লবণ মেশানো গরম পানি কি করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ করে ?-না

২০২০ সালের শুরুতেই বিশ্বব্যাপী মহামারী আকার ধারণ করা কোভিড-১৯ করোনাভাইরাস এর সাথে সাথে ইন্টারনেটে প্রচার হতে শুরু করেছে বিভিন্ন মিথ্যা ও নকল মেডিকেল পরামর্শ।

এর মধ্যে অন্যতম একটি হলো “এই ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়া ব্যক্তি যদি লবণ বা ভিনেগার মেশানো গরম পানি দিয়ে গার্গল করেন তাহলে ভাইরাসটি গলাতেই ধ্বংস হয়ে যাবে,ফুসফুস পর্যন্ত পৌছাতে পারবে না।তথ্যটি প্রচার করুন,কারণ এর মাধ্যমে আপনি কারো জীবন বাঁচাতে পারেন।

ঠান্ডা বা ফ্লু জনিত চিকিৎসায় লবণ বা ভিনেগার মেশানো গরম পানি দিয়ে গড়গড়  করাকে সাময়িক শুশ্রূষা লাভের উপায় হিসেবে ব্যবহার করা হয়ে থাকে।কিন্তু এর মাধ্যমে করোনাভাইরাস প্রতিরোধ করা সম্ভব হবে এমন কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

এবং যদিও বলা হচ্ছে যে ভাইরাসটি নাক ও নাক থেকে ক্ষরিত রসে রেপ্লিকেট করতে সক্ষম,এমন কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি যার মাধ্যমে প্রমাণিত হতে পারে যে করোনা ভাইরাস গলায় চারদিন থাকে। করোনা ভাইরাস এর ইনকিউবেশন পিরিয়ড গড়ে পাঁচ দিন হিসাব করা হয়েছে। উল্লেখ্য, ইনকিবেশন পিরিয়ড হল ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়া ও রোগের লক্ষ্মণ সমূহ প্রকাশিত হওয়ার মধ্যবর্তী সময়।

বিশ্বা স্বাস্থ্য সংস্থা তাদের ওয়েবসাইটে বলেছে,স্যালাইন পানি দিয়ে নিয়মিত নাক পরিষ্কার করলে নভেল করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ করা সম্ভব হবে এমন কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি।এছাড়া নিয়মিত নাক পরিষ্কার করলে শ্বাসযন্ত্রের সংক্রমণ এড়ানো সম্ভব হবে এমন কোনো সম্ভাবনা এখনো দেখা যায়নি।


পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি পান করে হাইড্রেটেড থাকাকে যেকোনো সময়ের জন্যই মেডিকেল পরামর্শ হিসেবে বলা হয়,কিন্তু গড়গড়  করে করোনাভাইরাস প্রতিরোধ করা যাবে এমন কোনো প্রমাণ এখনো মেলেনি।

Source:
1.www.snopes.com
2.www.rappler.com