যু চার্জ অক্সিজেন আকাশ গতি দাঁত ভাইরাস আম বিড়াল কান্না নাক
...