সারা দুনিয়ার ট্রাফিক জ্যামের খবর গুগল কিভাবে জানে? - ScienceBee প্রশ্নোত্তর

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির প্রশ্নোত্তর দুনিয়ায় আপনাকে স্বাগতম! প্রশ্ন-উত্তর দিয়ে জিতে নিন পুরস্কার, বিস্তারিত এখানে দেখুন।

+13 টি ভোট
327 বার দেখা হয়েছে
"প্রযুক্তি" বিভাগে করেছেন (68,110 পয়েন্ট)

4 উত্তর

+4 টি ভোট
করেছেন (68,110 পয়েন্ট)

আজকাল রাস্তার ট্রাফিক জ্যামের অবস্থা জানতে আমরা গুগল ম্যাপ ব্যবহার করি। আর জ্যামের পরিস্থিতি হিসেব করে গুগুল খুব ভালভাবে এটাও বলে দেয় যে শাহবাগ থেকে রামপুরা যেতে আপনার কতক্ষন সময় লাগবে। কিন্তু গুগল এই কাজটা করে কিভাবে? দুনিয়ার সব গাড়ির সাথেই কি গুগুলের ট্র্যাকার লাগানো আছে? নাকি স্যাটেলাইট ক্যামেরার ছবিতে গুগোল রাস্তার ছবি দেখে জ্যাম বুঝতে পারে?

আসলে সারা দুনিয়ার সব গাড়িতে গুগলের ট্র্যাকার লাগানো নেই। আর স্যাটেলাইট ক্যামেরায় পুরা দুনিয়ার ছবি প্রতি সেকেন্ডে এলানাইসিস করে প্রতি সেকেন্ডে জ্যামের আপডেট দেওয়ার মত শক্তিশালী কম্পিউটার ও ডাটা এনালাইসিস সফটয়ার এই মুহূর্তে কারও কাছেই নেই। কারন এর জন্য অস্বাভাবিক পরিমাণ ডাটা নিয়ে কাজ করতে হবে। গুগল এই কাজটা করে আপনার স্মার্ট ফোনের লোকেশন ব্যবহার করে। আমরা প্রায় সবাই স্মার্টফোনে লোকেশন শেয়ার করে রাখি। কোন রাস্তার উপর কতগুলো স্মার্ট ফোন আছে, আর সেগুলো কি বেগে চলাচল করছে তা হিসেব করে গুগোল রাস্তার ট্রাফিক জ্যামের ম্যাপ তৈরি করে।

কিন্তু কিছুদিক আগে এক লোক একটি লাগেজে ৯৯ টা মোবাইল নিয়ে বার্লিনের রাস্তা দিয়ে ধীরে ধীরে হেটে বেড়িয়েছে। ফলে গুগোল ওই ফাকা রাস্তাকেই ট্যাফিক জ্যাম মনে করে লাল মার্ক করে দিয়েছিল। গুগল অবশ্য এই হ্যাক ধরতে পেরেছে, আর প্রতিক্রিয়াও
জানিয়েছে । গুগল সেই পথচারিকে ধন্যবাদ দেয় । গুগল বলে যে- ভারত, মিশর বা ইন্দোনেশিয়াতে তারা রাস্তার গাড়ি ও মোটরসাইকেলগুলোকে আলাদাভাবে সনাক্ত করতে পারে কিন্তু হ্যান্ড কার্ট সনাক্তকরার প্রতি কখনো দৃষ্টি দেয়নি। এখন থেকে তারা হ্যান্ডা কার্ট বা ট্রলিকেও হিসেবে ধরবে।

0 টি ভোট
করেছেন (26,210 পয়েন্ট)

Simon Weckert নামে এক ব্যাক্তি একঅদ্ভুত কান্ড করেছিলেন। তিনি 99 টি মোবাইলে google map চালু রেখে মোবাইল গুলিকে একটি ছোট পাত্রের মধ্যে রেখে বার্লিনের এক ফাঁকা রোডের উপর দিয়ে ধীরে ধীরে চলতে শুরু করলেন।

image

এর ফলে রাস্তায় ওই জায়গা গুগল ম্যাপে ওই রাস্তাতে লাল রং দেখাচ্ছিল। Google ম্যাপ ব্যবহার করেন বুঝতেই পারছেন লাল রঙের অর্থ হলো ওই রাস্তায় জ্যাম রয়েছে।অর্থাৎ তিনি গুগল ম্যাপে একটি মিথ্যা জ্যাম তৈরী করতে সক্ষম হয়েছিলেন।

.Google সমস্ত মোবাইল ব্যবহারকারী GPS দিয়ে অনুসরণ করে। সেখান থেকে algorithm ব্যবহার করে গতিবেগ, দূরত্ব এইসব সহজে ক্যালকুলেশন করে। যেখানে অনেক ব্যবহারকারী রয়েছে, এবং গাড়ির গতিবেগ কম সেখানে ট্রাফিক জ্যাম দেখায়। অপেক্ষাকৃত বেশী গতিবেগ হলে "হলুদ" লাইন দেখিয়ে কম জ্যাম আছে বোঝানো হয়।

একজায়গায় থেকে অন্য জায়গা পৌঁছতে কত সময় লাগবে সেটা জানার জন্য গুগল পুরানো data সংগ্রহ করে এবং একটি নির্দিষ্ট গড় সময় আমাদের প্রদর্শন করে

- বাপন হালদার

0 টি ভোট
করেছেন (43,420 পয়েন্ট)
আমরা যখন রাস্তায় বের হই তখন আমাদের সাথে মোবাইল ফোন গুলো থাকে। আর এই প্রত্যেক ফোনে জিপিএস থাকে। যখন অনেকগুলো ব্যবহারকারী একত্রে থাকে তখন জিপিএসগুলো একই জায়গায় থাকে। যেহেতু ট্রাফিক পয়েন্টগুলো গুগলের জানা আছে, তাই গুগলো ওই জায়গায় থাকা মোবাইলগুলোর জিপিএস ট্রাক করে, ওই এলাকার ট্রাফিক জ্যাম এর দুরুত্ব মেপে থাকে।
0 টি ভোট
করেছেন (33,120 পয়েন্ট)
রাস্তায় যত মানুষ যানবাহনে চলাচল করছে, তাদের স্মার্টফোনে যদি লোকেশন সার্ভিস অন করা থাকে, তাহলে গুগল সেগুলো থেকে ট্রাফিকের ডেটা সংগ্রহ করে ইন্ডিকেটর তৈরি করে। এর মাধ্যমে গুগল রাস্তায় থাকা গাড়ির সংখ্যা, কত দ্রুত গাড়িগুলো চলছে, সেগুলো হিসাব করে জানিয়ে দেয় জ্যামের খবরাখবর।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

+5 টি ভোট
2 টি উত্তর 171 বার দেখা হয়েছে
+4 টি ভোট
3 টি উত্তর 97 বার দেখা হয়েছে
20 ফেব্রুয়ারি 2021 "প্রযুক্তি" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Hasan Rizvy Pranto (39,120 পয়েন্ট)
+3 টি ভোট
2 টি উত্তর 118 বার দেখা হয়েছে
24 ফেব্রুয়ারি 2021 "বিবিধ" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন হুজায়ফা আহমদ (133,840 পয়েন্ট)
0 টি ভোট
1 উত্তর 117 বার দেখা হয়েছে

8,958 টি প্রশ্ন

14,924 টি উত্তর

4,489 টি মন্তব্য

103,770 জন সদস্য

47 জন অনলাইনে রয়েছে
5 জন সদস্য এবং 42 জন গেস্ট অনলাইনে
  1. রেয়াজুর রহমান রাজ

    3910 পয়েন্ট

  2. Jihadul Amin

    1390 পয়েন্ট

  3. Sazzad Ahammad Fahim

    1190 পয়েন্ট

  4. Anindo Brody

    810 পয়েন্ট

  5. Anupom

    670 পয়েন্ট

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় উন্মুক্ত বিজ্ঞান প্রশ্নোত্তর সাইট সায়েন্স বী QnA তে আপনাকে স্বাগতম। এখানে যে কেউ প্রশ্ন, উত্তর দিতে পারে। উত্তর গ্রহণের ক্ষেত্রে অবশ্যই একাধিক সোর্স যাচাই করে নিবেন। অনেকগুলো, প্রায় ২০০+ এর উপর অনুত্তরিত প্রশ্ন থাকায় নতুন প্রশ্ন না করার এবং অনুত্তরিত প্রশ্ন গুলোর উত্তর দেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। প্রতিটি উত্তরের জন্য ৪০ পয়েন্ট, যে সবচেয়ে বেশি উত্তর দিবে সে ২০০ পয়েন্ট বোনাস পাবে।


Science-bee-qna

সর্বাপেক্ষা জনপ্রিয় ট্যাগসমূহ

মানুষ পানি ঘুম এইচএসসি-উদ্ভিদবিজ্ঞান এইচএসসি-প্রাণীবিজ্ঞান রোগ জীববিজ্ঞান পৃথিবী চোখ - শরীর পদার্থ রক্ত কী মোবাইল ক্ষতি আলো এইচএসসি-আইসিটি চিকিৎসা চুল মাথা মহাকাশ পদার্থবিজ্ঞান সূর্য বৈজ্ঞানিক প্রাণী স্বাস্থ্য প্রযুক্তি পার্থক্য কেন গরম কারণ ডিম রং #জানতে শীতকাল গণিত উপকারিতা খাওয়া কাজ #biology বৃষ্টি আগুন রাসায়নিক চাঁদ বিদ্যুৎ বিজ্ঞান রাত সাপ লাল সাদা উপায় খাবার দুধ ভয় আবিষ্কার শক্তি #ask গাছ ব্যাথা মশা ঠাণ্ডা হাত কি মনোবিজ্ঞান মাছ শব্দ গ্রহ কালো বৈশিষ্ট্য উদ্ভিদ সমস্যা পা রসায়ন মস্তিষ্ক ভাইরাস মেয়ে হলুদ স্বপ্ন মন আম পাখি বাতাস পাতা ব্যথা কান্না বিস্তারিত দাঁত গ্যাস বিড়াল রঙ নাক চার্জ হরমোন আকাশ তাপমাত্রা #science ঔষধ মৃত্যু চা
...