ফ্যাক্ট চেক: (মিথ্যা) এক টুকরা লেবুতেই ধ্বংস হবে করোনাভাইরাস

করোনা ভাইরাস নিয়ে গুজবের অন্ত নেই।এর ভেতর যেমন কিছু আছে চমকপ্রদ,তেমনি হাস্যকরও বটে।
সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট ঝড় তুলেছে এই মর্মে যে,সোডিয়াম বাইকার্বনেট দ্রবণ বা লেবুর রস পান করলে দেহের অম্লত্ব কমে যায়,যা COVID-19 দ্বারা সংক্রমিত হবার ঝুকি হ্রাস করে।

এই পোস্টে আরো দাবি করা হয় যে,”করোনা ভাইরাস দেহে অম্লীয় পরিবেশে মিউটেশসন করে এবং সংখ্যা বৃদ্ধি করে’।হাস্যকর হলেও সত্য, পোস্টটা এপর্যন্ত ফেসবুকে ৩৪ মিলিয়ন বার শেয়ার করা হয়েছে ৬ মার্চ,২০২০ পর্যন্ত।


বার্তা সংস্থা ‘রয়টার্স’ এহেন দাবির পক্ষে কোন সত্যতা খুজে পায়নি।উপরন্তু বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার মতে করনা ভাইরাসের কোন স্বীকৃত প্রতিষেধক নাই।যে ট্রিটমেন্ট এক পর্যন্ত দেওয়া হচ্ছে তা রগের উপসর্গ অনুসারে এবং তা অত্যন্ত মৃদু ভাবে কাজ করছে।


ফেসবুক পোস্টে যা দাবি করা হয়েছিল তার পুর্ণ রুপ হলঃ
“করোনা ভাইরাসের দ্বারা আক্রান্তের খবর এর সাথে আরো যোগ হয়েছে যে,এটি দেহের অম্লীয় কোষে বংশবৃদ্ধি এবং মিউটেশন ঘটাতে পারে।

সোজা কথায়,যদি আপনার শরীরে কোষগুলো যদি বেশি অম্লীয় হয় তবে আপনার করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হবার সম্ভাবনা অত্যাধিক।আবার কম অম্লীয় কোষ থাকলে ভাইরাস দ্বারা কম আক্রান্ত হবেন,এবং আক্রান্ত হবার সম্ভাবনাও কমে যাবে।


আমরা জানি যে,বাইকার্বনেট সোডা দেহের অম্ল ভাব কমিয়ে দেয়,তাই যদি নিজেকে মুক্ত রাখতে চান তবে এক চামচ বা আধ চামচ সোডিয়াম বাইকার্বোনেট নিজের পানির পাত্র বা বোতলে মিশিয়ে পান করুন।এতে আপনার শরীরের অম্লভাব নিয়ন্ত্রণে থাকবে ।সাবধানে থাকুন।

অন্য একটি পদ্ধতি হল,লেবুর রস পান করা।লেবুর রস দেহের কোষের অম্লভাব কমাতে সাহায্য করে।আপনি এখন এটা জানেন এবং আপনার দ্বায়িত্ব হল এটা সবাই কে জানান। – DeCactus “

শিশুরা করোনাভাইরাস থেকে মুক্ত ?
অভিভাবকদের যা জানা দরকার

আসলে এই গুজবটি ক্ষারীয় ডায়েট থেকে ক্যান্সার প্রতিরোধ নামক এক থিওরি থেকে প্রবল্ভাবে অনুপ্রাণিত।সাধারণত মনে করা হয়,উচ্চ অম্লীয় পরিবেশে ক্যান্সার কোষগুলো বেড়ে ওঠে (এটা পুরোটাই একটা থিওরি), যদি খাদ্যের মাধ্যমে ক্ষারীয় উপাদান শরীরে যোগ করা যায় তবে এই রোগ প্রতিরোধ করা যাবে।

কিন্তু এই থিওরি অনেক ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ মানতে নারাজ।American Institute of Cancer research এর ভাষ্য মতে,”অম্লীয় পরিবেশে ক্যান্সার কোষের বেড়ে ওঠা শুধুমাত্র কোন পরীক্ষাগারেই সম্ভব।শরীরের একটা নির্দিষ্ট অম্লতার থেকে বেশি অম্লতা তৈরি করা মোটেও সম্ভব না।যেমন আমাদের পাকস্থলি সব’চে অম্লীয় কারন এটা আমাদের হজমে সাহায্য করে।আমরা নিশ্চয় একে ক্ষারীয় করতে চাইবো না।” (প্রমাণ)

করোনা যেভাবে আপনার শরীরের নিয়ন্ত্রণ নিচ্ছে !(ইন্টারেক্টিভ ডিজাইন সহ)

University of Texas MD Anderson Cancer center এর মতে,”ক্ষারীয় ডায়েট আসলে দেহের pH সেরকম পরিবর্তন করে না।আসলে দেহের pH খুব সতর্কতার সাথে রক্ষিত হয়,পরিবর্তনটা শুধু প্রস্রাব আর লালায় হবে কারন সেখানে বর্জ্যের পরিমাণ বেশি থাকবে কিন্তু এভাবে রক্ত তথা কোষের ph কমানো সম্ভব না।”

আবার,University of California San Diego এর মতে,”ক্ষারীয় ডায়েট প্রচুর পরিমাণ ফল আর শাকসব্জি রাখা হয় আর খাওয়ার আলাদা বিধিনিষেধ রয়েছে।এই বিধিনিষেধ সাধারনত খাবারের অম্লত্ব আর ক্ষারকত্ব এর উপর নির্ভরশীল নয় বরং এর খাদ্যমানের উপর নির্ভরশীল।”
বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার পরামর্শ হল,বারেবারে হাত ধোয়া,হাচিকাশির সময় নাক মুখ বন্ধ রাখা,আর যদি কেউ সংক্রমিত হয় তার সাথে একেবারে কাছাকাছি অবস্থান না করা।


কোন মেডিকেল প্রুফ নাই যে,বাইকার্বোনেট সোডা বা লেবুর রস খেলে COVID-19  সংক্রমণ হবে না।তবে লেবুর রসে প্রচুর ভিটামিন C থাকে যা আপনার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে বাড়িয়ে দেবে !

আরও দেখুন –

১।রক্তের গ্রুপ ‘A’ হলে করোনা ঝুঁকি বেশি, ‘O’ হলে সবচেয়ে কম – বলছে চীনা গবেষণা

২।লবণ মেশানো গরম পানি কি করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ করে ?-না

৩।করোনা যেভাবে আপনার শরীরের নিয়ন্ত্রণ নিচ্ছে !(ইন্টারেক্টিভ ডিজাইনসহ)